বাঁকুড়া নয়, এই জায়গায় হবে Pushpa 2-এর শ্যুটিং, জল্পনা তুঙ্গে

কোথায় হবে পুষ্পা টুয়ের শ্যুটিং, রইল লেটেস্ট আপডেট

এই বছর নয়, আগামী বছর আসতে চলেছে দক্ষিণের সুপারহিট ‘পুষ্পা দ্য রাইস’ (Pushpa The Rise) ছবির সিকুয়্যেল ‘পুষ্পা দ্য রুল’ (Pushpa The Rule)। ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে মুক্তি পাওয়ার পর করোনার মধ্যেই বিশ্বব্যাপী ৩০০ কোটি টাকারও বেশি উপার্জন করে ফেলেছিল ছবিটি। ছবির প্রথম পর্যায়ের আশাতীত সাফল্যের পর এখন সকলেই উন্মুখ হয়ে রয়েছেন পরবর্তী পর্যায়ের জন্য।

কবে থেকে শুরু হবে পুষ্পার সিকুয়্যেল ‘পুষ্পা দ্য রুল’ এর শুটিং? আপাতত এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন সকলে। অবশেষে এসব নিয়ে মুখ খুললেন অল্লু অর্জুন। কিছুদিন আগে ইনস্টাগ্রামে আসন্ন ছবিতে অল্লু অর্জুনের প্রথম লুক শেয়ার করা হয়েছিল। আসলে পুষ্পা রিলিজ হওয়ার পর গত এক বছর ধরেই অধীর আগ্রহে আবার পুষ্পরাজকে বড় পর্দায় দেখার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তাদের প্রত্যাশা এবার পূরণ হবে।

Here is How Much Allu Arjun, Rashmika Mandanna are 'getting' for ‘Pushpa 2’

ইন্ডাস্ট্রিতে গুঞ্জন, পুষ্পার ধামাকাদার অ্যাকশন শুটিং এই দেশে হবে না। তার জন্য গোটা টিম উড়ে যাচ্ছে ব্যাংককে। আগামী ১৩ ই নভেম্বর ছবির প্রথম পর্বের শুটিংয়ের জন্য অল্লু অর্জুন ব্যাংকক যাচ্ছেন বলেই জানা গিয়েছে। যদিও কিছুদিন আগেই কানাঘুষোতে শোনা যাচ্ছিল ছবির একটি অংশের শুটিং নাকি বাংলাতেও হবে।

শোনা গিয়েছিল বাঁকুড়ার দক্ষিণে খাতরা এলাকাতে অল্লু অর্জুন, রশ্মিকা মান্দানারা আসবেন ছবির শুটিংয়ের জন্য। ছবিতে একটি বনাঞ্চলের মধ্যে কিছু দৃশ্য রয়েছে। সেই দৃশ্যেরই শুটিং হবে বাঁকুড়ার বন-জঙ্গল ঘেরা ওই এলাকাতে। তার জন্যই নাকি দক্ষিণের এই সুপারহিট জুটিকে বাংলাতে আসতে হবে বলে জানা গিয়েছিল।

এই খবর শুনেই দারুণ খুশি হয়ে গিয়েছিলেন পুষ্পার বাঙালি ভক্তরা। বিশেষত বাঁকুড়াবাসীদের মধ্যে তো রীতিমত উৎসবের মত আনন্দের বন্যা বয়ে গিয়েছিল। কিন্তু আপাতত আশাহত হতে হল তাদের। কারণ এখন শোনা যাচ্ছে বাঁকুড়ার বদলে শুটিংয়ের ডেস্টিনেশন হিসেবে ব্যাংকককেই বেছে নেওয়া হয়েছে। সেখানেই হবে ছবির সব দৃশ্যের শুটিং।

যদিও এখন অবশ্য শোনা যাচ্ছে শুটিং ডেস্টিনেশন ফাঁস হয়ে যাওয়ার কারণেই নাকি নির্মাতারা সিদ্ধান্ত বদলাতে বাধ্য হয়েছেন। তারা চেয়েছিলেন বাংলাতে শুটিং করতে, কিন্তু পুষ্পার শুটিং বাঁকুড়াতে হবে শুনে সোশ্যাল মিডিয়াতে যেভাবে শোরগোল পড়ে যায় তাতে রীতিমত রেগে গিয়েছিলেন তারা। তাই আচমকা সিদ্ধান্ত বদলানো হয়েছে।