শুটিং ছেড়ে পরিচালকের সঙ্গে খেলছে গুনগুন, রেগে আগুন সৌজন্য, রইলো ভিডিও

করোনার কারণে টলিউডে (Tollywood) শুটিং দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। শুটিং ফ্লোরে সহ-অভিনেতা এবং সহ অভিনেত্রী যারা, একে অপরের সঙ্গে তাদের দেখা-সাক্ষাৎ তেমন হচ্ছিলই না। বাড়ি থেকেই এতদিন কোনওরকমে কাজ চলেছে। তবে অবশেষে নতুন করোনা বিধি লাগু হওয়াতে দীর্ঘ প্রায় ১ মাস বাদে আবার শুটিং ফ্লোরে ফিরে আসতে পেরেছেন তারা। এতদিন বাড়িতে থেকে একঘেয়ে জীবন কাটাতে কাটাতে তারাও রীতিমতো অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন! অবশেষে যেন ঘরে ফেরার পালা।

সত্যিই তো, কলাকুশলীদের কাছে তো শুটিং ফ্লোর তাদের আরেকটা বাড়ির মতোই, তাই না? যে জায়গায় প্রায় ১৪-১৫ ঘণ্টা কাটাতে হয়, সেখানে কাজের ফাঁকে ফাঁকে একটু আড্ডা, হৈ-হুল্লোড়, গল্পগুজব, হাসি-মজা তো চলতেই পারে। তার উপর আবার এতদিন বাড়িতে বন্দি থেকে থেকে হাঁপিয়েই উঠেছিলেন কলাকুশলীরা। এক মাস বাদে নিজের স্থানে ফিরতে পেরে অবশেষে যেন হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন তারা। এমনই একটি দৃশ্য সম্প্রতি ধরা পরলো “খড়কুটো”র (Khorkuto) সেটে।

অন্যান্য ধারাবাহিকের মতো “খড়কুটো”র শুটিংও শুরু হয়েছে। শুটিং ফ্লোরে পৌঁছে গিয়েছেন কলাকুশলীরা। শুটিং চলছে জোর কদমে। আর তার ফাঁকেই চলছে নায়িকার সঙ্গে পরিচালকের ইকির মিকির খেলা! হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন। “গুনগুন” অর্থাৎ অভিনেত্রী তৃণা সাহা (Trina Saha) শুটিংয়ের মধ্যেই পরিচালককে ধরে এনে তার সঙ্গে খেলতে বসে গিয়েছেন। বিছানার উপর বসে বসেই চলছে খেলা। আর এই খেলা দেখে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে বিরক্ত “সৌজন্য”!

শুটিংয়ের ফাঁকে “খড়কুটো” ধারাবাহিকের সেটে কি চলে, তা দর্শককে জানানোর জন্য তৃণা এবং পরিচালকের ইকির মিকির খেলার এই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি করেছেন “সৌজন্য” অর্থাৎ কৌশিক (Koushik Roy) স্বয়ং। বিরক্তির ভঙ্গিমাতে তিনি বলেন, “কোনও কাজ নেই, ডিরেক্টর আর আর্টিস্ট ফ্লোরে গেম খেলছে”! অবশ্য এই কথাটি যে তিনি নিতান্তই মজার ছলেই বলেছেন, তা আর কারোর বুঝতে বাকি নেই।

Remove term: Koushik Roy Koushik Roy

“গুনগুন”কে টিভির পর্দায় যেমন প্রাণোচ্ছল, শিশুসুলভ, হাসিখুশি দেখেন দর্শক, বাস্তবেও কিন্তু অভিনেত্রী তৃণা তেমন চরিত্রেরই মানুষ। পর্দাই “গুনগুনে”র দুষ্টুমি এবং শিশুসুলভ আচরণে মজে থাকেন দর্শক। আর শুটিংয়ের বাইরেও তিনি তার খুনসুটি দিয়েই সেটের প্রতিটি সদস্যকে মাতিয়ে রাখেন। শট না থাকলে এর আগেও তৃণাকে সেটে বসে ইনস্টাগ্রামের রিল ভিডিও বানাতে দেখা গিয়েছে বা সহ-অভিনেতার সঙ্গে আড্ডা দিতে দেখা গিয়েছে। এবার সরাসরি পরিচালককে ডেকে এনে সব কাজ বাদ দিয়ে খেলতে বসেছেন তৃণা।

তৃণা নিজের ইনস্টাগ্রাম ওয়ালে এই ভিডিওটি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, “এইভাবেই আমি কাজের ফাঁকে আমার ছেলেবেলার দিনগুলো আরেকবার ফিরে দেখি। আর আমার পরিচালককেও এইসব সহ্য করতে হয়। ছেলেবেলায় তোমাদের প্রিয় খেলা কোনটা ছিল বন্ধুরা?” বলা বাহুল্য, শুটিং সেটে কলাকুশলীদের এমন মজা করতে দেখে দর্শকরাও বেশ মজা পেয়েছেন। পোস্টের নিচে কমেন্ট বক্সে তারা সেই কথা জানিয়েছেন।