কেবল টিভি নিয়ে TRAI-এর নতুন নির্দেশিকা! হাতে আর কদিন সময়?

45

আগে টিভি দেখার জন্য গ্রাহকদের প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট টাকা প্রদান করতে হত কেবল অপারেটর অথবা ডিটিএইচ সংস্থাগুলিকে। ওই নির্দিষ্ট টাকার বদলে অনেকগুলি চ্যানেল দেখতে পেতেন গ্রাহকেরা। ডিটিএইচ ব্যবহারকারীরা রিচার্জ না করলেও ফ্রি টু এয়ার চ্যানেলগুলি দেখতে পেতেন। সেই নিয়ম বদলে ট্রাই নিয়ে এসেছে একটি নতুন নিয়ম। সেই নিয়ম অনুযায়ী ট্রাই-এর বক্তব্য এই নতুন নিয়মে দর্শকদের চ্যানেল বেছে নেওয়ার স্বাধীনতা রয়েছে পূর্ণাঙ্গ।

যেটা আগেই বলা হচ্ছিল অর্থাৎ গত বছর ডিসেম্বর মাসে যা বলা হয়েছিল, ফ্রী বলে আর কোন চ্যানেল থাকছে না, কিছু না কিছু দেখার জন্য মাসে অন্ততপক্ষে ১৫৩ টাকা গ্রাহককে দিতেই হবে। এই ১৫৩ টাকার মধ্যে যে ১০০ টি ফ্রি টু এয়ার চ্যানেল দেখতে পাওয়া যাবে সেগুলি দর্শকদের আগামী ৩১ শে জানুয়ারির মধ্যেই বেছে নিতে হবে। আর এই বেছে নেওয়ার সময় আদালতের রায়ে আরও বেশ কয়েকদিন বাড়লো।সূত্রের খবর, জিএসটি সহ এই ১৫৩ টাকার চ্যানেল গুলির মধ্যে কোন এইচডি চ্যানেল থাকছে না। অন্যদিকে বেশ কিছু খবরে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী ওই টাকাতে এইচডি চ্যানেলও বেছে নিতে পারেন দর্শকরা বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু একটি এইচডি চ্যানেলকে দুটি নন এইচডি অর্থাৎ এসডি চ্যানেলের সমান গণ্য করা হবে। যদিও এ বিষয়ে দর্শকেরা তাদের সংস্থার সাথে আগেই যোগাযোগ করে নিতে পারেন।

অন্যদিকে এই নতুন নিয়মের বিষয়টি সকল দর্শকদের জানানোর জন্য প্রায় ১২ ই জানুয়ারি এসএমএস প্রদান করেন দেশের গ্রাহকদের মোবাইল নাম্বারে। এই এসএমএস এর মাধ্যমে ট্রাই দর্শকদের এই নতুন নিয়মের বার্তা প্রদান করছে।

এছাড়াও ট্রাইয়ের তরফে দুটি হেল্পলাইনও চালু করা হয়েছে 011-23220209 এবং 011-23237922.

ট্রাই-এর তরফ থেকে এটাও জানানো হয়েছে যে দর্শকদের একটি চ্যানেলের জন্য সর্বাধিক ১৯ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। এছাড়াও একটি প্যাকেজে অনেকগুলি চ্যানেল থাকলেও প্রতিটি চ্যানেলের আলাদা আলাদা মূল্য নির্ধারণ করতে হবে। যাতে করে দর্শকেরা স্বতন্ত্রভাবে তাদের পছন্দের চ্যানেলটি বেছে নিতে পারে। কেবল অপারেটর অথবা ডিটিএইচ সংস্থাগুলি যেন দর্শকদের উপর কোন রকম বাধ্যবাধকতা চাপিয়ে দিতে না পারে। আগে এই নিয়ম ২৯ শে ডিসেম্বর শুরু হওয়ার কথা থাকলেও পরে তা পয়লা ফেব্রুয়ারি করা হয়েছে, সেই সময় পরিবর্তন করে করা হয় ১৮ই ফেব্রুয়ারি। আদালতের রায়ে করা হয়েছিল ১৮ই ফেব্রুয়ারি। তবে পুনরায় সময়সীমার পরিবর্তন হয়ে বেড়ে দাঁড়ালো ৩১ শে মার্চ।

আরও পড়ুন : কেবল রিচার্জ করার দরকার নেই! ফ্রীতে টিভি দেখুন এইভাবে

TRAI এর নতুন নিয়ম বা নির্দেশ কার্যকর করতে এখনও প্রস্তুত নয় কেবল সংগঠনগুলি। এই কারনে সময়সীমা বৃদ্ধির আবেদন জানিয়ে পূর্বে কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন তাঁরা। কেবল অপারেটরদের সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে আজ মঙ্গলবার উচ্চ আদালত ট্রাই এর নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ দেয়। বলা হয়, ১ লা ফেব্রুয়ারি নয়, পুরনো প্যাকেজ বলবৎ রাখতে হবে ১৮ ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এই সময়ের মধ্যে কেবল সংস্থার মালিকরা পে প্যাকেজ চালু করার পরিকাঠামো তৈরি করে ফেলবেন। অর্থাৎ এই সময়ের মধ্যে পছন্দের চ্যানেল দেখার জন্য আলাদা করে কোনও টাকা খরচের প্রয়োজন নেই। পুরনো দামেই দেখতে পাবেন সব চ্যানেল।

সেই সময়সূচি আসার ঠিক কয়েকদিন আগে থেকেই বহু স্থানে টিভি স্ক্রিন কালো হয়ে গিয়েছে। অনেক গ্রাহকই এখন থেকেই দেখতে পাচ্ছেন না তাদের পছন্দের চ্যানেল। নির্দেশিকার বিরুদ্ধে মামলা ইতিমধ্যেই আদালতে গড়িয়েছে। আর এই সকল সমস্যা মেটাতে আবার উদ্যোগ নিলো ট্রাই। আগামী ৩১ মাৰ্চ পর্যন্ত গ্রাহকরা তাঁদের পছন্দের টিভি চ্যানেল বেছে নেওয়ার সময় পাবেন বলে জানিয়ে দিয়েছে দ্য টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অব ইন্ডিয়া। আপাতত পুরোনো নিয়মেই কেবল এবং ডিটিএইচ পরিষেবা পাবেন দর্শকরা।

Loading...