লেডি রঞ্জিত মল্লিক! ভিলেনকে শুটিয়ে লাল করলো জি বাংলার নায়িকা, প্রোমো দেখে চমকে যাচ্ছেন দর্শকরা

ভিলেনকে বেল্ট মেরে শুটিয়ে লাল করে দিল মিতুল, প্রোমো দেখে দারুন খুশি দর্শকরা

Audience called Mitul aka Khelna Bari Actress as Lady Ranjit Mallick here is the reason why

টলিউড (Tollywood) অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিক (Ranjit Mallick) এখন আর অভিনয় করেন না ঠিকই কিন্তু আজও দুষ্টু লোকের দমনে তার কথাই সবার আগে মনে পড়ে বাংলার মানুষের। বাংলা ছবিতে রঞ্জিত মল্লিকের হাতে বেল্ট দিয়ে মার খায়নি এমন কোনও ভিলেন নেই। আসলে ছবি দুনিয়াতে ভিলেনকে বেল্ট দিয়ে মারার ট্রেন্ডটা তিনিই গড়ে দিয়েছিলেন। আজ তার যোগ্য উত্তরসূরী হয়ে দেখালো জি বাংলার (Zee Bangla) মিতুল পাল।

জি বাংলার খেলনা বাড়ি (Khelna Bari) ধারাবাহিকের নায়িকা মিতুল ওরফে আরাত্রিকা মাইতিকে (Aratrika Maity) নিয়ে এখন সোশ্যাল মিডিয়ার বেশ সরগরম হয়ে রয়েছে। সম্প্রতি এই ধারাবাহিকের একটি প্রোমো প্রকাশ করা হয়েছে যেটা বেশ চমকেই দিয়েছে দর্শকদের। এই মুহূর্তে ইন্দ্র-মিতুলের প্রেম কাহিনী এগোনোর পাশাপাশি ইন্দ্রর বোন কলির বিয়ে নিয়ে এগোচ্ছে ধারাবাহিকের গল্প।

ইন্দ্রর পিসতুতো বোন কলির বিয়ে ঠিক হয়েছে অনির্বাণের সঙ্গে। তবে প্রথম থেকেই অনির্বাণকে নিয়ে মিতুলের মনে সন্দেহ রয়েছে। সে ঠিক আন্দাজ করতে পারছে এই ছেলেটা মোটেও কলির জন্য সুবিধার নয়। তবে সে তার কথায় কাউকে বিশ্বাস করাতে পারছে না। শেষমেষ প্রমাণ সমেত মিতুলের হাতে ধরা পড়ে গেল অনির্বাণ। এরপরই রুদ্রমূর্তি ধারণ করে মিতুল।

খেলনা বাড়িতে দেখানো হয়েছে কলির সঙ্গে বিয়ের আগেই অনির্বাণ সম্পত্তির ভাগ দাবি করে। এতে মিতুলের সন্দেহ আরও বাড়ে। বাড়ির সকলকে সে তার সন্দেহের কথা বলে কিন্তু কেউ তার কথা বিশ্বাস করে না। তবে ইন্দ্রকে সব কিছু খুলে বলাতে সে তাকে বিশ্বাস করে এবং তাকে সাহায্য করে। এরই মধ্যে ধারাবাহিকের নতুন প্রোমো প্রকাশ করে চমকে দিল জি বাংলা।

প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে বিয়ের মন্ডপে অনির্বাণের মুখোশ সবার সামনে খুলে দিচ্ছে মিতুল। অনির্বাণ কলির সিঁথিতে সিঁদুর পরাতেই যাবে ঠিক সেই মুহূর্তে ইন্দ্র মিতুল এবং অর্ক চলে আসে হুইল চেয়ারে বসে থাকা একটি মেয়েকে নিয়ে। মিতুল বলে, “এই মেয়েটার সর্বনাশ করে এখন কলি দিদির দিকে হাত বাড়িয়েছেন?” অনির্বাণ বলে, “আমি চিনি না এই মেয়েটিকে”। এরপরই রুদ্র মূর্তি ধারণ করে মিতুল।

মিতুল অর্কে বলে, ‘অর্কদা বেল্ট’। তারপরে বেল্ট হাতে তুলে নিয়ে সে রীতিমত হুমকি দিয়ে বলে ওঠে, “সোজা আঙ্গুলে ঘি না উঠলে মিতুল পাল আঙুল বাঁকাতে জানে।” এই দৃশ্য দেখে দর্শকদের মনে পড়ে যাচ্ছে রঞ্জিত মল্লিকের কথা। তার বেল্টের মার খেয়ে অনেক বড় আসামীও সত্যি স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছে। এখন অনির্বাণ মার খাওয়ার আগে সবকিছু স্বীকার করবে নাকি মার খেয়ে মুখ খুলবে তা জানা যাবে আজকের এপিসোডে।