সুর তালের পিন্ডি চটকে গান গাইলেন রচনা ব্যানার্জী, শুনে শ্রোতাদের পালাই পালাই অবস্থা

গানে একেবারে ‘দিদি নাম্বার ০’, নিজের ছবির গান শুনিয়ে তুমুল ট্রোল্ড রচনা

বাংলার দিদি নাম্বার ওয়ান (Didi Number One) বললেই সকলের চোখের সামনে ভেসে ওঠে রচনা ব্যানার্জীর (Rachana Banerjee) মুখ। জি বাংলার এই রিয়ালিটি শো বিগত ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে সঞ্চালনা করে আসছেন রচনা। তার আগে তিনি ছিলেন বাংলা এবং ওড়িয়া ইন্ডাস্ট্রির অভিনেত্রী নাম্বার ওয়ান। এখন অভিনয় ছেড়ে পুরোদস্তুর দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে বাংলার দিদিদের অনুপ্রেরণা যোগানোই তার একমাত্র ধ্যান-জ্ঞান হয়ে উঠেছে।

অভিনেত্রী হিসেবে, সঞ্চালিকা হিসেবে, মেয়ে হিসেবে, মা হিসেবে রচনা নিঃসন্দেহে দশে দশ পাওয়ার দাবী রাখেন। গানের উপরেও তার বেশ দক্ষতা রয়েছে। বিভিন্ন স্টেজ শো এবং দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চেও রচনা ব্যানার্জী গান শুনিয়েছিলেন এর আগে। তার গান শুনেও দশে দশা দিয়েছেন শ্রোতারা। কিন্তু সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে সুর তালের পিন্ডি চটকে রচনা এমন গান গাইলেন যে শুনে ছিঃ ছিঃ করছে নেটিজেনরা!

সোশ্যাল মিডিয়াতে সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে রচনা তার নিজের সিনেমার একটি গান গাইছেন। একটি মাচা শোতে অনুষ্ঠান করতে গিয়ে ভক্তদের অনুরোধে গানটি গেয়েছিলেন অভিনেত্রী। আসলে গান গাইতে পারুন বা না পারুন, এরকম স্টেজ শো-তে অংশ নিলে ভক্তদের কথা রাখতে এক-দু কলি গান গেয়ে শোনাতেই হয় তারকাদের।

এর আগে অনেক সময় দেখা গিয়েছে জোরপূর্বক গান গাইতে গিয়ে সেলিব্রেটিরা গানের সুর-তাল ঘেঁটে ঘ করে দিয়েছেন। তবে রচনা একজন সু-গায়িকা। এর আগে যতবারই তিনি গান গেয়েছেন তার গান শুনে মুগ্ধ হয়েছেন শ্রোতারা। কিন্তু এই দফায় আর শেষ রক্ষা করতে পারেননি নায়িকা। নিজের সিনেমার গান গাইতে গিয়ে কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হল তাকে।

ওড়িয়া এবং বাংলা ইন্ডাস্ট্রির টপ নায়িকা রচনা বলিউডে অমিতাভ বচ্চনের বিপরীতে ‘সূর্যবংশম’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। এই ছবির একটি গান ‘দিল মেরে তু দিওয়ানা হে’ দারুণ হিট হয়। রচনা এরকম মাচা শো-তে অংশ নিলে তাকে সেই গানটি গাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন ভক্তরা। এবারেও ভক্তদের অনুরোধ রেখে গান গাইতে গিয়েই চরম অপমানিত হতে হল তাকে।

ভাইরাল এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের সঙ্গে ঠিক মত তাল মিলিয়ে গাইতে পারছেন না অভিনেত্রী। তার কন্ঠ নিঃসন্দেহে সুন্দর তবে তা বাদ্যযন্ত্রের সঙ্গে মিলছে না। তার গান শুনে সোশ্যাল মিডিয়াতে কেউ লিখছেন, ‘বাকি সবকিছুতে দিদি নাম্বার ওয়ান হলেও, গানের ক্ষেত্রে দিদি নাম্বার জিরো।’ নিন্দুকরা সমালোচনা করে লিখছেন গানের ক্ষেত্রে দিদির প্রতিভা একেবারে জিরো! তবে যারা এর আগে অন্য জায়গাতে রচনার গান শুনেছেন তারা বিষয়টিকে উপেক্ষা করছেন। কারণ রচনা ব্যানার্জী অন্যান্য ক্ষেত্রের মত গানেও যে দিদি নাম্বার ওয়ান তার প্রমাণ আগেও মিলেছে।