কুটকাচালি নেই, টিআরপিও নেই! দর্শকের অভাবে ধুঁকছে এই ৪টি বাংলা সিরিয়াল

কুটকাচালি ছাড়া সিরিয়াল দেখতে চাইছেন না দর্শকরা! টিআরপির অভাবে ধুঁকছে এই ৪ ধারাবাহিক

Here is Why These 4 Bengali Serials are Not Getting Listed on TRP List

বাংলা সিরিয়াল (Bengali Mega Serial) দেখার যোগ্য না! ধারাবাহিকে শুধুই দেখানো হয় কুটকাচালি আর পরকীয়া! এর থেকে সমাজে কী বার্তা পৌঁছাচ্ছে? ইদানিং বাংলা ধারাবাহিকের কনটেন্ট দেখে এমনই সব প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন দর্শকরা। কিন্তু যে কুটকাচালি আর পরকীয়ার বিপক্ষে এত প্রতিবাদ চলছে সেগুলিই তো ধারাবাহিক হিট হওয়ার নেপথ্যে আসল ইউএসপি! তাই এগুলো ছাড়া টিআরপি জুটবে কি?

স্টার জলসা (Star Jalsha) এবং জি বাংলাতে (Zee Bangla) বিগত কয়েক সপ্তাহে একাধিক নতুন স্বাদের ধারাবাহিক আনা হয়েছে। জি বাংলাতে জায়গা করে নিয়েছে ‘লালকুঠি’ (Laalkuthi) আর ‘খেলনা বাড়ি’ (Khelna Bari)। অন্যদিকে স্টার জলসাতে রয়েছে ‘গোধূলি আলাপ’ (Godhuli Alap), ‘বৌমা একঘর’ (Bouma Ekghor) । কুটকাচালি-পরকীয়া বাদে বাংলা টেলিভিশনে যে টিআরপি ওঠে না তা কার্যত স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে এই নতুন ধারাবাহিকের টিআরপি রেটিং দেখে।

প্রত্যেকটি নতুন ধারাবাহিকের কন্টেন্টের রয়েছে অভিনবত্ব। যা দর্শকদের আকর্ষণ করতে পারত। বিশেষত ‘গোধূলি আলাপ’ এ যেভাবে অসমবয়সী মিষ্টি দাম্পত্যের গল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে, একদিকে আইনজীবী অন্যদিকে বহুরূপীর দুটি বিভিন্ন আর্থসামাজিক পেশার মিশেলে জীবনের একটি দুর্দান্ত গল্প শোনানো হচ্ছে তাতে ধারাবাহিকের মান নিয়ে কোনও প্রশ্ন ওঠে না। তার উপর আবার রয়েছেন কৌশিক সেন, সোহাগ সেনের মত নামি অভিনেতারা। তা সত্ত্বেও এ পর্যন্ত টিআরপিতে সেরা দশের মধ্যে জায়গা পায়নি ধারাবাহিকটি।

অন্যদিকে ‘বৌমা একঘর’ এর কাহিনীতে এমন দুটি ছেলে-মেয়ের গল্প তুলে ধরা হয়েছে যারা জীবনে কিছু করতে পারেনি। কিন্তু কিছু করে দেখানোর ইচ্ছে তাদের মধ্যে প্রবল। এ কমেডি-ড্রামা নির্ভর ধারাবাহিকটিও প্রত্যেকবার টিআরপি তালিকা থেকে ছিটকে যাচ্ছে। জি বাংলার ‘লালকুঠি’ কোনও বার সেরা দশে জায়গা পায়, কোনও বার পায় না। অথচ রাহুল-রুকমার জুটিতে রহস্য-রোমাঞ্চ নির্ভর এই ধারাবাহিকে অভিনবত্বের অভাব নেই। কিন্তু এই নতুন ধারাবাহিকগুলো দর্শকদের পছন্দের তালিকায় টিকতে পারছে কই?

বাংলা ধারাবাহিকের কনটেন্ট দেখে রুচি, মান নিয়ে প্রায় সময়ই প্রশ্ন তোলেন দর্শকরা। অথচ দর্শকদের নজরে তথাকথিত রুচিহীন, মানহীন কুটকাচালি সেই ধারাবাহিকগুলিই টিআরপিতে ছক্কা হাঁকাচ্ছে। ছকের বাইরে যাওয়ার চেষ্টা করলেই পিছিয়ে পড়ছে নতুন ধারাবাহিকগুলো। তাই চিরাচরিত ছকের বাইরে বেরিয়ে খামোখা নিজের লোকসান কেন করতে যাবে প্রযোজনা সংস্থা এবং চ্যানেল কর্তৃপক্ষ? তাই যতদিন না দর্শকদের নিজেদের রুচির পরিবর্তন হচ্ছে, ভাল কনটেন্টের ধারাবাহিক আশা করাও বৃথা, এমনটাই দাবি বাংলা টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির একাংশের।