এই ৭টি ছবির অফার সুশান্তের কাছে এলেও চলে যায় অন্য নায়কের কাছে

সুশান্ত সিং রাজপুত, বলিউডের তরুণ অভিনেতার আত্মহত্যার পর থেকেই ধীরে ধীরে উঠে আসছে বলিউডের বিভিন্ন দিক।জানা যাচ্ছে অবসাদের কারণেই এই চরম সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তারপর থেকেই বারবার উঠে আসছে বিভিন্ন ছবির প্রসঙ্গ যা প্রথমে সুশান্ত সিং রাজপুতকে দেওয়া হলেও পরে তার কাস্টিংয়ে অন্য অভিনেতাদের দেখা যায়।

এক্ষেত্রে অভিযোগ উঠছে বিভিন্ন প্রোডাকশন হাউসের দিকে। একতা কাপুর, সঞ্জয় লীলা বনশালি এবং করণ জোহরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন আইনজীবী সুধীর কুমার ওঝা। এইরকম পরিস্থিতিতে একবার দেখে নেওয়া যাক কোন কোন ছবিতে প্রথম পছন্দ ছিল সুশান্ত এবং কাস্ট করা হয় কাকে।

গোলিও কি রাসলীলা রামলীলা :- সঞ্জয় লীলা বনসালির এই ছবির পর বলিউডে রণবীর সিং এর জায়গা পাকাপাকিভাবে তৈরি হয়। বলিউড থেকে উঠে আসা খবর থেকে জানা যায় এই ছবিটি প্রথমে সুশান্ত সিং রাজপুতকে অফার করা হয় কিন্তু সেই সময় অন্য প্রজেক্ট হাতে থাকার জন্য তিনি এটি সাইন করেননি এবং ছবিটি রণবীর সিং এর কাছে চলে যায়। পরবর্তীকালে বক্স অফিসে এই ছবি ভালো উপার্জন করে। সুশান্তকে ছাড়া না হলেও, তখন যশ রাজের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ রণবীর সিংহকে ছবিটি করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। ২০১৩ সালের নভেম্বরে মুক্তি পেয়েছিল সঞ্জয় লীলা ভন্সালী পরিচালিত ছবিটি।

বাজিরাও মস্তানি :- সঞ্জয় লীলা বনসালির বাজিরাও মস্তানি ছবির বিষয় আলাদা করে কিছু বলতে হয় না। বক্স অফিসে এটি একটি হিট সিনেমা। জানা যায় এই ছবিটির অফার আগে সুশান্ত সিং রাজপুতের কাছে আসে কিন্তু তখন অন্য প্রজেক্টের কাজে ব্যাস্ত থাকায় তিনি ছবিটি করেননি এবং ছবিটি করেন রণবীর সিং। পরবর্তীকালে এই ছবি ব্যাপক ভাবে সফল হয়।

বেফিকরে :- ইয়াশ রাজ ফিল্মসের এই ছবিটি পরিচালনা করেছিলেন আদিত্য চোপড়া। এই ছবিটিও প্রথমে সুশান্ত সিং রাজপুতকে অফার করা হয়েছিল। সুশান্তকে না জানিয়েই নাকি এই পরিবর্তন করা হয়েছিল।

আশিকি ২ :- মোহিত সুরি পরিচালিত এই বিখ্যাত ছবির জন্য নির্মাতাদের প্রথম পছন্দ ছিল সুশান্ত সিং রাজপুত। কিন্তু পরবর্তীকালে এই ছবিটি আদিত্য রায় কাপুরের কাছে চলে যায়।

হেট স্টোরি :- সুশান্তের মৃত্যুর পর পরিচালক বিবেক অগ্নিহত্রি নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করে জানা যে হেট স্টোরির জন্য তিনি সুশান্তকে স্বাক্ষর করিয়েছিলেন কিন্তু বালাজির জন্য তাকে কাস্ট করতে পারেননি তিনি।

হাফ গার্লফ্রেন্ড :- চেতন ভগতের বিখ্যাত বই হাফ গার্লফ্রেন্ড এর ওপরেই এই ছবিটি তৈরি হয়। এই ছবিটিতে অর্জুন কাপুর এবং শ্রদ্ধা কাপুর অভিনয় করেন কিন্তু জানা যায় এই ছবির জন্য নির্মাতাদের প্রথম পছন্দ ছিল সুশান্ত সিং রাজপুত এবং কৃতি শ্যানন।

রোমিও আকবর ওয়ালটর :- এই ছবিটি সমালোচকদের কাছ থেকে বেশ প্রশংসা পায়। ছবিতে জন আব্রাহামকে দেখা যায় আন্ডার কভার স্পাই হিসেবে। অনেকেই হয়তো জানেন না যে এই ছবিটি প্রথমে সুশান্ত সিং রাজপুতকে অফার করা হয়েছিল এবং পরবর্তীতে ঠিক হয় যে রোলটি জন আব্রাহাম করবেন।

সারে জাহান সে আচ্ছা :- ভারতের প্রথম চন্দ্র অভিযানকারী রাকেশ শর্মার জীবনকে ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে। ছবিটি এখনো মুক্তি পায়নি তবে জানা যাচ্ছে এই ছবির অফার প্রথমে সুশান্ত সিং রাজপুতকে দেওয়া হয়। সুশান্ত ছাড়াও আমির খান ও শাহরুখ খানকেও প্রযোজকদের পছন্দ ছিল কিন্তু শেষমেষ ছবিটি ভিকি কৌশলের কাছে যায়।

সড়ক ২ – জানা যাচ্ছে এই ছবির জন্যও নির্মাতাদের সুশান্ত সিং রাজপুতকে পছন্দ ছিল। কিন্তু পরে আদিত্য রায় কপুরকে জেওয়া হয়।

ফিতুর :- ছবির পরিচালক অভিষেক কাপুরের সাথে সুশান্ত সিং রাজপুতের একটি ভালো সম্পর্ক ছিল। জানা যায় তার এই ছবিটির অফার প্রথমে সুশান্তের কাছে যায় কিন্তু পরবর্তীকালে সুশান্ত ব্যস্ততার জন্য ছবিটি রিফিউজ করে এবং সেটি আদিত্য রায় কাপুরের কাছে চলে যায়। ছবিটি বক্স অফিসে তেমন সাফল্য পায়নি।

কবির সিং :- দক্ষিণী সিনেমা অর্জুন রেড্ডির হিন্দি রিমেক কবির সিং নিয়ে শোরগোল তৈরি হয়। শহীদ কাপুরের আগে সুশান্ত সিং রাজপুত কে প্রযোজকদের পছন্দ ছিল। কিন্তু সুশান্ত সিং রাজপুত এই ছবিটি করেননি।