২০ বছর পর আসছে ‘গদর ২’, বয়কটের মাঝেও সানির পাশে গোটা দেশ

Riya Chatterjee

Updated on:

অবশেষে ২০ বছরের অপেক্ষা আর হল অবসান। সেপ্টেম্বর মাসে মুক্তি পেতে চলেছে ২০ বছর আগের সুপার-ডুপার হিট বলিউড ছবি ‘গদর’ এর সিক্যুয়েল ‘গদর ২’ (Gadar 2)। সানি দেওল (Sunny Deol), আমিশা প্যাটেল, ওমরেশ পুরী অভিনীত এই ছবি দারুণ পছন্দ করেছিলেন দর্শকরা। ভারত-পাকিস্তান বিভাজনের প্রেক্ষাপটে লেখা এই গল্পের মধ্যে ছিল রামায়ণের নির্যাস।

শ্রীরাম যেমন দেবী সীতাকে উদ্ধার করতে লঙ্কা পাড়ি দিয়েছিলেন, ঠিক একইভাবে সানি দেওলও এই ছবিতে তার স্ত্রী আমিশাকে উদ্ধার করতে পা রেখেছিলেন শত্রু পুরীতে। ছবির সাফল্যের পেছনে পরিচালক অনিল শর্মার অনেক বড় ভূমিকা রয়েছে তা বলাই বাহুল্য। এই ছবির সিক্যুয়েল এনে দর্শকদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ করলেন তিনি।

তবে ‘গদর ২’ ছবির ট্রেলার মুক্তির পরই সুপ্রিম কোর্টে ছবি বন্ধের জন্য মামলা হয়েছে। জনৈক আইনজীবী আদিল আহমেদ সুপ্রিম কোর্টে এই বলে মামলা করেছেন যে এই সিনেমায় নাকি মুসলিম সম্প্রদায়ের ভাবাবেগে আঘাত করা হয়েছে। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ছবি ব্যান করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন তারা। এই খবর আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়া।

নেটিজেনদের দাবি, ‘গদর ২’ ছবিটি দেশ ভক্তদের জন্য বানানো। যারা প্রকৃত দেশপ্রেমিক তারা এই ছবির কখনও বিরোধ করবেন না। একদিকে যেখানে একের পর এক বলিউড ছবি ব্যান করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়াতে উঠছে বয়কটের ট্রেন্ড, অন্যদিকে তখন এই নেটিজেনরাই গদর ২ সফল করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রেন্ড গড়ছেন।

সোশ্যাল মিডিয়াতে সানি দেওলকে সমর্থন করে নেটিজেনরা লিখছেন, “আমার প্রিয় নায়ক/হিরো সানি দেওল। তাছাড়া সানি দেওল একজন দেশপ্রেমী। তাই আমার পূর্ণ সমর্থন।” নেটিজেনরা আশ্বস্ত করছেন তারা নিজেরা তো যাবেনই, সঙ্গে আত্মীয় বন্ধু-বান্ধব সকলকে নিয়ে যাবেন ছবিটি দেখতে। সমর্থন করছেন ইসলাম ধর্মাবলম্বী দেশভক্তরাও। যারা সত্যিই দেশভক্ত, তাদের ধর্মীয় বিভাজন ভুলে ছবিটি দেখা উচিত বলে মত প্রকাশ করছেন তারাও।

পরিচালক অনিল শর্মা মনে করেন আজ ২০ বছর পরেও ‘গদর’ ছবির প্রেক্ষাপট এখনও প্রাসঙ্গিক। তিনি শুধু এতদিন উপযুক্ত গল্পের সন্ধানে ছিলেন। ‘গদর ২’ ছবির গল্প এমন হবে, যার সঙ্গে বাস্তব এবং ড্রামার মিশেল থাকবে। এমনই গল্পের সন্ধানে ছিলেন পরিচালক। আগামী ৪ই সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে ছবিটি। সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রেন্ড করছে হ্যাস ট্যাগ সাপোর্ট গদর ২।