বিরাট-অনুষ্কার বডিগার্ডের বেতন লজ্জায় ফেলে দিচ্ছে নামিদামী কোম্পানীর সিইওকে

Riya Chatterjee

Published on:

বলিউড (Bollywood) হোক বা ক্রীড়াজগত, তারকারা কার্যত ব্যক্তিগত দেহরক্ষী ছাড়া এক পাও বাইরে বের হতে পারেন না। খ্যাতির বিড়ম্বনা কী তা তারকাদের দেখলেই বোঝা যায়। সারা ভারতবর্ষ জুড়ে তাদের এত বেশি ফ্যানবেস যে পাগলপ্রায় ভক্তদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য দেহরক্ষীর প্রয়োজন পড়ে তাদের। বিরাট কোহলি (Virat Kohli) এবং অনুষ্কা শর্মাও (Anushka Sharma) তাদের ব্যক্তিগত বডিগার্ড হিসেবে রেখেছেন সোনু সিংহকে (Sonu Singh)।

বিরাট এবং অনুষ্কা, একজন ক্রিকেট তারকা তো অন্যজন বলিউড অভিনেত্রী। কাজেই তাদের জন্য সবসময়ই দ্বিগুণ সুরক্ষার বন্দোবস্ত করতে হয়। আর এই দায়িত্বটি নিয়েছেন সোনু। বিরাট এবং অনুষ্কাকে রক্ষা করতে তিনি একাই একশো‌। তার উপস্থিতিতে বিরুষ্কার উপর একটা আঁচড় ও এসে পৌঁছাতে পারে না।

সোনুকে কখনও শুধু একজন কর্মচারী বা বডিগার্ড হিসেবে দেখেন না বিরাট ও অনুষ্কা। তাদের পরিবারের কাছে তিনিও একজন সদস্য। বিরাট-অনুষ্কার পরিবারের একজন হিসেবেই রয়েছেন সোনু। সম্প্রতি তার বেতনের অঙ্কটা জানাজানি হয়ে গিয়েছে। সুরক্ষার খাতিরে সোনুকে এই তারকা দম্পতি যে পরিমাণ বেতন দেন সাধারণ মানুষ তা কল্পনাও করতে পারবেন না।

সাম্প্রতিক একটি রিপোর্টে সোনুর বেতনের অঙ্কটা জানানো হয়েছে। এই রিপোর্টে বলা হয়েছে অনুষ্কার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী বছরে ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা উপার্জন করছেন। অর্থাৎ তিনি প্রতিমাসে ১০ লক্ষ টাকা করে বেতন পান। বার্ষিক আয়ের নিরিখে বহু নামিদামি কোম্পানির সিইওকেও টেক্কা দিতে পারেন সোনু।

উল্লেখ্য, সাধারণ মানুষের ভিড়ে যাতে ক্ষতি না হয় তার জন্য বহু তারকাই বডিগার্ডের ব্যবস্থা রেখেছেন। আর বিরাট-অনুষ্কা তো হলেন ক্রিকেট ও বলিউডের পাওয়ার কাপল। তাই তাদের বাড়তি সতর্কতা নিতেই হয়। আর উপরে আবার তাদের সংসারে এসেছে ছোট্ট কন্যা সন্তান ভামিকা। এই খুদে শিশুকে রক্ষা করার দায়িত্বও সোনুর কাঁধেই রয়েছে।

তারকারা সাধারণত তাদের সুরক্ষার জন্য দেহরক্ষীদের অনেক মোটা অঙ্কের বেতন দিয়ে থাকেন। বিরাট-অনুষ্কাও তাদের ব্যতিক্রম নন। অনুষ্কা অবশ্য বিয়ের আগে থেকেই ব্যক্তিগত দেহরক্ষী রেখেছিলেন। তখনও অনুষ্কার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী হিসেবে কাজ করতেন সোনু। বিয়ের পর এখন বিরাটেরও নিরাপত্তার দায়িত্ব নিয়েছেন অনুষ্কার বিশ্বস্ত দেহরক্ষী।