‘বাঁধাকপির গলায় দড়ি’, সুদীপ্তার রান্নাঘরের নতুন রেসিপি দেখেই অজ্ঞান হলেন দর্শকরা

বাঁধাকপির গলায় দড়ি রাঁধলেন সুদীপ্তা, চমকে দিচ্ছে রেসিপি

rannaghorer goppo bdhakopir golai dori

জি বাংলাতে সুদীপা চ্যাটার্জী সঞ্চালনায় ‘রান্নাঘর’ অনুষ্ঠান নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে মাঝেমধ্যেই হাসাহাসির ঢল পড়ে যায়। রান্নাঘরের সঞ্চালিকা সুদীপাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে একাংশের মনে বেশ রাগও আছে। সুদীপার রান্নাঘরকে টেক্কা দেওয়ার জন্য কালার্স বাংলাও এনেছে এক নতুন রান্নার রিয়েলিটি শো। এখানে সঞ্চালনা করছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী (Sudipta Chakraborty)।

সম্প্রতি সুদীপ্তার ‘রান্নাঘরের গপ্পো’তে (Rannaghorer Goppo) রাঁধা হল এক বড়ই অদ্ভুত রেসিপি। সেই অদ্ভুত রান্নার রেসিপি নিয়ে এখন তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া। কালার্স বাংলার এই অনুষ্ঠানে অভিনব ভাবে বাঁধাকপির রেসিপি রেঁধে দেখানো হয়েছে। রান্নাটা যতটা না অভিনব, তার থেকেও বেশি অদ্ভুত নামকরণ। ঠিক সেই কারণেই সোশ্যাল মিডিয়াতে চলছে হাসাহাসি।

rannaghorer goppo

‘বাঁধাকপির গলায় দড়ি’ রেসিপিটি চ্যানেলের তরফ থেকে শেয়ার করা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়াতে। রান্নার এমন নামকরণ দেখে তো নেটিজেনদের চোখ উঠেছে কপালে। কমেন্ট সেকশনে তাদের মন্তব্য দেখার মত। নেটিজেনরা অবাক হয়ে রান্না নিয়ে নানা মজার মজার মন্তব্য করতে শুরু করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে এখন সুদীপ্তার রান্নাঘরের বাঁধাকপির স্পেশাল রেসিপি নিয়ে দারুণ চর্চা চলছে।

কেউ লিখছেন, ‌“আজ বাঁধাকপি তার মনের দুঃখে এত বড় একটা স্টেপ নিতে বাধ্য হয়েছে। তাই জনসম্মুখে প্রার্থনা রইল পেঁয়াজ আজীবন ধরে তার দুঃখের জীবন নিয়ে কেঁদেই চলেছে। সে যেন মনের দুঃখে কখনো এরকম স্টেপ না নাই তার দিকে লক্ষ্য রাখা হোক!” কেউ লিখলেন, “শেষ পর্যন্ত গলায় দড়ি দিয়ে মরলো। খবরটা শুনে খারাপ লাগলো। যাই হোক মুলো জলে ডুব দিলে জানাবেন আবার।”

কেউ আবার বাঁধাকপির গলায় দড়ি দেওয়ার খবর শুনে মজা করে লিখলেন, “আত্মহত্যা মহাপাপ। এ কথা কি বাঁধাকপি জানতো না।” কেউ লিখছেন, “খাব কিনা শুনেই তো ভয় পেয়ে গেলাম। বাঁধাকপির অতৃপ্ত আত্মা তো ঘাড়ে চেপে বসবে। আর যা রান্নার বহর দেখলাম সব কাঁচা কিছুই কষানো হল না। কোথা থেকে একটা রেডি রান্না এনে দেখিয়ে দিল।”

badha kopir golai dori rannaghorer goppo

উল্লেখ্য কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়াতে সুদীপ্তাকে কটাক্ষ করে পাল্টা জবাবে মুখ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এক নেটিজেনের। তিনি অভিনেত্রীকে তার একটি পুরনো সিনেমার প্রসঙ্গ টেনে এনে ‘রান্নার মাসি’ বলে কটাক্ষ করতে চেয়েছিলেন। তার পাল্টা জবাবে সুদীপ্তা তাকে ধুয়ে দেন। অন্যদিকে নেটিজেনরাও ওই ব্যক্তিকে ছেড়ে কথা বলেননি। শেষমেষ ক্ষমা চেয়ে তবে নিষ্কৃতি পান তিনি।