৯ বছরের ছোট ছেলের সঙ্গে প্রেম! সমালোচনায় ভারতীয় মেয়ে বলে লজ্জিত ববিতা জি

Taarak Mehta Ka Ooltah Chashmah Raj Anadkat Affair Rumours With Munmun Dutta

টেলিভিশনের (Telivision) পর্দার অভিনেতা এবং অভিনেত্রীদের নিয়ে নিত্যদিন কতইনা রটনা রটে। যার সঙ্গে হয়তো বাস্তবের কোনও মিল নেই। বিশেষত, তাদের একান্ত ব্যক্তিগত প্রেম সম্পর্ক নিয়েও হামেশাই কাটাছেঁড়া চলে। কোনও অভিনেতা এবং অভিনেত্রীর সম্পর্ককে প্রেমের নাম দিয়ে তাদের ট্রোল করতে ছাড়ে না মিডিয়া। আর এতে কার্যত বেশ বিরক্তই হন তারকারা। তারকাদের নিয়ে বডি শেমিং, তাদের বয়স নিয়ে কটাক্ষ কার্যত তাদের মনেও আঘাত হানে।

সম্প্রতি এমনই একটি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে ‘তারক মেহতা কা উল্টা চশমা’র (Taarak Mehta Ka Oolta Chashma) ‘ববিতা জি’কে (Babita ji)। ওই ধারাবাহিকের দুই চরিত্র ‘ববিতা জি’ এবং জেঠালাল পুত্র ‘তপু’র মধ্যে নাকি বাস্তবে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে! উল্লেখ্য, ‘তারক মেহতা কা উল্টা চশমা’তে জেঠালালের পুত্র ‘তপু’ চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেতা রাজ আনাদকাত (Raj Anadkat)। ‘তপু’র কাকিমা ‘ববিতা জি’র চরিত্রে অভিনয় করছেন মুনমুন দত্ত (Munmun Dutta)। বলিউডে গুঞ্জন, ভাইপো এবং কাকিমার মধ্যে নাকি প্রেম চলছে।

এই খবর রীতিমতো আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়েছে নেট মাধ্যমে। আর এই খবর খোদ ‘ববিতা জি’ অর্থাৎ মুনমুন দত্তের চোখেও পড়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের সম্পর্ক নিয়ে যে হারে সমালোচনা হচ্ছে তাতে বেজায় ক্ষুব্ধ মুনমুন। বিশেষত ৩৩ বছরের মুনমুন এবং ২৪ বছরের রাজকে নিয়ে মিডিয়া এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে যে হারে অপপ্রচার চলছে তা শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছে বলেই মনে করছেন মুনমুন। তাই তিনি এবার নেটিজেনদের উদ্দেশ্যে খোলা চিঠি লিখলেন।

সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে মুনমুন দুটি পোস্ট করেছেন। প্রথম পোস্টে তিনি মিডিয়াকে তুলোধোনা করেছেন। মিডিয়ার উদ্দেশ্যে তিনি লিখেছেন, “সংবাদমাধ্যম ও শূন্য বিশ্বাসযোগ্যতা থাকা সাংবাদিকরা- অনুমতি না নিয়ে কে আপনাদের মানুষের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখরোচক গল্প লেখার অধিকার দিল? তাঁদের জীবনে যে ক্ষতি হল তা পূরণ করতে পারবেন? আপনাদের লজ্জা হওয়া দরকার”।

অনুরাগীরাও মুনমুনের রোষানলের হাত থেকে রেহাই পাননি। নেটিজেনদের উদ্দেশ্য করে তিনি আরেকটি পোস্টে লিখেছেন, আপনাদের কাছ থেকে আমি প্রত্যাশা বেশি করেছিলাম। কিন্তু, আপনাদের মনোভাব দেখে আমি অবাক হয়ে গিয়েছি। আপনারা তথা কথিত শিক্ষিত। আপনারা নিজেদের মজার রসদ জোগানোর জন্য একজন মহিলার বয়স নিয়ে উল্টোপাল্টা বলছেন।”

নেটিজেনদের উদ্দেশ্য করে তিনি আরো লিখেছেন, “আমার বয়স ও সম্পর্ক নিয়ে যে সব কথা আপনারা বলছেন তাতে আমার উপর দিয়ে যে কী যাচ্ছে সেটা   একবারও ভেবেছন? আপনাদের এই ধরনের কোনও মন্তব্য খুব আঘাত করে। মানসিকভাবে ভেঙে দেয়।” এর পরেই ক্ষুব্ধ মুনমুন নেটিজেনদের উদ্দেশ্য করে লেখেন, “১৩ বছর বিনোদন শিল্পে রয়েছি। অথচ সম্মানহানি করতে ১৩ মিনিট নিলেন না। নিজেকে ভারতের মেয়ে বলতে লজ্জিত হচ্ছি”।

উল্লেখ্য, রাজ এবং মুনমুনকে নিয়ে বিগত বেশ কয়েক দিন ধরেই উত্তাল হয়ে রয়েছে নেট দুনিয়া। বেশ কয়েকবার তাদের একত্রে ঘুরতে দেখা গিয়েছে। রেস্তোরাঁতে একত্রে খেতেও দেখা গিয়েছে। তা দেখেই কার্যত নেটিজেনদের বদ্ধমূল ধারণা হয় রাজ এবং মুনমুন প্রেম করছেন। তাদের বয়সের পার্থক্যটা নেটিজেনদের চর্চার বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছিল। যার পরিপ্রেক্ষিতে জবাব দিলেন মুনমুন। নেট মাধ্যমকেই বেছে নিলেন জবাবের মাধ্যম হিসেবে।