কোন দেশে কতদিন পর্যন্ত থাকবে করোনা, কি বলছে সমীক্ষা

ডিসেম্বরে চিনের উহান প্রদেশে প্রথম করোনা আক্রান্তের খবর মেলে। তখন অবশ্য বোঝা যায়নি যে করোনা সারা বিশ্বকে গ্রাস করার পরিকল্পনা করছে। এখনও পর্যন্ত মোট ২০৯ টি দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লাখের বেশি। মৃত্যু হয়েছে ৮২ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্তের।

কমিউনিটি স্তরে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমন। আর্থিকভাবে শক্তিশালী দেশগুলিও পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে। পর্যাপ্ত বেড, ভেন্টিলেশনের অভাবে ধুঁকছে কয়েকটি দেশ। অর্থনৈতিক ভাবেও ভেঙে পড়ছে দেশগুলি। সারা বিশ্ব এখন প্রহর গুনছেন মিরাকেলের।

হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন আসলে কি, এই ওষুধ দিয়ে কি করোনা আটকানো সম্ভব

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এর আগেই দেশবাসীর উদ্দ্যেশ্যে বলেছেন, “ বাড়িতে থাকুন,বাড়িতে থাকুন আর বাড়িতে থাকুন” পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাতজোড় করে অনুরোধ করেছেন বাড়িতে থাকুন। করোনা যেভাবে বিস্তার করছে তাতে কালকের পরিস্থিতি কি হবে তা কেউ জানে না। করোনা থেকে দেশ কবে মুক্তি পাবে এর উত্তরও জানা নেই কারোর।

আরও পড়ুন :- হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন কি, এই ওষুধ দিয়ে কি করোনা আটকানো সম্ভব

করোনার ভয়াবহতা ছড়িয়ে পড়তেই সারা বিশ্বের গবেষকরা এর প্রতিষেধক তৈরীতে ঝাঁপিয়ে পড়েন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত করোনার কোনো প্রতিষেধক আবিস্কার করা যায়নি। অন্যদিকে যুক্তরাস্ট্রের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান বিসিজি (বোস্টন কনসাল্টিং গ্রুপ) করোনা পরিস্থিতির ভবিষ্যৎ নিয়ে আগাম পূর্বাভাস দিয়েছেন।

পূর্বাভাস বলছে, সহসা এ পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ পাচ্ছে না বিশ্ব। বিশ্বের প্রধান অর্থনীতির দেশগুলোয় সংক্রমণের তীব্রতা এ বছরের জুলাই পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে। প্রতিষ্ঠানটি বলে, আমেরিকা যুক্তরাস্ট্রের করোনা সংক্রমন পরিস্থিতি মে মাসের প্রথম সপ্তাহের দিকে কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।

আরও পড়ুন :- কত ডিগ্রি তাপমাত্রায় জব্দ হতে পারে করোনা, কি বলছেন চিকিৎসকরা

জার্মানিতে মে মাসের প্রথম সপ্তাহে করোনা পরিস্থিতি জটিল পর্যায়ে যাবে। এপ্রিলের তৃতীয় সপ্তাহে ইতালিতে করোনা পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠবে। মে মাসের প্রথম সপ্তাহে কানাডায় করোনা সংক্রমনের সংখ্যা বাড়বে। বেলজিয়ামে মে মাসের তৃতীয় সপ্তাহে করোনা সংক্রমন সর্বোচ্চ স্তরে পৌঁছবে। বিসিজির পূর্বাভাস অনুযায়ী, জুনের তৃতীয় সপ্তাহে ভারতে করোনা পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠবে।