চপ বেচে চালিয়েছেন সংসার, টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সুপ্রিয় দত্তের জীবন যেন সিনেমা

সামান্য চাকুরীজীবী থেকে আজ টলিউডের সফল অভিনেতা, সুপ্রিয় দত্তের জীবন যেন সিনেমা

Supriyo Dutta - Movies, Biography & WiKi

একেবারে জিরো থেকে হিরো হওয়ার গল্পটা টলিউডের (Tollywood) ইতিহাসের নতুন কোনও গল্প নয়। টলিউডে এমন বহু প্রতিভা রয়েছেন যারা একেবারে শূন্য থেকে শুরু করে টলিউড থেকে অনেক কিছুই পেয়েছেন। আজ এই প্রতিবেদনে টলিউডের এমন এক জনপ্রিয় অভিনেতার অজানা গল্পই জানবেন আপনারা যার জীবনের গল্পটা সিনেমার স্ক্রিপ্টকেও হার মানাবে।

সুপ্রিয় দত্ত (Supriyo Dutta), বাংলা কমার্শিয়াল সিনেমার পরিচিত মুখ তিনি। আজ যাকে নায়ক বা নায়িকার বাবা বলে চিনছেন বা জানছেন, বলতে গেলে টলিউডে একেবারে শূন্য থেকেই শুরুটা করেছিলেন তিনি। গ্রামের এক নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারে তার জন্ম। যে পরিবারের অভাব ছিল নিত্য সঙ্গী। শৈশবটা অভাবকে সঙ্গী করেই বড় হওয়া। তবে ছোট থেকে পড়াশোনাতে বেশ মেধাবীই ছিলেন তিনি। সংসার চালাতে চপও বেচতেন বাবার সঙ্গে বসে।

সেই সময়টা অভাবের সংসার একা বাবার পক্ষে সামাল দেওয়া সম্ভব ছিল না। তাই পড়াশোনার পাশাপাশি বাবাকে সাহায্য করতেন সুপ্রিয়। ছেলে মেধাবী, তাই বাবা-মার স্বপ্ন ছিল ছেলে ভালো পড়াশোনা করে চাকরি করবে, সংসারে সুদিন আনবে। মা-বাবা ছেলেকে উৎসাহ দিতেন পড়াশোনা করতে। ভালো করে পড়াশোনা করতে বলতেন তাকে। তবে পড়াশোনা ছাড়া সুপ্রিয়র আগ্রহ ক্রমাগত বাড়ছিল অভিনয়ের দিকে।

একসময় সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলেন তিনি। কলকাতায় এসে নাট্যজগতে প্রবেশ করেন। নাটক এবং থিয়েটারে কাজ করতে করতেই অভিনয় শিখতে থাকেন। এখান থেকেই সুবর্ণ সুযোগ এসে যায় তার হাতে। সময়টা তখন ২০০৮, টলিউড পরিচালক রাজ চক্রবর্তী তার নতুন সিনেমা ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ এর জন্য বেছে নেন তাকে। যদিও এই ছবি তার টলিউডে প্রবেশের প্রথম চাবিকাঠি ছিল না।

২০০৬ সালে সুমন মুখোপাধ্যায়ের ‘হারবার্ট’ ছবিতে অভিনয় করে তিনি টলিউডে খাতা খুলে ফেলেছিলেন। তবে রাজ চক্রবর্তীর কমার্শিয়াল ছবিতে অভিনয়ের পর তাকে আর ঘুরে তাকাতে হয়নি। ‘চ্যালেঞ্জ’, ‘লে ছক্কা’, ‘দুই পৃথিবী’, ‘সেদিন দেখা হয়েছিল’ এর মতো একাধিক কমার্শিয়াল ছবিতে তার দেখা মেলে। কমেডি চরিত্র হোক বা রাশভারী, যথাযথভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তোলেন সুপ্রিয় দত্ত।

বর্তমানে বাংলা ছবির পাশাপাশি বাংলা ধারাবাহিকেও সুপ্রিয় দত্তের অভিনয় নজর কাড়ছে। সদ্য যেমন ‘ড্রাকুলা স্যার’ ছবির পর ‘বিজয়ার পরে’ ছবির শুটিংয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি, তেমনই তার হাতে রয়েছে জি বাংলার সর্বজয়া ধারাবাহিক। টলিউড অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় অভিনীত এই ধারাবাহিকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা মিলেছে তার। আজ তিনি টলিউডের অন্যতম সফল অভিনেতা। ছোট পর্দা বড় পর্দা মিলিয়ে টলিউডের তাবড় তাবড় প্রায় সব পরিচালকদের সঙ্গেই কাজ করে নিজের খুঁটি শক্ত করেছেন সুপ্রিয় দত্ত।