একসময় স্ত্রী-র টাকায় চলতো সংসার, বিয়ে করে ভাগ্য বদলে গেছে এই ৪ বলিউড তারকার

একসময় হাতে ছিলনা টাকা, স্ত্রী-র টাকাতেই সংসার চলতো এই বলিউড তারকাদের

Bollywood Wives who Once Earned More than Husbands

বলিউড (Bollywood) তারকারা অনেক কঠিন পরীক্ষা দিয়ে তবেই বলিউডে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন। আজ তাদের সফলতা দেখলে তাক লেগে যায়। তবে একটু পেছনে ফিরে তাকালে তাদের সংগ্রামের কাহিনীটা জানলে চোখে জল চলে আসবে। বলিউডে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার লড়াইটা যতটা কঠিন, ঠিক ততটাই কঠিন হয়ে পড়ে এখানে টিকে থাকার লড়াইটা।

বলিউডের ভাগ্য পরীক্ষা করতে এলে প্রয়োজন মনের জোর আর প্রচুর ধৈর্য। প্রথম কয়েক বছর তো স্ট্রাগলার হিসেবেই কেটে যায়। সে সময় উপার্জনের থেকেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায় কাজের প্রতি লক্ষ্যে অবিচল থাকা। এই সময় বলিউডের এই ৪ জন তারকার পাশে ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তাদের স্ত্রী-য়েরা (Bollywood Stars Wife)।

শাহরুখ খান (Shah Rukh Khan) : শাহরুখ খান সম্প্রতি করণ জোহারের কাছে স্বীকার করেছেন করোনার সময় তার পরিবারে নাকি একমাত্র উপার্জন করতেন গৌরী খান। তবে শুধু এখন বলে নয়, শাহরুখের মত গৌরীও বহু বছর ধরেই রোজগার করছেন। শাহরুখের কেরিয়ারের শুরুতে যখন তার হাতে বিশেষ টাকা ছিল না তখন সংসার চালানোর ভার নিয়েছিলেন গৌরী। তিনি বিভিন্ন জায়গাতে কাজ করে সংসার চালিয়েছেন।

মনিশ পল (Manish Paul) : জনপ্রিয় টেলিভিশন অভিনেতা তথা জনপ্রিয় সঞ্চালক মনিশ পাল এর জীবনটাও কিছুটা এরকমই। এমনও দিন গিয়েছে যখন তার রোজগার ছিল না। সেই সময় তার পাশে ছিলেন তার স্ত্রী। মনিশের স্ত্রী সংযুক্তা সংসারে দায়িত্ব নিয়েছিলেন। টানা এক বছর মনিশের হাতে কাজ ছিল না। সংযুক্তা উপার্জন করে সংসার সামলেছিলেন।

আয়ুষ্মান খুরানা (Ayushman Khurana) : বলিউডে কেরিয়ার শুরু করার মুহূর্তে আয়ুষ্মান খুরানাকেও অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছিল। তখন সাথে খুব একটা কাজ ছিল না তার, রোজগার ছিল খুবই কম। তার স্ত্রী তাহিরা কলেজ শিক্ষিকা ছিলেন। তাহিরার উপার্জনে তাদের সংসার চলেছিল।

পঙ্কজ ত্রিপাঠী (Pankaj Tripathi) : মুম্বাইয়ে কাজ শুরু করে প্রতিষ্ঠা পেতে অনেকটা দিন সময় লেগে গিয়েছিল পঙ্কজ ত্রিপাঠির। তখন কাজের জন্য পরিচালকের দরজায় দরজায় ঘুরতে হত তাকে। সেই সময় তার স্ত্রী মৃদুলা ত্রিপাঠিই সংসারের হাল ধরেছিলেন। মৃদুলার উপার্জনে সংসার চলেছিল বলেই কাজের দিকে মন দিতে পেরেছিলেন পঙ্কজ। মৃদুলার মত জীবনসঙ্গিনী পেয়ে তিনি নিজেকে ধন্য মনে করেন।