নায়ক না হয়েও অভিনয় গুণে নায়কদের ছাপিয়ে গেছেন এই ১০ অভিনেতা

Top 10 Best Actor of Bengali Television

যে কোনও ধারাবাহিক কিংবা সিনেমার প্লটকে বিভিন্ন চরিত্রের নিরিখে পর্দায় যারা অত্যন্ত পরিশ্রম করে ফুটিয়ে তোলেন, তারাই অভিনেতা বা অভিনেত্রী। এখন কোনও গল্পই কার্যত শুধুই নায়ক-নায়িকা-ভিলেন নির্ভর হতে পারে না। নায়ক-নায়িকার জীবনের চড়াই-উৎরাই, সম্পর্কের টানাপোড়েন পর্দায় তুলে ধরার ক্ষেত্রে অনুঘটক হিসেবে কাজ করেন পার্শ্বচরিত্রের অভিনেতা এবং অভিনেত্রীরা। যেকোনও ধারাবাহিক কিংবা সিনেমার ক্ষেত্রে তাই পার্শ্ব চরিত্রের শিল্পীদের ভূমিকাও কিছু কম থাকে না।

পার্শ্ব চরিত্রের এই অভিনেতারাই কার্যত নিজের অভিনয় দক্ষতার গুণে বড় পর্দা কিংবা ছোটপর্দায় নায়ক, নায়িকা এবং ভিলেনের চরিত্রগুলিকে আরও বেশি মজবুত করে তোলেন। অভিনয় দক্ষতার গুণে ধারাবাহিকের গল্পকে আরও বেশি মজবুত করে তুলতে গিয়ে অনেক সময়ই দেখা যায় যে পার্শ্বচরিত্রের অভিনেতারাও দর্শকের মনে নায়ক-নায়িকার সমান ছাপ ফেলে দিয়েছেন। আজ এই প্রতিবেদনে তেমনই কিছু দক্ষ অভিনেতার কথা তুলে ধরবো আপনাদের কাছে।

তথাগত মুখার্জি : তথাগত মুখার্জি সিনে ইন্ডাস্ট্রির একজন মডেল অভিনেতা। নায়ক হিসেবে নয়, পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেই দর্শকের কাছে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন এই অভিনেতা। “রাশি”, “সন্ন্যাসী রাজা”, “কেয়ার করি না”, “বউ কথা কও”, “অন্দরমহল”, “ময়ূরপঙ্খী”র মতো ধারাবাহিকের পর বর্তমানে “মোহর” এবং দেশের মাটি ধারাবাহিকে তার অভিনয় দর্শকের মন ছুঁয়ে গিয়েছে।

সুমন্ত মুখার্জি : রুপোলি পর্দার ভিলেন হিসেবেই তার পরিচিতি। তবে ভিলেনের চরিত্রে ছাড়াও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন শেডের চরিত্রে অভিনয় করে তিনি নিজের অভিনয় দক্ষতাকে প্রমাণ করেছেন।

অম্বরিশ ভট্টাচার্য : টেলিমিডিয়ার মন ভালো করার জাদুকর তিনি। তার উপস্থিতিই দর্শকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ। এই হেভিওয়েট অভিনেতাকে “পুন্যি পুকুর’”, “বয়েই গেল”, “গোয়েন্দা গিন্নি”, “রাজা গজা” এবং বর্তমানে “খড়কুটো” ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে।

দুলাল লাহিড়ী : এই বর্ষীয়ান অভিনেতা বাংলায় বহু সিনেমাতে ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়াও তার ঝুলিতে রয়েছে বেশ কিছু ধারাবাহিক যেখানে বিভিন্ন স্বাদের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাকে। “কেয়ার করি না”, “কনকাঞ্জলি”, “মেম বউ” এর পর বর্তমানে “মোহর” এবং “খড়কুটো”তে অভিনয় করছেন দুলাল লাহিড়ী।

চন্দন সেন : থিয়েটারের পাশাপাশি বিভিন্ন সিনেমা এবং ধারাবাহিকের দক্ষ অভিনেতা চন্দন সেনকে “ময়ূরপঙ্খী”, “সন্ন্যাসী রাজা”, “ইষ্টিকুটুম”, “অন্দরমহল” ধারাবাহিকের পাশাপাশি বর্তমানে “খড়কুটো” ধারাবাহিকে অভিনয় করতে যাচ্ছে।

দেবোত্তম মজুমদার : বর্তমানে “খড়কুটো”, “দেশের মাটি” ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন এই অভিনেতা। এর আগে তাকে “শ্রীময়ী”, “চোখের তারা তুই”, “বিন্নি ধানের খই”, “কেয়া পাতার নৌকো”সহ আরও বিভিন্ন ধারাবাহিকে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে। পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেই কার্যত কিস্তিমাত করেছেন দেবোত্তম।

কুশল চক্রবর্তী : কুশল চক্রবর্তী একজন চলচ্চিত্র পরিচালক এবং অভিনেতা। বিভিন্ন সিনেমাতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাকে। হালফিলে “বরণ” এবং “সর্বজয়া”তে অভিনয় করছেন এই অভিনেতা।

Subhasish Mukhopadhyay

শুভাশীষ মুখার্জি : কমেডি চরিত্রে তার জুড়ি মেলা ভার। নব্বইয়ের দশকের বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন শুভাশীষ মুখার্জি। বেশ কিছু ধারাবাহিকেও অভিনয় করেছেন শুভাশীষ। বর্তমানে তাকে স্টার জলসার “খেলাঘর” ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে।

সুদীপ মুখার্জি : সুদীপ মুখার্জি বর্তমানে স্টার জলসার “শ্রীময়ী” ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। এই অভিনেতার ঝুলিতেও বহু ধারাবাহিক এবং সিনেমায় অভিনয় করার অভিজ্ঞতা রয়েছে।

শংকর চক্রবর্তী : বড় পর্দা এবং ছোটপর্দায় চুটিয়ে অভিনয় করেন শংকর চক্রবর্তী। বর্তমানে স্টার জলসার “দেশের মাটি” ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন শংকর চক্রবর্তী। এছাড়াও হালফিলের ”কৃষ্ণকলি”, “তিতলি” এবং পুরনো দিনের “কুঞ্জ ছায়া”, “মা”, “ইচ্ছেনদী”, “কুসুমদোলা”, “ইষ্টিকুটুম”, “পুণ্যিপুকুর”, “ভালোবাসা ডট কম” এর মতো জনপ্রিয় ধারাবাহিকে তার অভিনয় দর্শক মনে রেখেছেন।