কোন মাস্ক কতদিন পরবেন, কীভাবে মাস্ক পরিষ্কার করবেন

করোনা কালে মাস্ক ব্যবহার করাই হয়ে উঠেছে ‘নিউ নরমাল’। সংক্রমণ এড়াতে মাস্ক পরা অতি আবশ্যক। কিন্তু তাও কমছে না করোনার দাপট। দিনে দিনে বেড়েই চলেছে সংক্রমনের হার। করোনা ভাইরাস মূলত কোনো ব্যক্তির হাঁচি বা কাশির দ্বারা নির্গত ড্রপলটের মাধ্যমে অন্য কারোর দেহে প্রবেশ করে থাকে।

ফলে সংক্রমণ এড়ানোর একটাই উপায়, মাস্ক পরা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও সরকার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলেও অনেকেই তার তোয়াক্কা না করেই মাস্ক ছাড়াই বাইরে বেরিয়ে পরছেন। তবে এই মাস্ক ব্যবহার করা নিয়ে এখনও অনেক প্রশ্ন রয়েছে মানুষের মনে।

কোন মাস্ক সব থেকে বেশি কার্যকর?

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও চিকিৎসকদের মতানুসারে, ত্রিস্তরীয় মাস্ক বা সার্জিক্যাল মাস্ক সব থেকে বেশি গ্রহণযোগ্য। তবে বাড়িতে তৈরি সুতির মাস্ক ব্যবহার করার পরামর্শ দিচ্ছেন অনেক ডাক্তাররা। সংক্রামক ব্যাধি চিকিৎসক অমিতাভ নন্দী এই বিষয়ে জানান, রাস্তায় বিক্রি হওয়া সুতির মাস্ক হাঁচি বা কাশির সময়ে কেবল থুতু বা লালা আটকাতে সক্ষম। এই মাস্ক গুলি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুসারে একেবারেই তৈরি করা হয় না। তাই সরকারকে এইসকল মাস্ক গুলির গুণমানের দিকে নজর দিতে হবে। তবে বাড়িতে হু-এর গাইডলাইন মেনে ত্রিস্তরীয় মাস্ক তৈরি করে ব্যবহার করা নিরাপদ।

সার্জিক্যাল মাস্কও সংক্রমণ রুখতে খুবই কার্যকর। এই মাস্ক গুলি ডিসপোজেবল হওয়ায়ে একবার ব্যবহৃত মাস্ক ফেলে দেওয়া যায়। বিশেষত ফ্রন্টলাইন স্বাস্থ্য কর্মীদের ও চিকিৎসকদের জন্য এই মাস্ক ব্যবহার করার পরামর্শ দিচ্ছে বিশেষজ্ঞরা। তবে সংক্রমণ এড়াতে N-95 ও FFP-2 মাস্ক সব থেকে বেশি কার্যকর বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। N-95 মাস্ক ৯৫ শতাংশ এবং FFP-2 মাস্ক ৯৪ শতাংশ সুরক্ষা দেয়। তবে সম্প্রতি ভালব যুক্ত N-95 মাস্কের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে কেন্দ্রীয় সরকারের সতর্কবাণীতে।

কখন কোন মাস্ক ব্যবহার করবেন?

জনস্বাস্থ্য বিষয়ক চিকিৎসক সুবর্ণ গোস্বামী জানিয়েছেন, রাস্তায় বেরোলে ত্রিস্তরীয় সার্জিকাল বা মেডিক্যাল মাস্ক ব্যবহার করা জরুরি। তবে করোনা উপসর্গ দেখা দিলে N-95 বা FFP-2 মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। বেশি ভিড় এলাকাতে ত্রিস্তরীয় মাস্ক কাজ করবে না। কাপড়ের মাস্ক ব্যবহার করলে তা অবশ্যই ভালোভাবে ডিটারজেন্টে কেচে নিতে হবে। একই মাস্ক রোজ রোজ ব্যবহার করা যাবে না। যেকোনো মাস্কই ধুয়ে নিয়ে তিন দিন অন্তর করে ব্যবহার করুন। সপ্তাহে ৫ টি N-95 মাস্ক ব্যবহার করার পরামর্শ দিচ্ছেন ডাক্তাররা। সব সময়ে নিজের মাস্ক আলাদা করে খোলা জায়েগায় রাখতে হবে।

কীভাবে মাস্ক পরিষ্কার করবেন?

হু-এর নীয়মাবলি অনুযায়ী, ১ শতাংশ হাইপোক্লোরাইট দ্রবণ বা এক লিটার জলে ৩০ গ্রাম ব্লিচিং পাউডার গুলে মাস্কগুলোকে ন্যূনতম ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে নিয়ে শুকিয়ে নিতে হবে। সুতির মাস্কের ক্ষেত্রে সাবান জল কিংবা ডিটারজেন্ট দিয়ে ধুয়ে ব্যবহার করতে পারেন। তবে N-95 মাস্ক কোনও রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে না ধোয়াই উচিত। এই মাস্ক গুলিকে জলে ধুয়ে শুকনো কাগজের ঠোঙার মধ্যে নূন্যতম ৯৬ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে।

মাস্ক ব্যবহার কয়েকটি নিয়ম

  • বাড়ির বাইরে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক। মাস্ক ছাড়া বাইরে বেরোনো যাবে না।
  • মাস্ক নাক থেকে থুতনি পর্যন্ত ভালো করে ঢাকা দিয়ে পড়তে হবে। মাস্ক পড়ার পর মাস্কের সামনের ও ভিতরের অংশে হাত দেবেন না। আর বাইরে বেরোলে যখন তখন মাস্ক খোলা যাবে না।
  • সংক্রমণ এড়াতে ত্রিস্তরীয় বা সার্জিক্যাল মাস্কই বেশি গ্রহণযোগ্য।
  • মাস্ক ব্যবহার করার পর তা অবশ্যই ভালোভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে।
  • ভিড় এলাকায় N-95 বা FFP-২ মাস্ক ব্যবহার করুন।