বাড়িতে বসেই ডাউনলোড করা যাবে Voter কার্ড, জেনে নিন কীভাবে

Here is how to Get Your Lost Voter Card Online

ভোটের আগেই পেয়ে যাবেন ডিজিটাল ভোটার কার্ড(Digital Voter Card)। বাড়িতে বসে শুধুমাত্র ফোন নম্বর দিয়েই আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন আপনার ই ভোটার কার্ড। জাতীয় ভোটার দিবসে এই অভিনব উদ্যোগ চালু করলো নির্বাচন কমিশন যার নাম ই এপিক (E-Epic)।

সামনেই দেশের পাঁচটি রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। এই রাজ্যগুলির নির্বাচন থেকেই ডিজিটাল ভোটার কার্ডের ব্যবহার শুরু হয়ে যেতে পারে। এ ছাড়া, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অনুমোদন দিলে নতুন আবেদনকারীরা ডিজিটাল ফর্ম্যাটেও ভোটার কার্ড পাবেন। তা দেখিয়েও ভোট দিতে কোনও সমস্যা হবে না।

E-EPIC  কী?

নির্বাচন কমিশন জানাচ্ছে এটি হলো ভোটার কার্ডের (Voter Card) অনলাইন ভার্সন যার কার্যকারিতা ভোটার কার্ডের মতনই। ভোটদান ছাড়াও যেসব ক্ষেত্রে ভোটারকার্ড গ্রহণ করা হয় সেই সব ক্ষেত্রেই এই ই-এপিক (E-EPIC ) গ্রহণ করা হবে। এই ই এপিকে থাকা দুটি কিউ আর কোডের মধ্যে একটিতে ভোটারের নাম ও অন্য তথ্য ও অন্যটিতে বুথ নম্বর, পার্ট নম্বর, ভোটার সংখ্যা থাকবে।

বর্তমান ভোটার কার্ড কি বাতিল হবে?

না, একইসাথে দু রকম পদ্ধতিও চালু থাকবে। সাধারণ মানুষ সাধারণ ভোটার কার্ড এবং  ডিজিটাল ভোটার কার্ড দুটোই ব্যাবহার করতে পারবেন।

ই-এপিক কীভাবে ডাউনলোড করবেন?

২৫ শে জানুয়ারি থেকে ৩১সে জানুয়ারি পর্যন্ত বাংলার নতুন ভোটাররা, যারা নির্বাচন কমিশনের ৬ নম্বর ফর্ম পুরণ করে ভোটার কার্ডের জন্য আবেদন করেছিলেন তারা এই ডিজিটাল ভোটার কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। বৈধ মোবাইল নম্বর দিয়ে এই কার্ড নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

দ্বিতীয় পর্যায় ১ ফেব্রুয়ারি থেকে যেসব পুরোনো ভোটারদের ভোটার কার্ডের সাথে বৈধ মোবাইল নম্বর নথিভুক্ত আছে তাদের ডিজিটাল ভোটার কার্ড দেওয়া হবে।

অনলাইনে EPIC কার্ড ডাউনলোড পদ্ধতি?

ভোটার হেল্পলাইন অ্যাপ এবং ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এই EPIC কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন ভোটাররা। সাইট দু’টি হল, https://voterportal.eci.gov.in ও https://www.nvsp.in। কার্ড হারিয়ে যাওয়া, ঠিকানা পরিবর্তন-সহ যাবতীয় কাজ এবার থেকে অনলাইনেই করা যাবে বলে জানিয়েছে কমিশন। ভোটের মুখে কোনও কারণে কার্ড হাতে এসে না পৌঁছলে নতুন ভোটাররা এই ডিজিটাল কার্ডের সুবিধা নিতে পারবেন।

আরও পড়ুন : Voter কার্ড হারিয়ে গেছে? এই ২টি জিনিস সঙ্গে থাকলে চিন্তা নেই

উন্নত প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এবার কমিশন চালু হতে চলেছে রিমোট ভোটিং ব্যবস্থা। দেশের যে কোনও প্রান্তে বসেই ভোট দেওয়ার সুযোগ মিলবে। ভবিষ্যতের কথা ভেবে নির্বাচন প্রক্রিয়াকে আরও সহজবোধ্য করে তুলতেই এমন পদক্ষেপ বলে জানিয়েছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা। দ্রুতই এই পরিষেবার মহড়া শুরু হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন : বাড়িতে বসেই সংশোধন করুন ভোটার কার্ড, এইভাবে পাল্টে নিন ছবিও