‘গাঁজাখোর’, ‘লিকপিকে’ স্টার জলসার মহিষাসুর, অসুর সাজে সৌরভকে নিয়ে তুমুল ট্রোল

‘যুদ্ধের আগেই গড়িয়ে যাবে স্টার জলসার মহিষাসুর’, সৌরভকে দেখে হেসে কুটোপাটি নেটিজেনরা

হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিনের অপেক্ষা। গুনে গুনে ঠিক তিনদিন পর মহালয়া (Mahalaya)। মহালয়ার সঙ্গে বাঙালির দারুণ নস্টালজিয়া জড়িয়ে আছে। এই মহালয়াই তো দেবীর আগমনের ইঙ্গিত নিয়ে আসে। মহালয়ার ভোরে, প্রভাতী অনুষ্ঠানটাও একটা আকর্ষণের বিষয়বস্তু। স্টার জলসা (Star Jalsha), জি বাংলা প্রত্যেক বছর তাদের নিজেদের মত করে সাজায় এই অনুষ্ঠান।

কোন চ্যানেলে কে হচ্ছেন দেবী দুর্গা, এই কৌতূহলের পাশাপাশি কোন চ্যানেলে কে মহিষাসুর হচ্ছেন সেটার একটা বড় আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু দর্শকদেরর কাছে। স্টার জলসার এবারের মহালয়ার প্রভাতী অনুষ্ঠান ‘যা চন্ডী’, সেখানে দুর্গা সাজবেন মোহর, এক্কাদোক্কা খ্যাত অভিনেত্রী সোনামনি সাহা। আর মহিষাসুর হচ্ছেন অভিনেতা সৌরভ দাস (Sourav Das)।

স্টার জলসার তরফ থেকে এক মাস আগেই চলে এসেছিল প্রোমো। দুর্গা সাজে চ্যানেলের বিভিন্ন নায়িকাকে দেখে বেশ খুশিই হয়েছিলেন দর্শকরা। তবে যেই না মহিষাসুরের চেহারা চোখের সামনে ধরা পড়লো ওমনি মিশ্র প্রতিক্রিয়া ধরা পড়ছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। ‘মন্টু পাইলট’ ওরফে সৌরভ দাসকে মহিষাসুর হিসেবে দেখে তো হেসে কুটোপাটি হচ্ছেন নেটিজেনরা।

সোশ্যাল মিডিয়াতে চ্যানেলের শেয়ার করা অফিশিয়াল প্রোমো এবং অন্যান্য নানা পোস্ট যেখানে সৌরভকে মহিষাসুরের বেশে দেখা যাচ্ছে, সেসব দেখে সোশ্যাল মিডিয়াতে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সৌরভকে দেখে কেউ বলছেন, “দেখেই তো মনে হচ্ছে গাঁজা খেয়ে দাঁড়িয়ে আছে। এ তো যুদ্ধের আগেই গড়িয়ে পড়ে যাবে।” কেউ লিখছেন, “তাকালেই হাসি পাচ্ছে। পাড়ার বাচ্চাগুলোকে যেমন খুশি সাজোতে যে রকম লাগে, ঠিক ওরকম।”

স্টার জলসা এবারের মহালয়াতে টলিউডের কোনও নায়িকাকে আনেনি বরং চ্যানেলের নিজস্ব ধারাবাহিকগুলোর নায়িকাদেরই দেবী দুর্গার নানা রূপে তুলে ধরা হয়েছে। সোনামণি সাহার পাশাপাশি দেবী আদ্যাশক্তি রূপে ধরা দিয়েছেন অভিনেত্রী সোলাঙ্কি রায়। মন্টু পাইলট ওয়েব সিরিজে সোলাঙ্কিও ছিলেন।

তাই সোলাঙ্কিকে দেখে কেউ মজা করে লিখছেন, “মন্টু, মন্টুর নায়িকা দুজনই আছে দেখছি। বাহ বেশ সন্টু মন্টু ব্যাপার।” সৌরভকে দেখে কেউ আবার বলছেন ‘লিকপিকে অসুর’, ‘তালপাতার সেপাই’, ‘হাওয়া দিলেই উড়ে যাবে’! মোটকথা এবারে স্টার জলসার মহালয়াতে দেবী দুর্গাকে নিয়ে আলোচনা হোক বা না হোক, মহিষাসুর সৌরভ কিন্তু একাই লাইমলাইট কেড়ে নিলেন।