রাজ্যের ১৫ জেলায় টানা ৫ দিন বজ্র বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস

সকাল থেকেই কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা। তার ওপরেই ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল বাঙালি।আবহাওয়া দফতর সূত্র অনুসারে সোমবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক তাপমাত্রা থেকে দুই ডিগ্রি বেশি।গতকাল অর্থাৎ রবিবার তা ছিল ২৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অন্যদিকে আজকে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৮৭% থেকে ন্যুনতম ৪৭ শতাংশের মধ্যেই আছে। প্যাচপ্যাচে গরমে নাজেহাল বাঙালি।

একদিকে আসামে আছে ঘূর্ণাবর্ত এবং আসাম ও মধ্যপ্রদেশ পর্যন্ত বিস্তৃত নিম্নচাপ অক্ষরেখা যা গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ঝাড়খণ্ড ছত্রিশগড়ের ওপর দিয়ে বিস্তৃত। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যের বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। বঙ্গোপসাগর থেকে রাজ্যে ঢুকছে জলীয় বাষ্প এবং অন্যদিকে পারদ ঊর্ধ্বমুখী।এসবের সাথেই আবহাওয়া সূত্র থেকে জন্য যায় উত্তরবঙ্গ ও সংলগ্ন বাংলাদেশে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। এর জন্য আগে থেকেই উত্তরবঙ্গে সোমবার পর্যন্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল।সব মিলিয়ে আগামী দিনগুলোতে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে রাজ্য জুড়ে।আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর যে সপ্তাহ জুড়ে ঝড় বৃষ্টি হতে পারে রাজ্য জুড়ে ।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৯ থেকে ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত কলকাতায় বজ্রবিদ্য়ুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টির সঙ্গে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। রবিবার কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ায় বৃষ্টির সঙ্গে ঘণ্টায় ৫০-৬০ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে।

সোমবার বৃষ্টির পরিমাণ কম থাকলেও বইবে ঝড়ো হাওয়া। দু এক পশলা হালকা থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে সোমবার যার পরিমাণ বাড়বে মঙ্গলবার থেকে । মঙ্গলবার ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হওয়ার সাথেই রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে।

বুধবার থেকে ঝড়ের সাথে সাথে বাড়বে বৃষ্টি। এমনকি কিছু কিছু জায়গায় ভারী থেকে আতিভারী বৃষ্টির (৭০-১১০ মিলিমিটার) সম্ভাবনা আছে। রাজ্যের ২১ জেলায়ই কম বেশী বৃষ্টিপাত হবে। বৃহস্পতিবার থেকে আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে।

উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং ,আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার,মালদা, জলপাইগুড়িতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে এবং দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম মুর্শিদাবাদ নদিয়া পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। ঝাড়গ্রাম, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে কালবৈশাখী হতে পারে। অন্যান্য সব জেলাতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে ।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার রাত থেকে উত্তর পশ্চিম ভারতে নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকবে যার প্রভাবে জম্মু কাশ্মীর লাদাখ হিমাচল প্রদেশ উত্তরাখন্ড এবং উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলি বৃষ্টি হবে। শিলাবৃষ্টি বা তুষারপাত হওয়ার সম্ভাবনাও আছে।