বস্তাপচা সিরিয়ালে পরকীয়া, ভুলভাল সংলাপ লিখে ট্রোল্ড! নিন্দুকদের অপমানের জবাব দিলেন লীনা গাঙ্গুলী

হাতি মানুষ খাচ্ছে! ভুলভাল সংলাপ লেখা নিয়ে ট্রোলিং, সাফাইয়ে মুখ খুললেন লীনা গাঙ্গুলী

একদিকে ধুলোকণা অন্যদিকে গুড্ডি (Guddi), প্রখ্যাত চিত্রনাট্যকার লীনা গাঙ্গুলীর (Leena Ganguly) দু-দুটি ধারাবাহিক নিয়েই এখন সোশ্যাল মিডিয়াতে দারুণ জল্পনা চলছে। তবে এতদিন শুধু লীনা গাঙ্গুলীর লেখার মধ্যে পরকীয়ার গন্ধ পেয়ে তাকে নিয়ে ট্রোল করেছিলেন দর্শকরা। তবে এবার ভুলভাল সংলাপ লেখার কারণেও সমালোচনার মুখে পড়তে হল তাকে।

কিছুদিন আগেই গুড্ডি সিরিয়ালের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে নজর কাড়ে। সেখানে নায়ককে বলতে শোনা যায় নায়িকাকে জঙ্গলে একা পেয়ে নাকি হাতি খেয়ে ফেলবে! নায়ক অনুজের মুখের সেই সংলাপ বিখ্যাত হয়ে যায় যখন সে গুড্ডিকে বলে, ‘তা যদি আজকে সত্যিই হাতির পেটে যেতে তাহলে কি হত?’ উত্তরে নায়িকা বলে, ‘কি আবার হত? ওরাও পেট ভরে কিছু খেতে পেত। ওরা তো কিছু খাবার জন্যই জঙ্গলের বাইরে আসে।’

এই ভিডিওতে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার হতেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। নেটিজেনরা অবাক হয়ে নানা মন্তব্য করতে থাকেন লেখিকাকে নিয়ে। সঙ্গে এই ভিডিও নিয়ে নানা মিম বানানো হচ্ছিল বেশ কিছুদিন ধরে। একটা তৃণভোজী প্রাণী মানুষ খাচ্ছে! বাংলা সিরিয়ালের গল্পে এমন সংলাপ শুনেই নানা মন্তব্য করতে থাকেন দর্শকরা। এই বিষয় নিয়ে মুখ খুললেন লেখিকা লীনা গাঙ্গুলী।

লীনা গাঙ্গুলীর লেখা সংলাপ সম্পর্কে সোশ্যাল মিডিয়াতে যে ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছিল তার কমেন্ট সেকশনে অনেক মজার মজার মন্তব্য উঠে এসেছে। কেউ লিখেছেন, “তাহলে জানা গেল হাতিও আজকাল মানুষ খায়। যাই হোক এই সিরিয়াল না থাকলে আমরা জানতামই না। ভাগ্যিস সিরিয়ালটা এসেছিল আমাদের এই পৃথিবীতে, নাহলে আমরা আজও জানতেই পারতাম না। শতকোটি প্রণাম যিনি এই সিরিয়ালটা বানিয়েছেন।”

কেউ লিখছেন, “হাতিও আজকাল মানুষ খাচ্ছে! কত কিছু আর শিখব।” কেউ কেউ আবার অনুজের আইপিএস হওয়ার যোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন। এই বুদ্ধি নিয়ে সে নাকি ইউপিএসসির মত কঠিন পরীক্ষাতে পাস করে আইপিএস অফিসার হয়ে বসেছে! এসব বিষয় নিয়ে এবার মুখ খুলতে শোনা গেল লীনা গাঙ্গুলীকে। সম্প্রতি এই সময় ডিজিটালের কাছে তিনি তার বয়ান দিলেন।

এই বিষয়ে লীনা গাঙ্গুলীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি তার বক্তব্যে বলেন, “কোনও ডায়লগের মাঝখান থেকে তুলে সেটা নিয়ে মিম তৈরি করলে কী আর বলব? গোটা দৃশ্য না দেখেই ট্রোল করা হচ্ছে।” এভাবেই কার্যত ট্রোলারদের একহাত নিয়েছেন লেখিকা। যদিও অবশ্য এই প্রথম নয়, এর আগেও বহুবার বহুভাবে সিরিয়ালের গল্পে কখনও পরকীয়া, কখনও একই মানুষের বারবার বিয়ে দেখিয়েও ট্রোল্ড হয়েছেন তিনি।