কেন কেউ দেখছে না গাঁটছড়া, দিনে দিনে কমছে টিআরপি, ফাঁস হল রহস্য

দিনে দিনে কমছে টিআরপি, কী কারণে গাঁটছড়া দেখতে চাইছেন না কেউ

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ক্রমাগত স্লট হারাচ্ছে স্টার জলসার (Star Jalsha) গাঁটছড়া (Gantchhora) ধারাবাহিকটি। বিপরীতে জি বাংলার জগদ্ধাত্রী প্রতি সপ্তাহেই সেরা তিনে থাকছে। অন্যদিকে গাঁটছড়া স্লট হারানোর পাশাপাশি টিআরপি তালিকাতেও ক্রমাগত নিচের দিকে নামছে। এর পেছনে অবশ্য চ্যানেল এবং সিরিয়াল নির্মাতাদেরকেই দায়ী করছেন দর্শকরা। গাঁটছড়ার এই ফলাফলের জন্য কোন কোন কারণ দায়ী?

দর্শকদের একাংশের দাবি প্রোডাকশন হাউস এবং চ্যানেলের কারসাজিতেই নাকি শেষ হয়ে যাচ্ছে গাঁটছড়া। নষ্ট করা হচ্ছে ধারাবাহিকের গল্পটিকে। শুরু থেকেই ঋদ্ধিমান এবং খড়ির মধ্যে একটা জমজমাট ট্র্যাক ছিল। এখন তা ভেস্তে গিয়েছে। তার বদলে ইচ্ছাকৃতভাবে জোর করে খড়ির জেঠুর অতীত টেনে আনা হচ্ছে। এতেই নেমে যাচ্ছে টিআরপি।

সোশ্যাল মিডিয়াতে একজন গাঁটছড়া ভক্ত এই নিয়ে লিখেছেন জগদ্ধাত্রী আসার পর থেকেই গাঁটছড়াতে খড়ির জেঠুর অতীত টেনে আনা হয়েছে। এর আগে মন ফাগুনের সময়ও এমনটাই করা হয়েছিল। তার ফলাফল সকলেরই জানা। লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার আসার পর মন ফাগুনের গল্পে অতীত টেনে আনা হয়। যার সরাসরি প্রভাব পড়েছিল টিআরপির উপরে।

অতীত খুঁড়ে বিশেষ লাভ হয়নি মন ফাগুনে। বরং টিআরপির অভাবে ধারাবাহিকটাই বন্ধ হয়ে যায়। একই ঘটনা ঘটছে গাঁটছড়াতেও। খড়ির জেঠুর ‘ফালতু অতীত’ ঘেঁটে আরও ঘ হয়ে যাচ্ছে ধারাবাহিকের গল্প। এতেই নাকি ক্রমশ ডুবে যাচ্ছে গাঁটছড়া। তাই চ্যানেলের বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃতভাবে ধারাবাহিকটিকে ডুবিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠছে।

Riddhiman And Khori's Relationship Is Going To Face New Challenge in Gantchhora

দর্শকরা দাবী করছেন এই ফালতু ট্র্যাক না দেখিয়ে বরং ঋদ্ধিমান এবং খড়ির উপরে আগের মত গুরুত্ব দেওয়া হোক। তাদের দুজনের কেমিস্ট্রির উপর জোর দিয়েই একসময় বেঙ্গল টপার হয়েছিল গাঁটছড়া। নেটিজেনদের আক্রোশের মুখে পড়েছে ধারাবাহিকের প্রোডাকশন হাউস অ্যাক্রপলিস এন্টারটেইনমেন্টও।

Riddhi Gets Trapped on Rahul`s Trap New Twist Coming Up On Gantchhora

অ্যাক্রপলিস এন্টারটেইনমেন্ট তাদের সব সিরিয়ালকে সুন্দরভাবে শুরু করে মাঝপথে গোলমাল বাঁধিয়ে ডুবিয়ে দেয়! সোশ্যাল মিডিয়াতে এমনটাই লিখছেন জনৈক দর্শক। অবশ্য দর্শকদের ক্ষোভের কারণেই হোক কিংবা টিআরপিতে অধঃপতন দেখে হোক গাঁটছড়ার গল্প আবার জমতে শুরু করেছে। খড়ি বুঝতে পেরেছে তাকে ব্যবহার করে তার জেঠুর খুনের অপরাধে ঋদ্ধিমানকে ফাঁসানো হয়েছে। সত্যিটা জেনে সে ঋদ্ধিমানের পাশে দাঁড়িয়ে তাকে নিরাপরাধ প্রমাণ করতে মরিয়া।