সালমানের মোটা টাকার প্রস্তাবেও রাজি নন, কেন বলিউডের অফার ফেরালেন রূপঙ্কর

Riya Chatterjee

Published on:

বলিউডের প্রখ্যাত গায়ক কেকে-কে নিয়ে আলটপকা মন্তব্য করে সোশ্যাল মিডিয়ার বিরাটভাজন হয়েছিলেন প্রখ্যাত বাঙালি গায়ক রূপঙ্কর বাগচী (Rupankar Bagchi)। শিল্পী হয়ে আর একজন শিল্পীকে ‘অসম্মান’ করার জেরে সোশ্যাল মিডিয়া রীতিমত তাকে একঘরে করে দেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগে যায়। ক্ষমা চেয়ে বা সাফাই দিয়েও সেই আক্রোশ কমাতে পারেননি রূপঙ্কর। বরং তা উত্তরোত্তর বেড়েছে।

প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়া থেকে উড়ে এসেছে খুনের হুমকি, এমনকি তার পরিবারের মহিলারাও নিরাপত্তা হারিয়েছিলেন রূপঙ্করের মন্তব্যের জন্য। বলিউড গায়কদের নিয়ে মাতামাতিতে কার্যত অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন তিনি। বাংলার শ্রোতারা বলিউডের শিল্পীদের নিয়ে যতটা আগ্রহ দেখান, বাংলার কোনও গায়ককে নিয়ে তাদের ততটা উন্মাদনা দেখা যায় না। এই নিয়েই নিজের অভিমান জাহির করেছিলেন তিনি।

বলিউড গায়ক কেকে কলকাতায় আসার পর তাকে নিয়ে কলকাতাবাসীর মধ্যে যে উন্মাদনা দেখা দিয়েছিল তা দেখে আর নিজেকে সামলাতে পারেননি রূপঙ্কর। সেই রূপঙ্করই এবার নিজে ফিরিয়ে দিলেন বলিউডের প্রস্তাব। বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, সালমান খানের বিগ বস থেকে নাকি তার জন্য প্রস্তাব এসেছিল। তবে তিনি সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন।

আসলে এবারের পুজোটা রূপঙ্কর তার পরিবারের জন্য উৎসর্গ করেছেন। প্রতিবার বিভিন্ন কাজের চাপে বাড়িতে আর থাকা হয়ে ওঠে না তার। এবারের দুর্গা পূজায় তিনি তার পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চান। তাই তিনি এই বছর আর পুজোর সময়টায় বাইরে যেতে চান না। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে তিনি দুর্গাপূজায় পরিবারকে সময় দিতে না পারার আক্ষেপ প্রকাশ করেন।

Rupankar Bagchi`s Daughter Mohul Pens a Heartfelt Note on Father`s Day

রূপঙ্কর অবশ্য বলেছেন, “কলকাতার থিম পুজো আমার ভাল লাগে না। আমার কাছে আটপৌরে পূজোর আনন্দ অনেক বেশি। আগে যেমন হত। ওই পুজোর হয়ত গ্ল্যামার ছিল না, কিন্তু একটা প্রাণ, আন্তরিকতা ছিল। এটা খুব মিস করি।” এই বছরের পুজোটা অন্তত তিনি বাড়িতে থেকেই কাটাতে চাইছেন।

দুর্গাপুজো নিয়ে রূপঙ্করের ছেলেবেলার বেশ কিছু দুর্মূল্য স্মৃতি রয়েছে। পুজোর সময় বাগবাজার, হেদুয়া, কলেজ স্কোয়ার থেকে লেডিস ফার্স্ট অব্দি ঘোরাঘুরি করতেন বন্ধুদের সঙ্গে। পুজোতেই প্রথম রোল খেয়েছিলেন, এত বছর বাদেও সেই কথাটা মনে রেখেছেন তিনি। মনে আছে তিনি এবং তার বন্ধুরা তাদের পাড়ার একটিই মেয়ের প্রেমে পড়েছিলেন। ছোটবেলার বন্ধুত্ব, প্রেম, পুজো নিয়ে স্মৃতি রোমন্থন করে শুনিয়েছেন রূপঙ্কর।