এবার সিরিয়াল দেখুন বিনামূল্য, TRAI-এর নতুন নিয়মে এক ধাক্কায় অনেক কমে গেল টিভি দেখার খরচ

রাতারাতি কমে যাচ্ছে টিভি দেখার খরচ, TRAI-এর নতুন নিয়মে সিরিয়াল দেখুন বিনামূল্য

TRAI's new guidelines to cable operators for 2023

সাধারণ মানুষের কাছে বিনোদনের এক অনেক বড় মাধ্যম হল টেলিভিশন (Television)। আগে টেলিভিশনে সিরিয়াল কিংবা খবর দেখার জন্য নামমাত্র খরচ হত। দূরদর্শনের আমলে খরচ তো প্রায় হতই না। নতুন নতুন চ্যানেল আসার পরেও প্রথম প্রথম কেবলের দাম ছিল সাধারণের একেবারেই নাগালের মধ্যে। আচমকাই ২০১৯ সাল থেকে চড়চড়িয়ে বাড়ছে কেবল দেখার খরচ।

এক সময় মাত্র ১০০ টাকার মধ্যেই সমস্ত পছন্দের চ্যানেল দেখার সুযোগ ছিল। কিন্তু এখন ৩০০-৪০০ টাকার নিচে ভাল মানের প্ল্যান নেই। এমনকি টাকা দিয়েও যে সব পছন্দের চ্যানেল দেখতে পাবেন এমন নিশ্চয়তা নেই। এই নিয়ে বহুদিন ধরেই অভিযোগ জানিয়ে আসছিলেন গ্রাহকেরা। অবশেষে গ্রাহকদের কথা ভেবে এবার নড়েচড়ে বসলো TRAI, Telecom Regulatory Authority of India।

TRAI সম্প্রতি এমন এক নিয়ম চালু করতে চলেছে যাতে টিভি দেখার খরচ এক ধাক্কায় অনেকটাই কমে যাচ্ছে। TRAI ট্যারিফ অর্ডার 2.0 সংশোধনী অনুসারে একটি নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। নতুন নিয়ম অনুসারে ১৯ টাকার কমেন্ট যে সকল চ্যানেল রয়েছে সেগুলোকে একটাই বোকের মধ্যে আনা হবে। ইতিমধ্যেই প্রত্যেক কেবল অপারেটরের কাছে এই মর্মে নির্দেশিকা পৌঁছে গিয়েছে।

এই নতুন নিয়ম ২০২৩ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে লাগু করা হবে। কেবল অপারেটরদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যেন গ্রাহকেরা নতুন নিয়ম অনুসারেই পরিষেবা পান। সেই সঙ্গে কোনও ব্রডকাস্ট সংস্থা চ্যানেলের দাম, কিংবা অন্য কোনও বোকে কাঠামোতে যদি পরিবর্তন আনতে চান, তাহলে তা ১৬ই ডিসেম্বরের মধ্যে রিপোর্ট করতে হবে।

২০১৯ সালের নতুন নিয়ম চালু হওয়াতে এক ধাক্কায় টিভি দেখার খরচ অনেকটা বেড়ে গিয়েছিল। তবে প্রাথমিকভাবে এই পরিবর্তনকে সাময়িক হলেই মনে করেছিলেন দর্শকরা। আশা করেছিলেন এরপর হয়তো ধাপে ধাপে কেবলের বিল কমবে। তবে তেমনটা হয়নি। পরবর্তীতে দেখা যায় নতুন নতুন নিয়ম পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে খরচ আরও বাড়ছে।

বর্তমানে পছন্দের সিরিয়াল কিংবা খবরের চ্যানেল দেখতে গিয়ে কার্যত দর্শকরা ফতুর হওয়ার জোগাড়! তাই দামের পরিবর্তন আনার জন্য বহুদিন ধরেই দাবি জানাচ্ছিলেন গ্রাহকেরা। ট্রাইয়ের এই নতুন নিয়ম চালু হলে স্বাভাবিকভাবেই এতে দর্শকদের টিভি দেখার খরচ অনেকটাই কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে শেষ পর্যন্ত সত্যিই এতে গ্রাহকেরা উপকৃত হন কিনা সেটাই এখন দেখার।