ভাত খাওয়ার পর এই কাজগুলি করা মানে নিজের মৃত্যু ডেকে আনা

বাঙালী মানে ভাতের উপর একটি টান, ঠিক টান না বললেও প্রয়োজনীয় হিসেবে অভ্যস্ত হয়ে যাওয়ার একটা বড় ব্যাপার থাকে। অনেক কিছু খাওয়ার পরও অনেকের ভাতের উপর একটা টান থেকেই যায়, মনে হয় একমুঠো ভাত খেতে পারলেও মনের একটু শান্তি পায়!

বাঙালি সারাদিনে একবার ভাত খাবে না, সেটা হতেই পারে না। গরম হলে তো কথাই নেই পান্তা হলেও চলবে।ভাত অবশ্যই উপকারী খাবার।কিন্তু এমন কিছু বদঅভ্যাস রয়েছে যেগুলো আমাদেরকে সুস্থরাখার পরিবর্তে অসুস্থ করে তোলে।আর তাই সে সব অভ্যাস পরিত্যাগ করাই ভাল। এ অভ্যাসগুলো শরীরে নানা বিরূপ প্রভাব ফেলে। বিশেষ করে এই ৭ টি কাজ করলে আপনার মরণও ডেকে আনতে পারে। কাজগুলো কি কি তা জেনে নিই-

ভাতে কী থাকে?

১০০ গ্রাম পরিমাণ ভাতে ৩৫৭ কিলোক্যালরি প্রোটিন থাকে। আরো থাকে ৮ গ্রাম পরিমাণ ফ্যাট, দশমিক ৫ গ্রাম কার্বো হাইড্রেড, ৭৮ গ্রাম ফাইবার, দুই দশমিক আট গ্রাম সলিউল ফাইবার সহ ইনসুলবল ফাইভার। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এসব উপাদান অনেক উপকারী। আপনি যদি নিরামিষ বিরোধী হন তবে আপনাকে সবজি , ডাল ও দই খেতে হবে কারন ভাতের মধ্যে অনেক স্টার্স থাকে। যা শরীরের গ্লুকোজ ভেঙে দেয় এবং রক্তে ইন্সুলিনের পরিমাণ বেড়ে যায়।

তাই ডায়াবেটিস রোগীদের অবশ্যই ফাইবার খেতে হবে। আমরা সবাই জানি, ভাত শর্করা জাতীয় এবং উপকারী খাবার। সারা দিনে বাঙালি একবারও ভাত খাবে না সেটা হতে পারে না। অনেকেই আছেন, যারা দিনে ৪ বারও ভাত খেয়ে থাকেন। এতে কিন্তু তেমন কোনো ক্ষতি নাই। তবে পেট ভরে ভাত খাওয়ার অভ্যাস বাদ দিতে হবে। 

ভাত খাওয়ার পরপরই ঘুমিয়ে পড়া খুবই খারাপ অভ্যাস। এর ফলে শরীরে মেদ জমে যায়।

https://i.imgur.com/jISlqNe.jpg

ভাত  খাবার পর পরই স্নান করবেন না। কারণ খাওয়ার পরপরই স্নান করলে শরীরের রক্ত সঞ্চালন মাত্রা বেড়ে যায়। এর ফলে পাকস্থিলির চারপাশেররক্তের পরিমাণ বেড়ে যায়। যা পরিপাকতন্ত্রকে দুর্বল করতে পারে। ফলে খাবার হজমেরস্বাভাবিক সময়কে ধীরগতি করে দেয়।

https://i.imgur.com/jISlqNe.jpg

খাবার পরেই অনেকে হাতে চায়ের কাপ নিয়ে বসে যান। চায়ে থাকে প্রচুর পরিমাণ টেনিক এসিড যা খাদ্যের প্রোটিনকে ১০০ গুণ বাড়িয়ে তোলে। এতে খাবার হজম হতে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি সময় লাগে। তাই কিছু সময় অপেক্ষা করার পর চা পান করুন।

https://i.imgur.com/jISlqNe.jpg

খাবার খাওয়ার পরপরই অনেকে ফল খায়। এটা একদম ঠিক নয়। কারণ এতে বাড়তে পারে এসিডিটি। খাবার গ্রহণের দু’এক ঘণ্টা আগে বা পরে ফল খাওয়া ভাল।

অনেকে খাবার শেষ করার সঙ্গে সঙ্গেই ধূমপান করে। এটা খুবই মারাত্মক খারাপ অভ্যাস। চিকিত্‍সকরা বলেন, অন্য সময় ধূমপান যতটুকু ক্ষতি করে খাবার খাওয়ার পর ধূমপান করলে তা ১০ গুণ বেশি ক্ষতিকর।

খাবার পরপরই ব্যয়াম করা ঠিক নয়।

অনেকেই বলে থাকেন যে, খাবার পর ১০০ পা হাটা মানে আয়ু ১০০ দিন বাড়িয়ে ফেলা! কিন্তু আসলে বিষয়টা পুরোপুরি সত্য নয় খাবার পর হাটা উচিত, তবে অবশ্যই সেটা খাবার শেষ করেই তাত্‍ক্ষণিক ভাবে নয় । কারণ এতে আমাদের শরীরের ডাইজেস্টিভ সিস্টেম খাবার থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি শোষনে অক্ষম হয়ে পড়ে।

Loading...