“ভারত অত্যন্ত শক্তিশালী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে” মুখ খুললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

স্বাধীনতার পর কাশ্মীর উপত্যকায় ভারতীয় সেনার ওপর সবথেকে বড় হামলা হয় ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামাতে। তারপর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ক্ষোভে, বিরক্তিতে ফেটে পড়ে গোটা দেশ। কূটনৈতিকভাবে পাকিস্তানকে একঘরে করে দেওয়ার প্রক্রিয়াও ভারত শুরু করে আন্তর্জাতিক মহলে।

pulwama-terror-attack-india-hikes-customs-duty-to-200

পাকিস্তানের থেকে ‘মোস্ট ফেভারড নেশন’-এর তকমা ছিনিয়ে নেয় ভারত। শুধু তাই নয়, পাকিস্তানের পণ্যের ওপর ২০০ শতাংশ বেশি শুল্ক চাপানোর কথাও ঘোষণা করেছে নরেন্দ্র মোদীর সরকার।

জওয়ানদের শহিদ হওয়ার পর পেরিয়ে গিয়েছে আটটা দিন। শহিদ হয়েছেন ৪০ জনের বেশি জওয়ান। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সমালোচনায় সরব হয়েছে গোটা বিশ্ব। এমন সময়ই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মুখ খুললেন।

পুলওয়ামার হামলাকে ‘ভয়ানক’ বলে আগেই বর্ণনা করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আবারও এ ইস্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন ট্রাম্প। শুক্রবার ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক নিয়ে ফের মুখ খুলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ‘‘ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে বর্তমান পরিস্থিতি খুবই ভয়ঙ্কর’’,এমনই মন্তব্য করেছেন ট্রাম্প।

তিনি বলেন, “ভারত এখন অত্যন্ত শক্তিশালী কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করার চেষ্টা করছে। এই হানায় ভারতের প্রায় ৫০ জন মারা গিয়েছে। আমি এই অনুভূতিটা বুঝতে পারি”। তিনি জানান, তাঁর প্রশাসন এই দুই দেশের সঙ্গেই কথা চালাচ্ছে। “আমরা কথা বলছি। বহু মানুষ কথা বলছেন। সকলেই চান এই ব্যাপারটির একটি ইতিবাচক নিষ্পত্তি হোক। দু’পক্ষেরই অত্যন্ত ভারসাম্য রেখে চলা দরকার। যে ঘটনা ঘটেছে, তারপর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে নতুন করে বহু সমস্যার জন্ম দিয়েছে”, বলেন ট্রাম্প।

Read More : বড়সড় ঝটকা খেলো পাকিস্তান, ব্ল্যাকলিস্টে রেখে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা আমেরিকার!

ভারত-পাক সম্পর্ক নিয়ে কথা বলতে গিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্তব্য, ‘‘আমরা আলোচনা চালাচ্ছি। অনেকেই এ নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছে। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে অনেক সমস্যা রয়েছে। দু’পক্ষেরই অত্যন্ত ভারসাম্য রেখে চলা দরকার।’’

অন্যদিকে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করল ট্রাম্প সরকার। পাকিস্তানকে যে ১.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সাহায্য করত আমেরিকা, তা রদ করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ প্রসঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘‘পাকিস্তানকে আমরা ১.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আর্থিক সাহায্য করতাম। আপাতত আর করছি না। কারণ ওরা আমাদের সঙ্গে সহযোগিতা করছে না। একইসঙ্গে আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় বসব।’’