বিয়ে আগেই গর্ভবতী!গর্ভপাতের জন্য ৭৫ লাখ টাকা দাবি,’বাহুবলী’র মায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ

Avatar

Updated on:

বলিউডের মতো দক্ষিণ ভারতের বহু জনপ্রিয় অভিনেত্রী রয়েছেন যাদের খ্যাতি অভিনেতাদের কে টক্কর দিতে পারে। এমন এক জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন রাম্যা কৃষ্ণান (Ramya Krishnan)। ৯০ দশকের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী অমিতাভ বচ্চনের (Amitabh Bachchan) বিপরীতে একটি হিন্দি ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু উত্তর ভারতে তার খ্যাতি এনে দিয়েছিল ‘বাহুবলী’ (Bahubali)।

‘বাহুবলী’ ছবিতে বাহুবলীর মায়ের ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল তাকে। কিন্তু দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে অভিনেত্রী কেরিয়ার শুরু হয়েছিল বহুকাল আগে। তিনি তবে শুধু কেরিয়ার নয়, তিনি জনপ্রিয় এক বিতর্কের জন্যেও। এই বিতর্কের কারণ ছিল একটি সম্পর্ক। কেরিয়ারের মাঝ সময় পরিচালক কে এস রবিকুমারের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। ১৯৯৯ সালে ‘পদয়াপ্পা’ ও ‘পাটালি’ নামক ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেন এই অভিনেত্রী রাম্যা কৃষ্ণান ও পরিচালক কে এস রবিকুমার।

 

তাছাড়াও ২০০২ সালে, রবিকুমার তাকে ‘পঞ্চতন্ত্র’-ছবিতে একটি ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ দেন। সেখান থেকেই তাদের সম্পর্ক আর গভীর হয়। যদিও রবিকুমার সেই সময় নিজের বিয়েও সেরে ফেলেছিলেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও অভিনেত্রীর সঙ্গে প্রেম করছিলেন তিনি। জানা গিয়েছিল, অভিনেত্রী গর্ভবতীও হয়ে গিয়েছিলেন। রবিকুমারের স্ত্রী যখন‌ ঘটনাটা জানতে পারে তখন অভিনেত্রীকে তাদের জীবন থেকে চলে যেতে বলেছিলেন।

তারপর রবিকুমারের কাছে গর্ভপাত করানোর জন্য ৭৫ লক্ষ চান তিনি। অনেক ঝামেলার পর শেষ পর্যন্ত গর্ভপাত করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দুজনেই। পরে এই বিষয়ে নিয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের কিছুই জানাতে চাননি এই অভিনেত্রী ও পরিচালক।

তারপরে অবশ্য রাম্যা কৃষ্ণান নিজেও বিয়ে করেছিলেন। ২০০৩ সালে তেলেগু চলচ্চিত্র নির্মাতা কৃষ্ণা ভামসিকে বিয়ে করেন রাম্যা। তারপর রাম্যা আর কৃষ্ণা দুজনে সুখে সংসার করা শুরু করেন। তাদের এক সন্তান রয়েছে যার নাম ঋত্বিক কৃষ্ণ। আজও তারা এক সঙ্গেই রয়েছেন। বলিষ্ঠ নারী চরিত্রে দাপিয়ে অভিনয় করছেন রাম্যা কৃষ্ণন। দর্শকদের ভীষন প্রিয়ের তালিকায় তিনি অন্যতম।

অভিনেত্রীকে একসময় দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির বম্বশেল বলা হতো। সুপার ডিলাক্স ছবির মাধ্যমে বোল্ডেস্ট তকমা পান। ১৯৮৯ সালে কে বিশ্বনাথের সূত্রাধুরুলু ছবির হাত ধরেই প্রথম সাফল্য পেয়েছিলেন তিনি। বলিউডেও কাজ করেছেন অভিনেত্রী। ১৯৯৬ সালে শাহরুখের খানের চাহত ছবিতে অভিনয় করেন। পরবর্তীতে স্টে গিয়েছিলেন ইন্ডাস্ট্রি থেকে। বাহুবলীর হাত ধরে পর্দায় ফেরা। কন্নড় আর মালায়ালাম ছবিতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে।