স্ত্রীর সাফল্যে হিংসা নাকি পরকীয়া, কেন ভেঙেছিল প্রসেনজিৎ-দেবশ্রীর সম্পর্ক

স্ত্রীর সাফল্যে হিংসা নাকি পরকীয়া, কেন দেবশ্রীর সঙ্গে ভেঙেছিল প্রসেনজিতের সম্পর্ক

What are the Reason behind Prosenjit Chatterjee and Debashree Roy Divorce

টলিউডে (Tollywood) সম্পর্ক ভাঙ্গা-গড়ার খেলা লেগেই রয়েছে। টলিউডের বহু নায়ক-নায়িকার অনস্ক্রিন সম্পর্কের রসায়ন অফস্ক্রিনে বিয়ে পর্যন্ত গড়িয়েছে। আবার কখনও কখনও তাদের সম্পর্কের মেয়াদ ছিল মাত্র কয়েক মাস কিংবা কয়েকটা দিন। যেমন টলিউড অভিনেতা প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী (Prasenjit Chatterjee) এবং অভিনেত্রী দেবশ্রী রায়ের (Debashree Roy) বিয়ের সম্পর্ক টিকে ছিল মাত্র ৩ বছরের জন্য।

টলিউডের ইন্ডাস্ট্রির নামে পরিচিত প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী তিনবার বিয়ে করেছেন তা সকলেই জানেন। প্রথম জীবনে দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে তার কেমিস্ট্রি যেমন অনস্ক্রিনে দর্শকদের মনে ছাপ ফেলেছিল, তেমনই এই সম্পর্ক তাদের মনের গভীরেও ছাপ ফেলে। বিয়ে পর্যন্ত গড়িয়েছিল এই সম্পর্ক।

Debashree-Roy

সালটা ছিল ১৯৯২। তারকাদের সমাবেশের মাঝে মহা ধুমধাম করেই প্রসেনজিত ও দেবশ্রীর চার হাত এক হয়। তবে বিয়ের পরপরই তাদের মধ্যে অশান্তি শুরু হয়। শেষমেষ অশান্তি এমন তুমুল পর্যায়ে পৌঁছায় যে বিবাহ বিচ্ছেদই তাদের সম্পর্কের পরিণতি হয়। প্রসেনজিৎ-দেবশ্রীর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যত তখন ছিল টলিউডের হট টপিক যা নিয়ে এখন আলোচনা হয়। একবার একটি সাক্ষাৎকারে প্রসেনজিৎকে নিয়ে প্রশ্ন করা হলে নাকি রেগে গিয়েছিলেন নায়িকা। তিনি সরাসরিই বলে দেন প্রসেনজিৎকে নিয়ে কোনও প্রশ্নের জবাব দিতে পারবেন না।

ছোটবেলায় তারা ছিলেন খুব ভাল বন্ধু, বড় হয়ে সহ-অভিনেতা থেকে প্রেমিক, সবশেষে প্রসেনজিৎ ছিলেন দেবশ্রীর স্বামী। আচমকে এমন কি ঘটল যে তাদের সম্পর্কে এত তিক্ততা এসে যায়? এর উত্তরে নানা মুনির নানা মত রয়েছে। কেউ বলেন, ‘১৯ শে এপ্রিল’ ছবির জন্য দেবশ্রী জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার পর থেকেই তাদের সংসারে অশান্তি আরম্ভ হয়।

Debashree_Roy_in_Juddho

প্রসেনজিৎ নাকি স্ত্রীর সাফল্য মেনে নিতে পারেননি। এই ছবির পর আর কোনও ছবিতেই তাদের জুটিকে দেখা যায়নি। আবার কেউ বলেন দেবশ্রী নাকি বিবাহিত থাকতেই প্রাক্তন ক্রিকেটার সন্দীপ পাটিলের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। তাই তাদের সম্পর্ক ভেঙেছে।

আবার এও শোনা যায় প্রসেনজিৎ নাকি দেবশ্রীকে বিয়ের পর কাজ ছেড়ে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। অভিনয় ছেড়ে সংসার এবং মাতৃত্বের উপর জোর দিতে বলেন দেবশ্রীকে। তবে সেই সময় কেরিয়ারের শীর্ষে থাকা নায়িকার পক্ষে এই প্রস্তাব মেনে নেওয়া সম্ভব ছিল না। যার অবসম্ভাবী ফল হয়েছিল ডিভোর্স। পরে প্রসেনজিৎ আবার বিয়ে করলেও দেবশ্রী আর বিয়ে করেননি।