“বেঁটে বর, রুশার পাশে ভাই মনে হচ্ছে!” বিয়ের ছবি শেয়ার করতেই কুৎসিৎ ট্রোলের শিকার ‘উষসী’

বরকে ভাই মনে হচ্ছে! ‘তোমায় আমায় মিলে’র উষসীর বিয়ের ছবি দেখে তুমুল ট্রোল সোশ্যাল মিডিয়ায়

Roosha Chatterjee And Her Newly Wed Husband Brutally Trolled In Social Media

সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন বাংলা সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রুশা চ্যাটার্জী (Roosha Chatterjee)। বিয়ের পর চিরতরে অভিনয় জগত ছেড়ে রুশা পাড়ি দেবেন আমেরিকাতে। সেখানেই তিনি গড়ে তুলবেন তার স্বপ্নের সংসার। সঙ্গী হবেন তার স্বামী অনুরণ রায়চৌধুরী। সোশ্যাল মিডিয়াতে রুশা-অনুরণের বিয়ের ছবি ভাইরাল হতেই মন্তব্যের পাহাড় জমা হচ্ছে কমেন্ট বক্সে।

বাংলা সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন। এই সুখবর মিলতেই সোশ্যাল মিডিয়াতে উপচে পড়ছে শুভেচ্ছা বার্তা। তবে সেই সঙ্গে তুমুল কটাক্ষের শিকার হতে হচ্ছে অভিনেত্রী এবং তার নববিবাহিত স্বামীকে। রুশার স্বামীকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে কুৎসিত ট্রোলিং চলছে। তাদের দুজনকে পাশাপাশি দেখে সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ বলছেন দুজনকে নাকি একদমই মানায়নি।

কেউ কেউ লিখছেন, “রুশার বরকে বড্ড বেঁটে লাগছে।” কেউ আবার লিখছেন, “রুশার বরকে ভাই বলে মনে হচ্ছে!” যদিও এমন সব মন্তব্যের পাল্টা কোনও জবাব দেননি অভিনেত্রী। রুশা বিয়ের পর কোনও ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে এখনও পর্যন্ত শেয়ারও করেননি। ফটোগ্রাফাররা একে একে তার বিয়ের বিভিন্ন মুহূর্তগুলি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করে নিচ্ছেন। সেখানে ধরা পড়ছে একের পর এক এমন ধরনের মন্তব্য।

রুশার স্বামী অনুরণ পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। তিনি আমেরিকার সিয়াটেলে কর্মসূত্রে বসবাস করেন। বিয়ের পর তাই অভিনেত্রীকেও সেখানে চলে যেতে হবে। মাত্র ৮ মাসের পরিচয়ে অনুরণকেই জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন রুশা। এর আগে অবশ্য বাংলা সিরিয়ালের এক জনপ্রিয় অভিনেতার সঙ্গে তার প্রেমের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল।

রুশা সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন বাবা-মায়ের পছন্দতেই তিনি অনুরণকে তার জীবন সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়াতে নীতি পুলিশরা অনুরণের বাহ্যিক চেহারা নিয়ে অনবরত কাটাছেঁড়া করেই চলেছেন। টলিউডের নতুন এই জুটিকে নাকি একেবারেই মানায়নি, এমনটাই বক্তব্য তাদের। তবে রুশা কিন্তু রূপের বিচার করেননি। তিনি তার জীবনসঙ্গীর মধ্যে গুণটাই দেখেছেন।

গত ১৯শে জানুয়ারি ইকোপার্কের সামনে একটি ব্যাঙ্কোয়েটে রুশা-অনুরণের বিবাহ আসর বসেছিল। বাঙালি কনের সাজে সেদিন রুশার দেখা মিলেছে। তবে রুশা বেনারসীর বদলে বিয়ের দিন লাল কাঞ্জিভরম শাড়ি পরেছিলেন। গা ভর্তি সোনার গয়না, শোলার মুকুট, আলতা রাঙানো দুহাতে ছিল শাখা-পলা। অনুরণ সরু নকশা কাটা পাঞ্জাবি এবং সরু সোনালী পাড়ের ধুতি পরে বিয়ের আসরে উপস্থিত হয়েছিলেন।