একটি ভুলের জন্য আজীবন যন্ত্রণা বুকে বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছেন রচনা ব্যানার্জী

টলিউডের (Tollywood) ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ (Didi Number One) যদি কেউ হয়ে থাকেন তাহলে তিনি হলেন অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি (Rachana Banerjee)। রচনা ব্যানার্জীর শুধু টলিউডেরই নন, দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমা জগতেরও জনপ্রিয় অভিনেত্রী। একটা সময় ছিল যখন তাকে বাংলা ছবির তুলনায় উড়িয়া ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতেই বেশি কাজ করতে দেখা গিয়েছে। তবে টলিউডেও অবশ্য বহু সফল ছবিতে অভিনয় করেছেন বাংলার এই অভিনেত্রী। অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে জুটিতে তার সবকটি সিনেমা হয়েছে সুপারহিট।

সাফল্য যেন প্রতিবার যেচে ধরা দিয়েছে রচনার কাছে। টলিউডের পাশাপাশি সাউথ ইন্ডিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিও আজ তার গুনগ্রাহী। তার সমকালীন অন্যান্য অভিনেত্রীরা যেখানে হয় অভিনয় ছেড়ে দিয়েছেন, নতুবা ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন, তখন রচনা সারা বাংলার মানুষের পছন্দের দিদি হয়ে উঠেছেন। ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ রিয়েলিটি শো’য়ের সঞ্চালিকা রচনা বিগত প্রায় ১০ বছর ধরে শো’য়ের সাফল্য ধরে রেখেছেন।

তবে এত সফলতার মাঝেও কিছু ব্যর্থতা, কিছু না পাওয়ার যন্ত্রণা আজও তাকে বয়ে নিয়ে বেড়াতে হয়। তার মধ্যে অন্যতম হলো ঋতুপর্ণ ঘোষের (Rituparno Ghosh) ছবিতে কাজ করতে না পারার যন্ত্রনা। স্বয়ং পরিচালক নিজে ফোন করে রচনার কাছে তার কালজয়ী সিনেমা ‘দহন’ এ অভিনয় করার প্রস্তাব রাখেন। তবে রচনা সেই সময় দক্ষিণের একটি শুটিংয়ের কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। যে কারণে শুটিং মাঝপথে ছেড়ে তার পক্ষে চলে আসা সম্ভব হয়নি। কারণ তাতে ওই ইন্ডাস্ট্রিতে ব্ল্যাকলিস্টেড হয়ে যাওয়ার ভয় ছিল।

অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের (Saswata Chatterjee) সঞ্চালনায় ‘অপুর সংসার’ নামের একটি টক শো’তে অংশগ্রহণ করে রচনা তার সেই আফসোসের কথা অকপটে স্বীকার করেছেন। দক্ষিণের ফিল্মে কাজ করার জন্য তৎকালীন সময়ে ঋতুপর্ণ ঘোষের মতো পরিচালকের ছবিতে কাজের অফার ফিরিয়ে দেওয়াটা যথেষ্ট সাহসের ব্যাপার ছিল। তবে রচনার কাছে আর উপায় ছিল না। তিনি জানিয়েছেন, সাউথ ইন্ডিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি প্রচন্ড কমিটেড। সেই সময় তিনি ছবির কাজ শুরু করে দিয়েছিলেন।

ওই মুহূর্তেই ঋতুপর্ণ রচনাকে ফোন করে তৎক্ষণাৎ কলকাতায় ফিরে আসতে বলেন। রচনা যদি সেদিন ঋতুপর্ণের কথা মানতেন তাহলে দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি তার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিত। তাকে ব্ল্যাকলিস্ট করে দেওয়া হতো। আর কাজের সুযোগ দিত না। তাই ঋতুপর্ণের অফার ফিরিয়ে দেন রচনা। তবে সেই আফসোস আজীবন তাকে বয়ে বেড়াতে হবে। ঋতুপর্ণ ঘোষ তার স্বল্প জীবনকালে যে ক’টি ছবি বানাতে পেরেছেন, তার মধ্যে অন্যতম ছিল ‘দহন’।

এই ছবিতে অভিনয় করার সূত্রেই ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (Rituparna Sengupta) এবং ইন্দ্রানী হালদার (Indrani Halder) জাতীয় পুরস্কার লাভ করেছিলেন। রচনা যদি সেদিন দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির মোহ ত্যাগ করে আসতে পারতেন, তাহলে জাতীয় পুরস্কার তার ঝুলিতেই উঠতো। পাশাপাশি ঋতুপর্ণ ঘোষের সঙ্গে কাজ করতে না পারার আফসোস তার থাকতো না। কাজেই সেটা যখন হলো না, তখন সেই যন্ত্রণা বয়ে বেড়ানো ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। আজ এতদিন পরে অপুর সংসার এর সেই বিশেষ ভিডিও ক্লিপটি আরও একবার ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। সেই ভিডিও ক্লিপের মারফত রচনা ব্যানার্জীর অপূর্ণ ইচ্ছের কথা জানতে পেরেছেন দর্শক।