রূপ ও সৌন্দর্যে মাকেও ছাপিয়ে গেল মহিমার মেয়ে, গুণে গুণে মাকে দেবে ১০ গোল

সৌন্দর্যের নিরিখে মাকেও টেক্কা দিচ্ছে মহিমা চৌধুরীর মেয়ে, গুণে গুণে দেবে ১০ গোল

নব্বইয়ের দশকের মাঝামাঝি শাহরুখ খানের হাত ধরে বলিউডে প্রবেশ করেছিলেন মহিমা চৌধুরী (Mahima Chaudhry)। আর তার ডেবিউ ছবি বক্স অফিসে রীতিমতো ঝড় তুলেছিল। ১৯৯৭ সালে শাহরুখ-মহিমা অভিনীত ‘পরদেশ’ ছবিটি বক্সঅফিসে সুপারহিট হয়েছিল। ২৪ বছর পরেও ছবিটির জনপ্রিয়তা এতটুকু কমেনি। এই ছবিটিই বলিউডে মহিমা চৌধুরীর দরজা খুলে দেয়।

১৯৯৭ সালের পর থেকেই বলিউডে একাধিক ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান মহিমা। তার ফিল্মি কেরিয়ারের সবথেকে উল্লেখযোগ্য দুই ছবি হলো ‘পরদেশ’ এবং ‘ধারকান’। নব্বইয়ের দশ
রূপ ও সৌন্দর্যে মাকেও চাপিয়ে গেল মহিমা চৌধুরীর মেয়ে, গুণে গুণে দেবে ১০ গোলকের বলিউডের সুন্দরী অভিনেত্রীদের তালিকায় প্রথম সারিতে ছিলেন মহিমা চৌধুরী। সেই সময় দর্শকমহলে তিনিই ছিলেন সেনসেশন। আর এখন তার মেয়ে আরিয়ানা চৌধুরীও (Ariyana Chaudhry) ইন্টারনেট দুনিয়ার নতুন সেনসেশন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

Mahima Chaudhry Daughter Ariyana Chaudhry

মহিমা চৌধুরীর মেয়ে আরিয়ানা চৌধুরী ইনস্টাগ্রামে বেশ একটিভ থাকেন। সৌন্দর্যের নিরিখে যেন মাকেও ছাপিয়ে গিয়েছেন আরিয়ানা। মহিমা চৌধুরীর সুন্দরী কন্যা এখন আর ছোটটি নেই। আজ সে রীতিমতো সুন্দরী তরুণীতে পরিণত হয়েছে। ইনস্টাগ্রামের পাতায় চোখ রাখলেই তার দেখা মেলে। সাধারণের অনুমান, আরিয়ানা ভবিষ্যতে মায়ের মতোই বলিউডে পা রাখবেন। বলিউড সুন্দরীদের তুলনায় তার সৌন্দর্য কোনও অংশেই কম নয়।

বলিউডের সাফল্য পাওয়ার পর ববি মুখোপাধ্যায়কে বিয়ে করেন মহিমা চৌধুরী। যদিও তাদের সম্পর্কের মেয়াদ ছিল মাত্র ৭ বছর। তারপর মেয়ে আরিয়ানাকে নিয়ে আলাদা হয়ে যান মহিমা। ববি এবং মহিমার মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি ঠিকই, কিন্তু তারা আলাদাই থাকেন। মেয়ের সমস্ত দায়-দায়িত্ব মহিমা একা পালন করেছেন। মেয়েকে একাই মানুষ করেছেন তিনি।

মেয়েকে মানুষ করার জন্য মহিমা দীর্ঘদিন নিজেকে ক্যামেরার পর্দার থেকে সরিয়ে রেখেছেন। আজ তার মেয়ে বলিউড সুন্দরীদেরও টেক্কা দিচ্ছে। নেটিজেনরা বলেন মহিমা চৌধুরীর মেয়ে একেবারে পুতুলের মতো দেখতে। অনেকেই তাকে বলেন ‘কাঁচের পুতুল’! পাপারাজ্জিরা নিজেদের ক্যামেরায় আরিয়ানাকে ক্যামেরাবন্দি করার জন্য মুখিয়েই থাকেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই আরিয়ানার বহু ছবির দেখা মেলে। সে মায়ের থেকেও সুন্দরী তো বটেই, আধুনিকতার নিরিখেও কোনও অংশে কম যায়না আরিয়ানা। তার ফ্যাশন সেন্সও নেট দুনিয়ার চর্চার বিষয়বস্তু। আরিয়ানাকে অনেকেই মায়ের ‘কার্বন কপি’ বলে থাকেন। অনেকে আবার বলেন তিনি মায়ের থেকেও সুন্দরী। আরিয়ানা ইনস্টাগ্রামে ছবি অথবা ভিডিও পোস্ট করা মাত্রই তা মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।