আসছে ফুলঝুরির নতুন প্রেমিক, ডিভোর্সের পর আবার বিয়ে করবে লালন! ধূলোকণা দেখে চরম বিরক্ত দর্শকরা

বারবার শুধু বিয়ে আর পরকীয়া, লালন-ফুলঝুরির ডিভোর্স দেখে দারুণ বিরক্ত দর্শকরা

ধূলোকণা ধারাবাহিকটি এখন স্টার জলসাকে টিআরপির নিরিখে এগিয়ে যেতে বেশ সাহায্য করছে। লালন-ফুলঝুরির বিয়ে আর বিচ্ছেদ দেখিয়ে একের পর এক সপ্তাহ কিস্তিমাত করে দিচ্ছেন লীনা গাঙ্গুলী। তবে লীনা গাঙ্গুলীর লেখা নিয়ে ইদানিং সোশ্যাল মিডিয়াতে দারুণ সমালোচনা হচ্ছে। টিআরপি উঠলেও গল্পের মান নিয়ে প্রশ্ন উঠছে বারবার। এবারেও যেমন ধুলোকণার বর্তমান গল্পের ট্র্যাক নিয়ে শুরু হল সমালোচনা।

দুর্ঘটনায় লালন স্মৃতি হারিয়ে ফেলার পর তিতিরের সঙ্গে তার বিয়ে এবং তার স্মৃতি ফিরে আসার‌ গল্পটা চেটেপুটে উপভোগ করেছেন দর্শকরা। কিন্তু এখন আবার গল্পের মোড় গিয়েছে ঘুরে। তিতিরকে লিপস্টিক পরিয়ে বিয়ে করে ফুলঝুরির কথা মনে পড়তেই লালন আবার ফিরে আসে তার পুরনো বউয়ের কাছে। কিন্তু ফুলঝুরির কাছে ফিরেও তার নাকি তিতিরের জন্যই মন কেমন করছে! সে নাকি ফুলঝুরি-তিতির দুজনকেই ভালবাসে, দুজনের সঙ্গেই থাকতে চায়!

এসব দেখে দর্শকরা তো রীতিমত রেগে আগুন হয়েছেন লালনের উপর। আর এরকম গল্প লেখার জন্য ততোধিক সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে লীনা গাঙ্গুলীকে। গুড্ডি’র অনুজের পর এখন ধুলোকণার লালনও যেভাবে পরকীয়া করে চলেছে তাতে লীনা গাঙ্গুলীর গল্পের নায়কদের চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। লালন তো এখন আবার ফুলঝুরিকে ডিভোর্সও দিতে যাচ্ছে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি খুবই জটিল।

ধুলোকণার নতুন প্রোমোতে দেখা গিয়েছে লালনের মতিগতি দেখে ফুলঝুরি তাদের সম্পর্ক ভাঙার জন্য চলে আসে উকিলের কাছে। সেখানে তাদের ডিভোর্সের প্রসঙ্গ ওঠে। এদিকে আবার ঠিক তখনই ঘটনাস্থলে এসে উপস্থিত হয় তিতির। সে উকিলের দিকে একটা খামবন্দী চিঠি এগিয়ে দেয়। এই চিঠিতে কী লেখা রয়েছে তা ক্রমশ প্রকাশ্য। লালন-ফুলঝুরির সম্পর্ক যেভাবে তলানিতে পৌঁছালো তাতে কার্যত মাথায় হাত ভক্তদের।

ধুলোকণার ভক্তদের একাংশের দাবি লালনের মাথার ঠিক নেই। সে নাকি শিশুদের মত হয়ে গিয়েছে। তাই তো অকপটে সে ফুলঝুরিকে বলছে সে ফুলঝুরি-তিতির, দুই বউয়ের সঙ্গেই থাকতে চায়! গল্প তার খেই হারিয়ে ক্রমশ অবান্তর মোড় নিচ্ছে বলে সমালোচনা করছেন নিন্দুকরা। আর এই একঘেয়ে পরকীয়ার গল্প দেখতে দেখতে বিরক্ত বোধ করছেন দর্শকরা। এরই মধ্যে আবার ফুলঝুরির নতুন প্রেমিককে নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা।

DHULOKONA

দর্শকদের দাবি লালনকে উচিত শিক্ষা দেওয়ার জন্য এখনই ফুলঝুরির একজন প্রেমিক আসা উচিত। তাহলেই আবার তিতিরকে ভুলে ফুলঝুরির প্রতি লালনের টান বাড়বে। গল্পও ঠিক পথে এগোবে। দর্শকরা এখন ধুলোকণা দেখে বলছেন ‘ফাল্তু সিরিয়াল’! লালনের উপর চটে রয়েছেন সকলে। কেউ কেউ আবার বলছেন এই পরিস্থিতিতে এখনই ফুলঝুরির প্রেমিক অঙ্কুর ওরফে তথাগত মুখার্জিকে আবার ফেরানো দরকার। তিনিই লালনকে সঠিক পথে আনতে পারবেন!