নীতা আম্বানিকে শাড়ি পরিয়ে দেওয়ার লোকের যা বেতন! জানলে লজ্জায় মুখ লুকায় কর্পোরেটরা

নীতা আম্বানিকে শুধু শাড়ি পরিয়ে এই মহিলা যে বেতন পায় জানলে কর্পোরেটরাও লজ্জা পায়

ভারত তথা বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি হলেন মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)। দিন-প্রতিদিন তার সম্পত্তির পরিমাণ বাড়ছে। ভারতের বাইরে বিদেশেও সম্পত্তি বাড়াচ্ছেন আম্বানি। তার এবং তার পরিবারের সকলের জীবনযাত্রার মান কোনও রাজারাজড়াদের থেকে কিছু কম নয়। মুকেশ আম্বানির বাড়িতে ৬০০ কর্মচারী এবং তাদের লক্ষাধিক টাকার বেতনের খবর জেনে এতদিন চমকে উঠেছেন সকলে।

ভারতবর্ষে যে বাড়িতে মুকেশ আম্বানি তার পরিবার নিয়ে থাকেন সেখানে নাকি ৬০০ জন কর্মচারী কাজ করেন। মোটা টাকার বেতনের পাশাপাশি দারুণ সব সুযোগ সুবিধা রয়েছে তাদের জন্য। মুকেশ আম্বানির স্ত্রী নীতা আম্বানি (Nita Ambani) যে কত রাজকীয় জীবনযাপন করেন তা জানলে চমকে যেতে হয়। এবার জানা গেল নীতা নাকি শুধু তাকে শাড়ি পরিয়ে দেওয়ার লোকের পেছনেও লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করেন!

আম্বানি পরিবারের শখের দাম লাখের গন্ডি পেরিয়ে কোটি ছাড়িয়েছে! নীতা আম্বানি নাকি এক মহিলাকে তাকে শাড়ি পরিয়ে দেওয়ার জন্যই শুধু লক্ষাধিক টাকা খরচ করেন! জানেন কে সেই সৌভাগ্যবতী? তিনি আর কেউ নন প্রখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার ডলি জৈন। নীতার শাড়ির ডিজাইন করে দিয়ে নয়, তাকে অভিনব কায়দায় শাড়ি পরিয়ে লক্ষাধিক টাকা উপার্জন করেন তিনি।

নীতা আসলে শাড়ি পরতে খুবই পছন্দ করেন। যে কোনও অনুষ্ঠানে সবসময় তাকে শাড়িতেই দেখা যায়। শাড়ি পরলে তার চেহারার গ্ল্যামার যেন আরও বেড়ে যায়। শুধু শাড়ি পরানোর জন্যই তিনি ডলিকে নিযুক্ত করেছেন। তার জন্য নাকি লক্ষ লক্ষ টাকা বেতনও দিয়ে থাকেন তাকে। নিজেদের বাড়ির অনুষ্ঠান হোক বা বাইরের কোনও পার্টিতে শাড়ি পরতে হলেই ডলিকে ডেকে নেন নীতা।

ডলি লিমকা বুক অফ রেকর্ডসে নিজের নাম তুলেছেন। তিনি একটি শাড়িকেই ৩৫০ রকমভাবে পরতে পারেন। মাত্র ১৯ সেকেন্ডে শাড়ি পরে তিনি রেকর্ড গড়েছেন। একা নীতা নন, ডলির গ্রাহকদের তালিকাতে অনেক বড় বড় বলিউড অভিনেত্রীরাও রয়েছেন। শাড়ি ডিজাইনার নামে পরিচিত ডলি। মহিলাদের শাড়ি পরানোটাই হল তার পেশা। বলিউডের সেলিব্রিটিদের শাড়ি পরিয়ে অনেক নাম উপার্জন করেছেন তিনি।

ডলির বাড়ি আসলে কর্নাটকে। শাড়ি ডিজাইনার হিসেবে এখন মুম্বাইতেই তার যত কাজ রয়েছে। তার শাড়ি পড়ানোর ধরণ নীতা আম্বানিসহ বলিউডের অন্যান্য তারকারাও বেশ পছন্দ করেন। যে অভিনব কায়দা ডেকে নিয়ে শাড়ি পরিয়ে দেন তাতে তাকে লক্ষ টাকার উপর পারিশ্রমিক দিতে মোটেও দ্বিধা করেন না সেলিব্রেটিরা। দীপিকা পাড়ুকোন, আলিয়া ভাট, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া থেকে শুরু করে দক্ষিণী অভিনেত্রী নয়নতারারাও তার কাজ খুবই পছন্দ করেন।