মাতাল হয়ে বাড়িতে এলো স্বামী, স্বামীকে শুটিয়ে লাল করে দিল স্ত্রী

কতটুকু নেশা করবে সেটাও যেন নিজের নিয়ন্ত্রণে থাকে। শখ মেটাতে একদিনের জন্য কোন জিনিস পান করা আর সেই জিনিসে বুঁদ হয়ে যাওয়ার পর নিজের নিয়ন্ত্রন হারিয়ে যাওয়া দুটোর মধ্যে আকাশ-পাতাল পার্থক্য আছে। তাই মদ্যপান করলেই সকলে মাতাল হন না। আবার কারোর কারোর ক্ষেত্রে দেখা যায় যে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রোজ-ই সে  মাতলামো করছে।

মদ খেয়ে মাতলামো করতে করতে স্ত্রীকে অত্যাচারের ঘটনাও হামেশাই ঘটতে দেখা যায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মাতাল স্বামীর কাছে  অত্যাচারিত হওয়া টাকেই  একজন স্ত্রী নিজের ভাগ্য বলে মেনে নেন। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রমও দেখতে পাওয়া যায়। স্বামীর মাতলামো কোমল চোখে না দেখে অনেকেই কড়া হাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। সাম্প্রতিককালের ভাইরাল ভিডিওটিই এর সব থেকে বড় প্রমাণ।

সচরাচর দেখা যায় নেশা করে মাতাল স্বামী স্ত্রীকে অত্যাচার করছেন। তবে ভাইরাল ভিডিওটি তে দেখা যাচ্ছে যে-স্বামী নেশা করে বাড়ি ফেরায়, স্ত্রী স্বামীকে লাঠিপেটা করতে শুরু করেন। ৩১ সেকেন্ডের ভাইরাল ঐ ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, স্ত্রী খুঁটির মত কিছুর সাথে দড়ি দিয়ে আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধেছেন  মদ্যপ স্বামীকে। তারপর লাঠি নিয়ে বেধড়ক মার শুরু করেছেন। তবে এরকম মারধরের পিছনে কারণ ও কিছুটা অনুমান করা যাচ্ছে ভিডিও দেখে।

ঐ দম্পতির মাটির মেঝে আর টিনের চাল দেখে বোঝাই যাচ্ছে তাদের আর্থিক অবস্থা খুব একটা ভালো নয়।নুন আনতে পান্তা ফুরানোর অবস্থায় যদি নেশার পিছনে স্বামী টাকা খরচ করেন তাহলে স্ত্রীর মাথা গরম হওয়ার ই কথা। ভাইরাল ভিডিওটি শেয়ার হওয়ার সময় ও ক্যাপশনে লেখা ছিল, “”স্বামীকে মদ্যপান করতে ধরে ফেলেছে স্ত্রী।” তাই স্বামীকে হাতেনাতে ধরার পর স্ত্রী  বজায় রেগে গিয়ে ধোলাই শুরু করেছেন। অন্তত এরপর  যদি তার স্বামীর চৈতন্য ফেরে।