খলনায়িকা থেকে নায়িকা, মিঠাইয়ের আগে এই ৫ সিরিয়ালে অভিনয় করেছেন সৌমিতৃষা

Riya Chatterjee

Updated on:

এই মুহূর্তে জি বাংলার (Zee Bangla) সেরা ধারাবাহিকগুলোর মধ্যে মিঠাই (Mithai) অন্যতম। ধারাবাহিকের টিআরপি যদিও দিন দিন কমছে, তবে এর জনপ্রিয়তায় খামতি নেই এতটুকু। মিঠাই ধারাবাহিকের প্রত্যেকটি চরিত্র গল্পের খাতিরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যাকে ছাড়া ধারাবাহিকটিই অসম্পূর্ণ, সেই মিঠাই ওরফে সৌমিতৃষা কুন্ডুর (Soumitrisha Kundu) জনপ্রিয়তা গোটা টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে সব থেকে বেশি।

মিঠাই ধারাবাহিক থেকে অনেক জনপ্রিয়তা পেলেও সৌমিতৃষার কিন্তু এটাই প্রথম ধারাবাহিক ছিল না। বিগত কয়েক বছর ধরে তিনি একের পর এক ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। তবে তার অভিনয় জীবনের শুরুটা হয়েছিল পার্শ্বচরিত্র দিয়ে। এর মধ্যে কিছু ধারাবাহিকে আবার খলনায়িকা হিসেবেও দেখা গিয়েছে জি বাংলার মিষ্টি নায়িকা সৌমিতৃষাকে। কাজেই সৌমিতৃষার সঙ্গে দর্শকদের সম্পর্কটা বহু পুরনো।

সৌমিতৃষাকে নিয়ে তার ভক্তদের মাতামাতির শেষ নেই। মিঠাই রানী কোথায়, কখন, কী করছেন, অতীতে তিনি কী কী কাণ্ড ঘটিয়েছেন, সবটা নিয়েই মেতে রয়েছে এই নেট দুনিয়া। সম্প্রতি যেমন সৌমিতৃষার অভিনীত সমস্ত ধারাবাহিকের তালিকা বানিয়ে ফেলেছেন তার এক ভক্ত। তিনি কোন ধারাবাহিকে কোন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সবটা একটা তালিকার আকারে প্রকাশ করা হয়েছে মিঠাইয়ের ফ্যান গ্রুপে।

মিঠাইসহ সৌমিতৃষা এ পর্যন্ত মোট ৬ টি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। তার অভিনয় জীবনের শুরুটা হয়েছিল কালার্স বাংলার ‘এ আমার গুরুদক্ষিণা’ ধারাবাহিকের হাত ধরে। প্রথম ধারাবাহিকেই তিনি হয়ে উঠেছিলেন খলনায়িকা। তার অভিনীত চরিত্রটির নাম ছিল ঝিল্লি। এরপর ‘জয় কালী কলকাত্তাওয়ালী’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেন সৌমিতৃষা।

MITHAI UNFOLLOW ADRIT AND KOUSHAMBI

 

দ্বিতীয় ধারাবাহিকে অবশ্য এপিসোড রোলে ছিলেন তিনি। তার চরিত্রের নামটি ছিল রাখা। সৌমিতৃষার তৃতীয় ধারাবাহিকের নাম ছিল ‘গোপাল ভাঁড়’। এখানে তিনি ছিলেন সাপোর্টিং রোলে। তার চরিত্রের নাম ছিল জাহ্নবী। ‘গোপাল ভাঁড়ে’র পর ‘অলৌকিক না লৌকিক’ ধারাবাহিকে আবারও এপিসোড রোল পেয়েছিলেন জি বাংলার টপার গার্ল। তার চরিত্রের নাম ছিল পুতুল।

সৌমিতৃষাকে প্রথমবার নায়িকার ভূমিকা দিয়েছিল কিন্তু কালার্স বাংলাই। কালার্স বাংলার ‘কনে বউ’ ধারাবাহিকে নায়িকা কলি চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সেই ধারাবাহিক শেষ হতেই জি বাংলা থেকে ‘মিঠাই’ হওয়ার সুযোগ এসে গিয়েছিল তার হাতে। অভিনেত্রী নিজেই একবার জানিয়েছিলেন তাকে কখনও অডিশন দিতে হয়নি। তার অভিনয় প্রতিভা দেখে চ্যানেল এবং সিরিয়ালের নির্মাতারা নিজে থেকেই তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন বারবার।