মিস ইন্ডিয়া থেকে এখন সন্ন্যাসী! ভিক্ষা করে দিন কাটছে এই বলিউড নায়িকার

এককালের মিস ইন্ডিয়া আজ সন্ন্যাসী! ভিক্ষা করে দিন কাটছে এই বলিউড নায়িকার

Riya Chatterjee

Published on:

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নায়িকা হিসেবে সুযোগ পাওয়া মুখের কথা নয়। আবার গ্ল্যামার দুনিয়াতে একবার কেউ প্রবেশ করলে সহজে তিনি তা ছাড়তেও পারেন না। ব্যতিক্রম বরখা মদন। বলিউডের এই অভিনেত্রী এক সময় মিস ইন্ডিয়া হয়েছিলেন। তারপর তার জন্য খুলে যায় বলিউডের রাস্তা। কিন্তু কী এমন হল যে বরখা সবকিছু ছেড়ে সন্ন্যাসীর জীবন বেছে নিলেন?

বরখা মদনের জন্ম হয়েছিল ১৯৭৪ সালে। তিনি পাঞ্জাবে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতায় সুস্মিতা সেন এবং ঐশ্বর্য রাইকে কড়া টক্কর দিয়েছিলেন। তিনি ফার্স্ট রানার আপ হয়েছিলেন। মিস ট্যুরিজম ইন্ডিয়ার খেতাব জয় করেছিলেন। মালয়েশিয়ার মিস ট্যুরিজম ইন্টারন্যাশনালের তৃতীয় রানার্স আপ হয়েছিলেন বরখা।

Barkha Madan

১৯৯৬ সালে অক্ষয় কুমারের ‘খিলাড়িয়োঁ কা খিলাড়ি’ ছবি দিয়ে তার বলিউডে অভিষেক হয়। ওই একই বছরে তিনি ‘ড্রাইভিং মিস পালমেন’ নামের একটি ইন্ডো-ডাচ ছবিতে অভিনয় করেন। তার অভিনয় অনেকেরই পছন্দ হয়। কিন্তু এরপরে ৬ বছর আর তিনি কাজের তেমন সুযোগ পাননি। পরিচালক রাম গোপাল বর্মার ‘ভূত’ ছবি দিয়ে তিনি আবার বলিউডে কামব্যাক করেন।

বরখা এরপর বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসা পেয়েছিলেন। তিনি নিজেও কিছু ছবির প্রযোজনা করেছেন। যেমন ‘সোচ লো’, ‘সুরখাব’ ইত্যাদি। এছাড়া বরখা বেশ কিছু ধারাবাহিকেও অভিনয় করেন। যেমন ‘সাত ফেরে সালোনি কা সফর’, ‘১৮৫৭ ক্রান্তি’, ‘ঘর এক সপ্না’, ‘ন্যায়’ ইত্যাদি। তবে কোনও কিছুই তাকে তার জীবনে প্রকৃত শান্তি দিতে পারছিল না।

Barkha Madan

কাজের ফাঁকেই শান্তির খোঁজে বৌদ্ধ মঠে যাতায়াত করতে শুরু করেন বরখা। বৌদ্ধদের ধর্মমত, তাদের মঠের পরিবেশ তাকে আকৃষ্ট করতে শুরু করে। ২০১২ সালে বরখা হঠাৎ অভিনয় ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। শুধু অভিনয় নয়, তিনি তার বিলাসবহুল জীবনযাপন ছেড়ে সাধারণ এক বৌদ্ধ সন্ন্যাসীর জীবন বেছে নেন। যেই ভাবা সেই কাজ।

আরও পড়ুন : কোথায় হারিয়ে গেলেন বলিউড নায়িকা রম্ভা? এখন কী করছেন তিনি?

Barkha Madan

আরও পড়ুন : অহংকার সর্বনাশের মূল! কোথায় হারিয়ে গেলেন ‘রোজা’ সিনেমার নায়িকা?

বরখা এরপর পাকাপাকিভাবে বৌদ্ধ ধর্ম নেন। কর্নাটকের একটি বৌদ্ধমঠে গিয়ে দীক্ষা নেন। তার নতুন নাম হয় গ্যালটেন সামটেন। তার বাবা-মাও মেয়ের এই সিদ্ধান্তে আপত্তি করেননি। বরখা বর্তমানে তিব্বতের সেরা জে মঠে বসবাস করছেন। চুল কাটিয়ে সম্পূর্ণ ন্যাড়া হয়ে বৌদ্ধদের পোশাক পরে এক সাধারণ বৌদ্ধ ভিক্ষুকের জীবন অতিবাহিত করেন তিনি। মাঝেমধ্যেই তিনি সেখানকার জীবনযাপনের ছবি এবং ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করেন।