কুকুরের বদলে ডেট! নিজেকে ট্রফি মনে করছেন শ্রীলেখা, কুকুরকান্ডে ব্যাপক ট্রোলড শ্রীলেখা

কুকুর নিলে ডেটে যাবেন, নিজেকে কি ট্রফি ভাবেন! কুকুরকান্ডে ব্যাপক ট্রোলড শ্রীলেখা

কুকুরকান্ডে কার্যত বেজায় বিতর্কের মুখে পড়েছেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। পোষ্য সারমেয়ের মৃত্যু নিয়ে বিগত কয়েকদিন ধরেই উত্তাল হয়ে রয়েছে নেট দুনিয়া। শ্রীলেখার ডেটফেরত শশাঙ্ক ভাভসর যে পথপশু ছানাটির দায়িত্ব নিয়েছিলেন, তাকে রক্ষা করতে পারেননি! এই নিয়ে কুকুরপ্রেমীরা রীতিমতো মারমুখী হয়ে উঠেছেন। সেই দলে সামিল টলিউড অভিনেত্রীও। শশাঙ্ককে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে বিতর্ক আরও বাড়িয়েছেন শ্রীলেখা।

কুকুর দত্তক নিলে তার সঙ্গে ডেটে যাওয়ার সুযোগ মিলবে! সামাজিক মাধ্যমে এমনই শর্ত ঘোষণা করেছিলেন শ্রীলেখা মিত্র। শ্রীলেখার শর্ত মেনে তার সঙ্গে দেখা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন এক যুবক। শশাঙ্ক ভাভসর একজন রেড ভলেন্টিয়ার্সও বটে। বামপন্থী শ্রীলেখা তাকে নিয়েই কফি ডেটে গিয়েছিলেন। শ্রীলেখার সঙ্গে কফি ডেটে যাওয়ার শর্ত স্বরূপ সমাজসেবী দময়ন্তী সেনের প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি একটি কুকুর ছানা দত্তক নিয়েছিলেন।

তবে সেই ছানাটিকে রক্ষা করতে পারেননি শশাঙ্ক। তার অসাবধানতাবশত ছানাটি বাইরে বেরিয়ে যায় এবং দুর্ঘটনাবশত মারা যায়। এই খবর শ্রীলেখার কানে পৌঁছাতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো মারমুখী হয়ে ওঠেন তিনি। এর পরদিনই একদল পশুপ্রেমী শশাঙ্কের বাড়িতে চড়াও হন এবং তাকে ব্যাপক মারধর করেন। বিষয়টি থানা পর্যন্ত গড়ায়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নেট মাধ্যম সোচ্চার হয়ে উঠেছে শ্রীলেখার বিরুদ্ধে।

জনৈক নেটিজেন শ্রীলেখাকে কটাক্ষ করে মন্তব্য করেছেন, “উনি কি নিজেকে ট্রফি মনে করেন?” এরপর তিনি সিপিএম সমর্থকদের উদ্দেশ্য করে লিখেছেন, “কুকুরবাদী এবং ক্যাডারবাদী এই দুই দলে বিভক্ত হয়ে যাবেন না। ঐক্যই বল। ইউনিটি ইজ স্ট্রেংথ”। উল্লেখ্য, শশাঙ্কের বিরুদ্ধে নিজের মনোভাব ব্যক্ত করতে গিয়ে শ্রীলেখা কার্যত রেড ভলেন্টিয়ার্সদের নাম জড়িয়ে ফেলেন। এতে কার্যত বেজায় চটেছেন লাল সমর্থকরা।

এদিকে সারমেয় শিশুর মৃত্যুর খবর পেয়ে নেট মাধ্যমে একটি লাইভ ভিডিও শেয়ার করেন শ্রীলেখা। সেখানে তিনি নিজের ভুল স্বীকার করেন এবং লাইভে এসে কেঁদে ফেলেন। সেই নিয়েও ঠাট্টা তামাশায় মেতেছেন নেটিজেনরা। শ্রীলেখার একটি পোস্ট শেয়ার করে জনৈক নেটিজেন মন্তব্য করেছেন, “সিপিএমের অভিনেত্রী, কুকুর-মৌলবাদী এবং সিপিএম সদস্য ও রেড ভলান্টিয়ারদের দিনব্যাপী নাটক নিয়ে আমার প্রতিক্রিয়া…কিছু যায় আসে না”।

বিষয়টির সঙ্গে রাজনীতি জড়িয়ে যাওয়ার পরে শ্রীলেখা আনন্দবাজার অনলাইনের কাছে নিজের প্রতিক্রিয়া তুলে ধরতে গিয়ে জানিয়েছেন, ‘‘যখন কেউ ছিল না, আমি সিপিএম-এর পাশে দাঁড়িয়েছিলাম। এখন সেই পার্টির সদস্যরা আমার নামে যা ইচ্ছে তাই বলে যাচ্ছে।’’ তার বিভিন্ন মন্তব্যে দলবদলের আভাস পাচ্ছেন নেটিজেনরা। যদিও সে সব গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে শ্রীলেখার বক্তব্য, ‘‘আমি বামেদের সমর্থন করতাম, আগামীতেও তাই করব।’’