১২ বছরের সম্পর্ক শেষ! তৃণাকে ছেড়ে পুরনো নায়িকার কাছেই ফিরে গেলেন নীল

তৃণা অতীত, বউকে ছেড়ে পুরনো নায়িকার কাছে ফিরে গেলেন নীল

নীল ভট্টাচার্য (Neel Bhattacharya) এবং তৃণা সাহাকে (Trina Saha) নিয়ে বর্তমানে টলিউডের (Tollywood) কানাঘুষোয় তোলপাড় হয়ে রয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। কারণ শোনা যাচ্ছে বাংলা টেলিভিশনের এই জনপ্রিয় জুটির রসায়নে নাকি চিড় ধরেছে। দু’বছর আগেই সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন তারা। তাদের রোমান্টিসিজম, সম্পর্কের ঘনিষ্ঠতা দেখলে চোখ জুড়িয়ে যেত ভক্তদের। কিন্তু বর্তমান নাকি তাদের সম্পর্কের মধ্যে দূরত্ব বাড়ছে।

ইদানিং বাংলা ছোট পর্দার এই জুটিকে একত্রে আর দেখাই যাচ্ছে না। তৃণার জন্মদিন হোক কিংবা দুজনের বিবাহ বার্ষিকী, একটি বারের তরেও দুজনকে পাশাপাশি দেখা যাচ্ছে না। অথচ দুজনের মধ্যে কেউই কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া বিমুখ নন। আসলে প্রেমের সময় থেকে শুরু করে বিয়ের পর বিভিন্ন ছোট খাটো মুহূর্ত তারা একসঙ্গেই সেলিব্রেট করতেন। তাই যেন এসব কিছু নেটিজেনদের চোখে আরও বেশি করে ধরা পড়ছে।

NEEL AND TRINA SAHA

তৃণার জন্মদিন শুটিং সেটে ছোট করে পালন করা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে উপস্থিত ছিলেন না নীল। আবার দু’বছর আগে যে দিনটিতে মহা ধুমধাম করে তারা বিয়ে সেরেছিলেন, দু’বছর পর সেই বিবাহ বার্ষিকীর দিনটিতেও দুজনে আলাদাই রইলেন। তাই তাদের নিয়ে জল্পনা বাড়ছে। তবে সমস্ত জল্পনাকে গুজব বলেই উড়িয়ে দিচ্ছেন নীল ও তৃণা।

এসব কিছুর মাঝেই নীল ফিরে গেলেন তার পুরনো নায়িকার কাছে। তিনি আর কেউ নন, সৈরিতী ব্যানার্জী। নীল এবং সৈরিতী সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি রিল ভিডিও শেয়ার করেছিলেন। সৈরিতী এবং নীল ‘ঠিক যেন লাভ স্টোরি’ সিরিয়ালে অভিনয় করতেন। এটাই ছিল তাদের দুজনের ডেবিউ সিরিয়াল। প্রথম এই সিরিয়ালটিই ছিল দারুণ হিট, তাই তাদের আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

thik jeno love story

বহুদিন বাদে আবার সোশ্যাল মিডিয়ার পর্দায় দুজনকে একসঙ্গে দেখা গেল। এই ভিডিওতে দুজনকে রেস্টুরেন্টে পাশাপাশি বসে খেতে দেখা যাচ্ছে। সৈরিতীর পরনে রয়েছে অফ হোয়াইট রংয়ের ফুল স্লিপ পুলওভার এবং তার সঙ্গে কালো রঙের ট্রাউজার। মাথার চুল বান করে বাঁধা। আর নীলের পরনে রয়েছে হলুদ রঙের পাজামা এবং পাঞ্জাবির সঙ্গে কমলা রঙের প্রিন্টেড জহর কোট।

thik jeno love story 1

জনপ্রিয় ‘কোলাভরি ডি’ গানের সঙ্গে ইনস্টাগ্রামে এই রিল ভিডিওটি বানিয়েছিলেন তারা। রাত তিনটের সময় তারা এই রিল ভিডিওটি বানিয়ে শেয়ার করেছেন এবং ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘‘কেন কেন ও কেন!” তাদের এই জুটিকে বহু বছর পর আবার এইভাবে পাশাপাশি দেখে নস্টালজিয়ায় ভেসেছেন দর্শকরা। ‘আদিত্য-ইশা’ এত বছর বাদে আবার যে এইভাবে ধরা দেবে এমনটা আশা করতে পারেননি ভক্তরা।