১৩ বছরেই রবি ঠাকুরের নায়িকা! রইল ‘গুড্ডি’ অভিনেত্রী শ্যামপ্তি মুদলির অজানা কাহিনী

মাত্র ১৩ বছর বয়সে রবি ঠাকুরের নায়িকা, কীভাবে ছোট পর্দার নায়িকা হলেন ‘গুড্ডি’ ধারাবাহিকের শ্যামপ্তি

স্টার জলসার (Star Jalsha) ‘গুড্ডি’ (Guddi) ধারাবাহিকটি টিআরপি তালিকাতে তেমন ভাল ফলাফল করতে না পারলেও অধিকাংশ দর্শক ধারাবাহিকটিকে বেশ পছন্দ করেন। লেখিকা লীনা গাঙ্গুলীর এই সিরিয়ালে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন শ্যামপ্তি মুদলি (Shyamoupti Mudly) এবং রণজয় বিষ্ণু। এই ধারাবাহিকের জন্য বেশ প্রশংসা পাচ্ছেন দুজনেই। ১৬ বছর বয়সী এক স্কুল পড়ুয়া মেয়ের চরিত্রে তার অভিনয় দর্শকদের মনে দাগ কাটছে।

আজ থেকে নয়, বাংলা টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে শ্যামপ্তির সম্পর্ক কিন্তু বেশ কয়েক বছরের পুরনো। খুব ছোট বয়সেই বাংলা টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি পা রেখেছিলেন। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১৩ বছর। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘চোখের বালি’ উপন্যাসের উপর নির্ভর করে বানানো একটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেই হয়েছিল তার অভিষেক। তারপর এই ইন্ডাস্ট্রিতে ২ দশক কাটিয়ে ফেললেন নায়িকা হয়ে।

All you need to know about Bengali serial actress Shyamoupti Mudly

 

শ্যামপ্তি কিন্তু অভিনয়ের পাশাপাশি নাচেও পারদর্শী। ছোট বয়স থেকেই তিনি নাচতে ভালোবাসেন। নাচের হাত ধরেই অভিনয় জগতে প্রবেশ ঘটে তার। ‘চোখের বালি’র পর ‘পটল কুমার গানওয়ালা’, ‘করুণাময়ী রানী রাসমণি’, ‘দাসী’, ‘বাজলো তোমার আলোর বেণু’, ‘ধ্রুবতারা’ ধারাবাহিকে তিনি পরপর কাজের সুযোগ পেয়েছেন। এখন তাকে ‘গুড্ডি’ ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে।

শ্যামপ্তি অভিনয় গুণে প্রত্যেকবার প্রত্যেক ধারাবাহিকের দর্শকদের থেকে ভালোবাসা পেয়েছেন। ২০১৭ সালে ‘চোখের বালি’ ধারাবাহিকের পর ‘দাসী’ ধারাবাহিকে তিনি প্রথমবার নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান। এরপর তাকে আর ফিরে তাকাতে হয়নি। মাত্র ১৯ বছর বয়সেই একের পর এক জনপ্রিয় ধারাবাহিকের অংশ হতে পেরেছেন তিনি।

All you need to know about Bengali serial actress Shyamoupti Mudly

 

যত দিন যাচ্ছে ততই যেন তার অভিনয় দক্ষতা আরও বেশি পরিণত হচ্ছে। এখন স্টার জলসার ‘গুড্ডি’ ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন এই অভিনেত্রী। তার সঙ্গে এই ধারাবাহিকে রয়েছেন শংকর চক্রবর্তী, সোহিনী সেনগুপ্ত, অম্বরিশ ভট্টাচার্য, লাভলী মৈত্র, তথাগত মুখোপাধ্যায়, বিশ্বাবসু বিশ্বাসদের মত তারকারা।

ত্রিকোণ প্রেমের গল্প নিয়ে লীনা গাঙ্গুলী লিখেছেন ‘গুড্ডি’র গল্প। পরিস্থিতির চাপে পড়ে প্রাণে বাঁচতে আইপিএস অনুপের সঙ্গে মন্দিরে বিয়ে হয়ে যায় গুড্ডির। এরপর নানা টানাপোড়নের মধ্যে তাদের সম্পর্ক ভেঙেও যায়। গল্পের প্লট অনুসারে এখন অনুপের সঙ্গে শিরিনের বিয়ে হয়ে গেল। এবার গুড্ডির কী হবে? আগামী দিনে গল্পে থাকবে আরও অনেক টুইস্ট।