মশলা বাটাবাটির ঝামেলা নেই, রইল পেঁয়াজ-রসুন ছাড়া সম্পূর্ণ নিরামিষ কাশ্মীরি পনিরের রেসিপি

লাগবে না বাঁটা মশলা, কম সময়ে পেঁয়াজ রসুন ছাড়া রাঁধুন কাশ্মীরি পনিরের দুর্দান্ত রেসিপি

লক্ষ্মীপুজো উপলক্ষে বাঙালির ঘরে ঘরে আজ উৎসবের আয়োজন চলছে। দুর্গাপুজোর পর বাঙালির সব থেকে বড় উৎসব কোজাগরী লক্ষ্মী পুজোতে নিরামিষ রান্নার ভোগ নিবেদন করা হবে মাকে। তাই আজ এই প্রতিবেদনে রইলো পেঁয়াজ রসুন ছাড়া সম্পূর্ণ নিরামিষ কাশ্মীরি পনির (Kashmiri Paneer Recipe) তৈরির রেসিপি। এই রান্নার বিশেষত্ব হল এই যে এতে বাটা মশলার ব্যবহার হবে না। তাই চটজলদি খুব সহজে রান্নাটা করে নিতে পারবেন। চট করে শিখে নিন এই দারুণ সুস্বাদু রেসিপি।

কাশ্মীরি পনির তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ : এই রান্নার জন্য খুব একটা বেশি উপকরণও লাগে না। দারুন স্বাদের এই রেসিপির জন্য প্রয়োজন পড়বে পনির, দুধ, মৌরি গুঁড়ো, শুকনো আদার গুঁড়ো, তেজপাতা, গোটা জিরে, শা মরিচের গুঁড়ো, দারচিনি, লবঙ্গ, ছোট এলাচ, ঘি, পরিমাণমত নুন, সাদা তেল, সামান্য চিনি।

কাশ্মীরি পনির রান্নার পদ্ধতি : প্রথমেই পনিরগুলোকে ছোট ছোট চৌকো আকারে টুকরো করে কেটে নিতে হবে। এবার কড়াইতে এক চামচ সাদা তেল এবং এক চামচ ঘি গরম করে পনিরের এই টুকরোগুলোকে লালচে করে ভেজে তুলে নিতে হবে। পনিরের টুকরোগুলো ভাজা হয়ে গেলে আলাদা একটি পাত্রে তুলে রাখুন।

এবার অন্য একটি পাত্রের মধ্যে এক কাপ গরম জল নিয়ে তার মধ্যে এক চামচ নুন গুলে রেখে দিন। ভাজা পনিরের টুকরোগুলো এই জলের মধ্যে রেখে দিন। এতে পনির নরম তুলতুলে হয়। খেতে আরও বেশি স্বাদ হবে। এই জলটাও পরে রান্নার কাজে লেগে যাবে। এবার রান্নার মূল ধাপে কড়াইতে এক চামচ সাদা তেল গরম করুন।

এই গরম তেলের মধ্যে ফোড়ন হিসেবে দারচিনি, লবঙ্গ, ছোট এলাচ একটু থেঁতো করে নিয়ে দিয়ে দিন এবং কয়েক সেকেন্ড নেড়েচেড়ে নিন। তারপর যখন খুব সুন্দর গন্ধ বের হবে তখন দুই থেকে তিন চামচ দুধ দিয়ে দিন এর মধ্যে। এবার এরমধ্যে মৌরি গুঁড়ো এবং শুকনো আদার গুঁড়ো মিশিয়ে কিছুক্ষণের জন্য মশলা কষিয়ে নিন। তারপর এর মধ্যে এক কাপ মত দুধ দিয়ে দিন। সেই সঙ্গে পনির ভেজানো কিছুটা নুন জল এর মধ্যে দিয়ে দিন।

এই সময় রান্নাতে পরিমাণ অনুসারে নুন দিয়ে দিতে হবে। সবটা ফুটে উঠলে গ্যাসের আঁচ একদম কমিয়ে নিয়ে এর মধ্যে পনিরের টুকরোগুলো দিয়ে দিন। তারপর এর সঙ্গে সামান্য চিনি এবং শা মরিচের গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে। এবার ৩-৫ মিনিট রান্না হতে দিতে হবে। তাহলেই খাওয়ার জন্য একেবারে তৈরি হয়ে যাবে কাশ্মীরি পনিরের এই দুর্দান্ত রেসিপি।