ক্যালিফোর্নিয়া থেকে এসে রংমিস্ত্রীকে বিয়ে করলেন যুবতী; জানুন প্রেমের কাহিনি

প্রেমের বাঁশি একসঙ্গে বেজে উঠেছিল বাংলাদেশ আর ক্যালিফোর্নিয়ায়। সেই সুরে সাত সাগর আর তেরো নদী পেরিয়ে মিলে গেল দুটি মন। আর এই প্রেমে সমানে ইন্ধন জুগিয়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়া। আরও স্পষ্ট করে বললে, বিয়ের ঘটকালি করল ফেসবুক।

হ্যাঁ, ফেসবুকেই বারিশালের অপু মণ্ডলের সঙ্গে ক্যালিফোর্নিয়ার সারা কিউয়ের পরিচয় হয়। তারপর ঘণ্টার পড় ঘণ্টা কথা, ভিডিও কল। আর প্রেম। তারপর সাতপাকে বাঁধা পড়ার সিদ্ধান্ত। সেই টানেই যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া থেকে বরিশালে এসে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন সারা।

পাত্র অপু মণ্ডল, রঙমিস্ত্রি। আর পাত্রী সারা কিউ মেরিয়ান, সমাজকর্মী। একটি বৃদ্ধাশ্রমেও কাজ করেন তিনি। দুজনেই খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী। কিন্তু বিয়ে সেরেছেন হিন্দু মতে। আসলে হিন্দু বিয়ের আচার-অনুষ্ঠান খুব মিষ্টি তো, তাই। রীতিমতো গায়ে হলুদ, কনকাঞ্জলি, খই পুড়িয়ে বিয়ে করেছেন অপু-সারা। বিয়ের শেষে খ্রিষ্টান মতে আংটি বদলও হয়েছে। দু’দিন ধরে চলেছে যাবতীয় আচার অনুষ্ঠান। তারপর বান্দ রোডের একটি হোটেলে গিয়ে উঠেছেন নবদম্পতি।

গত ১৯ নভেম্বর সারা বাংলাদেশে আসেন। প্রথম। ২ বছর ধরে প্রেম চললেও, সাক্ষাতের সুযোগ ছিল না। বিমানবন্দরেই প্রথম চার-চোখের মিলন ঘটে। তারপর আর দেরি করেন নি দুজন। প্রয়োজনীয় জোগাড় সেরে নিয়ে ২২ নভেম্বর বসেন বিয়ের পিঁড়িতে। তবে ভিডিও কল মারফতই দুই পরিবারের পরিচয় হয়েছিল আগেই। তাঁরা বিয়েতে সম্মতিও দেন। তারপর সারার ভিসা পেতে যা দেরি।

Loading...


বাংলাদেশে আসার পর থেকে শাড়িই পড়ছেন সারা। শিখছেন বাঙালি রীতি-ভাষা। বাংলা বলছেন, তবে ভাঙা ভাঙা। বিয়েতেও পরেছিলেন একটি নীল শাড়ি। চুলের খোঁপায় ফুলের মালা। সারা বরিশালে আসার পর থেকেই লাজুক মুখে ঘুরে বেড়াচ্ছেন ৩ ভাইবোনের সবার ছোট অপু। বিয়ের দিন পরেছিলেন লাল পাঞ্জাবী আর সাদা পাজামা। গ্রুপ ফটো তোলার সময় অপু আঁকড়ে ধরলেন সারার হাত। মুখে হাসি নিয়ে সারাও অপুর গা ঘেঁষে দাঁড়ালেন। বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হল ইউরোপ আর এশিয়া।

Loading...