স্লটবদলেও রক্ষা নেই, মিঠাই থেকে বাদ পড়ল দুই জনপ্রিয় চরিত্র, মাথায় হাত ভক্তদের

স্লট বদলের সঙ্গে সঙ্গে বদলে যাচ্ছে গল্প, মিঠাইতে আসছে এবার নতুন মোড়

টিআরপির দৌড়ে ক্রমশ পিছিয়ে পড়তেই শেষমেষ স্লট হারিয়ে ফেলল মিঠাই (Mithai)। জি বাংলার (Zee Bangla) টপার গার্লকেও‌ শেষমেষ জায়গা ছেড়ে দিয়ে সরে যেতে হচ্ছে। এই খবরে ভীষণ মন খারাপ ভক্তদের। তবে স্বস্তি একটা এই যে মিঠাই এখনই শেষ হয়ে যাচ্ছে না। বরং নতুন সময়ে নতুনভাবে শুরু হতে চলেছে হল্লাপার্টির গল্প। হ্যাঁ, স্লট চেঞ্জ হতেই বদলে যাচ্ছে মিঠাইয়ের গল্প।

প্রায় দু বছরের কাছাকাছি সময় জুড়ে বাংলা টেলিভিশনে রাজত্ব করেছে মিঠাই। এর মধ্যে পরপর ৫৬ বার টিআরপিতে টপারের আসন ধরে রেখেছিল সে। তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই মিঠাইকে নিয়ে ভক্তদের মনে রয়েছে দারুণ উচ্ছ্বাস। কিন্তু কত কয়েক মাস ধরেই মিঠাইয়ের আসন টালমাটাল। গত কয়েক সপ্তাহে তো সেরা ৫ এর থেকেও নিচে নেমে গিয়েছে এই ধারাবাহিক।

মিঠাইয়ের অধঃপতন মানতে পারছিলেন না ভক্তরা। নানাভাবে তারা গল্পে পরিবর্তন আনার দাবি তুলছিলেন। কিন্তু চ্যানেল কর্তৃপক্ষ শেষমেষ ধারাবাহিকের স্লটটাই বদলে দিল। এর মধ্যেও কিন্তু একটা সুখবর রয়েছে ভক্তদের জন্য। মিঠাইয়ের গল্পে এবার মহাপরিবর্তন আসছে। গল্প নাকি এগিয়ে যাবে বেশ কয়েকটা বছর।

শুধু তাই নয়, গল্প কয়েক বছর এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মিঠাই থেকে দুটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রও নাকি বাদ পড়তে চলেছেন। নতুন স্লটে মিঠাইয়ের নতুন গল্পে আর দেখা যাবে না দাদু-ঠাম্মিকে। গল্প কয়েক বছর এগিয়ে গেলে তাদেরকে মৃত দেখানো হবে। ইন্ডাস্ট্রি সূত্র মারফত এমনটাই জানা যাচ্ছে। তবে মিঠাইয়ের গল্পে নাকি আসছে এক বড়সড় টুইস্ট। কারণ এতদিনে ভক্তদের দাবি মেনে নাকি কাহিনীতে পা রাখতে চলেছে জুনিয়র সিধাই। তবে সবটাই রয়েছে ভক্তদের জল্পনার পর্যায়ে।

কিন্তু এসবের মাঝে জোর গুঞ্জন চলছে বিশ্বনাথ চক্রবর্তী এবং স্বাগতা বসুর অন্তর্ধান নিয়ে। নভেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকে মিঠাইতে তাদেরকে আর দেখা যাবে না। উল্লেখ্য, আগামী ১৪ ই নভেম্বর থেকে রাত ৮ টার পরিবর্তে সন্ধ্যে ৬ টার সময় মিঠাইয়ের সম্প্রচার হবে।

MITHAI

এদিকে ধারাবাহিক থেকে দাদু-ঠাম্মির বিদায়ের খবর শুনেই ভক্তদের মাথায় হাত। তারা ছিলেন মনোহরার বট গাছের মত। তারাই যদি ধারাবাহিকে না থাকেন তাহলে গল্প অসম্পূর্ণ থেকে যাবে। তাই অনেকেই বলছেন এর থেকে মিঠাই শেষ করে দেওয়াই ভাল ছিল। অনেকে জি বাংলাকে বয়কট করার হুমকিও দিচ্ছেন। তবে আগামী একমাসে ধারাবাহিকে যে বিস্তর পরিবর্তন আসতে চলেছে তা একপ্রকার নিশ্চিত।