এতদিনে হল স্বপ্ন পূরণ, পুরনো বাড়ি ছেড়ে নতুন বাড়ি কিনলেন সৌরভ, রইল ছবি গ্যালারি

পুরনো বাড়ি ছেড়ে নতুন বাড়ি নিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি, দাম জানলে চোখ কপালে উঠবে আপনার

First Look Of Sourav Ganguly’s New Mansion In Kolkata

সৌরভ গাঙ্গুলির (Sourav Ganguly) বাড়ির ঠিকানা বলতে গেলে এই বাংলার সকলের মুখে মুখে ফেরে। বেহালার বীরেন রায় রোডের উপর ‘মা মঙ্গলচন্ডী ভবন’ই যে দাদার বাড়ি তা শহরের বাচ্চারাও জানে। তবে এবার সৌরভ গাঙ্গুলির বাড়ির ঠিকানা বদলাতে চলেছে। বেহালার ওই পুরাতন বাড়ি ছাড়াও এবার থেকে দাদাকে লোয়ার লাওডন স্ট্রিটে নিজাম প্যালেসের কাছেই একটি বহুতল অথবা বাংলো বাড়িতেও পাওয়া যাবে।

সম্প্রতি শহরের মাঝখানটিতে ওই এলাকাতেই একটি দ্বিতল বাড়ি কিনে ফেলেছেন সৌরভ। প্রায় ২৩.৬ কাঠা জমির উপর রয়েছে সম্পূর্ণ বাড়িটি। যদিও সৌরভ অবশ্য এই বাড়ি ভেঙে সেখানে নিজের মনের মত করে নতুন বাড়ি বানাতে চান। রিয়েল এস্টেট বিশেষজ্ঞরা অবশ্য তাকে এই জমিতে বিল্ডিং না বানিয়ে বাংলো বানানোরই পরামর্শ দিয়েছেন। সবটাই এখন নির্ভর করবে দাদার সিদ্ধান্তের উপর।

First Look Of Sourav Ganguly’s New Mansion In Kolkata

 

শহরের একেবারে মাঝখানে হল সৌরভের নতুন ঠিকানা। জনবহুল এলাকা হলেও এই বাড়িটি রাস্তায় একেবারে শেষ প্রান্তে অবস্থিত। তাই শহুরে কোলাহল থেকে অনেকটাই মুক্তি পাওয়া যায় এখানে। সৌরভ এবং তার পরিবার শান্তির সঙ্গে ‌থাকতে পারবেন নতুন এই বাড়িতে। আবার শহরের মাঝখানে থাকার সুবিধাও অনেক। সবদিক বিবেচনা করে তাই নতুন জায়গাটা কিনেই ফেললেন সৌরভ গাঙ্গুলি।

নতুন বাড়ি বানালেও বেহালার ওই পুরনো বাড়ি ছেড়ে পরিবার নিয়ে একেবারে অবশ্য চলে আসবেন না সৌরভ। দীর্ঘ ৪৮ বছর তিনি বেহালার বাড়িতে থেকেছেন। আপাতত সপ্তাহে তিনদিন বেহালার বাড়িতে এবং বাকি দিনগুলোতে নতুন বাড়িতে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি একটি ইংরেজি সংবাদমাধ্যমের কাছে নতুন বাড়ি কেনার অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেছেন সৌরভ।

বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, “নিজের বাড়ি কিনতে পারাটা দারুণ অনুভূতি। এটাই চেয়েছিলাম। তাছাড়া শহরের মাঝখানে থাকাটার অনেক সুবিধাও রয়েছে। তবে দীর্ঘ ৪৮ বছর যেখানে থেকেছি, সেই ঠিকানা ছেড়ে আসাটা ভীষণ কঠিন।” নামি ব্যবসায়ী অনুপমা বাগচী, কেশব দাস বিনানি এবং নিকুঞ্জের থেকে ৪০ কোটি টাকার বিনিময়ে জায়গাটা কিনেছেন সৌরভ। সৌরভ, তার স্ত্রী ডোনা, মেয়ে সানা এবং মা নিরূপা গাঙ্গুলির নামে থাকবে সম্পত্তির মালিকানা। নতুন বাড়ি বানানো হয়ে গেলেই সপরিবারে এখানে থাকতে শুরু করবেন সৌরভ।