মকর সংক্রান্তিতে কি কি করা উচিত আর কি কি করা উচিত নয়

বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বন। আর আজ পৌষ সংক্রান্তি। পৌষ মাসের শেষ দিনটিতে এই পৌষ পার্বন উৎসব পালন করা হয়। এই বিশেষ দিনটি খাদ্যরসিকদের কাছে বেশ জনপ্রিয় পিঠেপুলি উৎসব হিসেবে। পৌষ মাসের শেষ দিনটিতে সূর্য নিজের কক্ষপথ ছেড়ে মকর রাশিতে প্রবেশ করে। অনেকে বলেন পৌষ মাস নাকি মল মাস। আবার অনেকে বলেন এই দিনটিতেই অশুভ শক্তির বিনাশ ঘটে শুভ শক্তির সূচনা হয়। তবে বিভিন্ন শাস্ত্র অনুসারে এই দিনটিতে কিছূ বিধিনিষেধ মেনে চলা হয়। পড়ে নিন সেগুলো কি কি

মকর সংক্রান্তির দিন মহিলারা ভুলেও এই কাজগুলি করবেন না

মকর সংক্রান্তিতে কি কি করা উচিত নয়?

এই দিনটিতে কোথাও যাত্রা করা উচিত নয়, কোথাও যাত্রা করলেও নিজের বাড়ি ফিরে আসা উচিত।লোকমুখে প্রচলিত আছে এই দিনটিতে কোন এক মুনি নিজের বাড়ি থেকে যাত্রা করে ফেরত আসেননি। তখন থেকেই এই নিয়ম প্রচলিত রয়েছে। তবে অনেকে মনে করেন ঐ দিনটিতে বাড়ির সব সদস্যরা একসাথে আনন্দ করবেন বলেই এই নিয়ম প্রচলিত রয়েছে।

এই দিনটিতে বাড়িতে আমিষ খাওয়া উচিৎ নয়। এই দিনটিতে সূর্য দেবের উপাসনা করা হয়।তাই প্রানী হত্যা উচিত নয় বলে ধরে নেওয়া হয়। রান্নার দ্রব্যে তিল দিলে শুভ লক্ষনের সূচনা হয়।

এই দিন বাড়ির মহিলাদের সূর্যদেবের উদ্দ্যেশ্যে প্রসাদ নিবেদন করে তবেই খাওয়া উচিৎ। এবং বাড়ির লোকেদের খাবার পরিবেশন করা উচিৎ।

এই দিনটিতে বাড়িতে কোনো অশান্তি করা উচিৎ নয়। এই দিনটিতে পরিবারে কলহ হলে সুখ গৃহে প্রবেশ করেন না।

এই দিন বাড়িতে ভিক্ষুক এলে তাকে খালি হাতে ফেরানো উচিৎ নয়। যৎসামান্য হলেও ভিক্ষুককে দান করলে গৃহে সুখ সমৃদ্ধির আহ্বান ঘটে।

মকর সংক্রান্তিতে কি কি করা উচিত?

আরও পড়ুন : মকর সংক্রান্তির এই পূণ্যলগ্নে স্নান করলেই দূর হবে অমঙ্গল

মকর সংক্রান্তির দিন ঘরের প্রতিটি কোনা পরিষ্কার রাখা উচিত। এমনকি সবরকম সামগ্রী পরিষ্কার রাখা উচিৎ।

এই দিন সকালে উঠে স্নান করে সূর্যদেবের উপাসনা করা উচিৎ। শাস্ত্রে কথিত আছে সূর্য দেব জীবনের সব অন্ধকার কাটিয়ে আলোর সঞ্চার করে। তাই এই দিন সূর্য দেবের উপাসনা করলে ইচ্ছেপূরন হয়।

আরও পড়ুন : মকর সংক্রান্তির দিন মহিলারা ভুলেও এই কাজগুলি করবেন না

এই দিন বাড়ির উঠোনে বা বাড়ির দরজায় আলপনা দিলে বাড়িতে সুখ সমৃদ্ধি ঘটে।

এই দিন বাড়িতে মিষ্টি বা পিঠে বানানোর রীতি আছে এবং প্রতিবেশী ও আত্মীয়দের পিঠে খাওয়ালে সম্পর্কে মিষ্টতা আসে।