রাষ্ট্রপতি, ৬বিধায়ক, ৩সাংসদ, করোনা কেড়ে নিল এই ১০ VIP-র জীবন

সাংসদ, বিধায়ক থেকে শুরু করে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি, সাধারণ মানুষের সাথেই কোরোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বেশ কিছু রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বদের। এদের মধ্যে রয়েছেন সাংসদ, বিধায়ক থেকে শুরু করে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিও।

দেশে কোরোনা আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃতের সংখ্যা প্রত্যেকদিন লাফিয়ে বাড়ছে, তার সাথেই বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। ইতিমধ্যেই দেশে কোরোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৮৬ হাজার ৮০০ জনের ( রবিবার পর্যন্ত ৮৬ হাজার ৭৫২ জন)। সাধারণ মানুষের সাথে সাথেই কোরোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বেশ কিছু রাজনৈতিক ভিআইপি ব্যাক্তিত্বদের।

এদের মধ্যে রয়েছেন সাংসদ, বিধায়ক থেকে শুরু করে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিও। এককথায় কোরোনা মরশুমে দেশের রাজনৈতিক জগৎ হারিয়েছে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিত্ব দের। এক নজরে ফিরে দেখবো তাদের।

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়

করোনায় দেশের রাজনৈতিক জগতের সবথেকে বড় নক্ষত্র পতন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির জীবনবাসন। কোরোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। নয়াদিল্লিতে আর্মি হাসপাতাল আর অ্যান্ড আর এ মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচারের জন্য ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।  তবে ততক্ষণে ভাইরাসের ফলে তার শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি ঘটতে থাকে। অনেক চেষ্টার পরেও বাঁচানো গেলনা তাঁকে। অবশেষে  ৩১শে আগস্ট ৮৪ বছর বয়সে প্রয়াত হন তিনি।

করোনায় মৃত্যু তিন সাংসদের

১. অশোক গস্তি : এই বিজেপি সাংসদ রাজ্যসভায় নির্বাচিত হওয়ার মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই কোরোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তিনি উত্তর কর্নাটকের রাইচূড়ের বাসিন্দা। গত জুন মাসে তিনি সাংসদ হিসেবে রাজ্যসভায় নির্বাচিত হন, কিন্তু একবারও সংসদে যেতে পারেননি তিনি। তার আগেই কোরোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন তিনি।

২. বালি দূর্গাপ্রসাদ রাও : তিনি ছিলেন তিরুপতির সাংসদ।৬৪ বছর বয়সে কোরোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেও একাধিক কো-মর্বিডিটর শিকার ছিলেন তিনি।

৩. এইচ বসন্তকুমারের- তামিলনাড়ুর কন্যাকুমারীর এই কংগ্রেস সাংসদ সংসদ সদস্য হিসেবে প্রথম নির্বাচিত হলেও আগে দু’বার নাঙ্গুনেরি বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিধায়ক হয়েছিলেন, সাথেই তিনি ছিলেন সেই অঞ্চলের প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির কার্যকরী সভাপতি।

করোনার বলি ৬ বিধায়ক

উত্তরপ্রদেশে কারিগরি শিক্ষামন্ত্রী কমল রানি বরুণ ছাড়াও বিজেপি বিধায়ক  এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার চেতন চৌহানের মৃত্যু হয়েছে। মধ্যপ্রদেশে কোরোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান কংগ্রেস বিধায়ক গোবর্ধন ডাঙ্গি।মৃত্যু হয়েছে তামিলনাড়ুর ডিএমকে বিধায়ক জে আনবাঝাগানের। কোরোনা আক্রান্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গে জন এগরার তৃণমূল বিধায়ক সমরেশ দাস এবং ফলতার তমোনাশ ঘোষ প্রয়াত হন।

আরও রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব, যাদের হারিয়েছি আমরা

কোরোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং প্রবীণ বামপন্থী নেতা শ্যামল চক্রবর্তী। এছাড়াও মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন সাংসদ হরিবাবু জাওয়ালে, লেহর কংগ্রেস নেতা এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি নামগিয়াল, পুনের বিধায়ক সুধারক পরিচারক – তালিকা বেশ বড়।