শাড়ি খুলে ছোট পোশাকে বোল্ড লুকে মিঠাই, ঘায়েল নেটিজেনরা

টানা ৫ মাস টিআরপি তালিকায় অপ্রতিরোধ্য মিঠাই (Mithai)। ছটফটে, প্রাণবন্ত, সকলের মুশকিল আসান মিঠাইরানী এখন টেলিভিশনের (Television) হার্টথ্রব। তাকে ছাড়া দর্শকের চোখে যেন আর কিছুই রুচছেনা! তাইতো মিঠাই আজও বেঙ্গল টপার। বড় বড় প্রযোজনা সংস্থার তাবড় তাবড় ধারাবাহিকও মিঠাই ম্যাজিকের ধুলোবালির মতো উড়ে গিয়েছে। মিঠাই অর্থাৎ সৌমিতৃষা কুন্ডু (Soumitrisha Kundu) আজ ঠিক যেন দর্শকের ঘরের মেয়েটি হয়ে উঠেছেন।

শুটিং প্ল্যাটফর্মে সারাদিন বাড়ির গিন্নির মতো শাড়ি পড়ে ছোটাছুটি করছে মিঠাই। কখনও উচ্ছেবাবুর লটপট সাড়াচ্ছে, কখনও বা আর মাছ দিয়ে চিতল মাছের মুইঠ্যা বানিয়ে সকলকে খাওয়াচ্ছে! কখনও আবার সিদ্ধার্থের অফিসের ইভেন্টে সকলকে চিতল পিঠে খাইয়ে দাদুর মান রাখছে মিঠাই ময়রা। শুধু কি তাই? ‘হাওয়া হাওয়াই’ নাচেও আধঘন্টার পর্ব রীতিমতো মাতিয়ে দিয়েছে মিঠাই।

এমন দুষ্টু-মিষ্টি চরিত্রে অভিনয় করতে করতে মাঝেমধ্যেই আবার সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে নিজ অবতারে ধরা দেন অভিনেত্রী। ওয়েস্টার্ন পোশাকে মর্ডান সাজে সৌমিতৃষা আরও হিট। ধারাবাহিকে চরিত্রের প্রয়োজনে কপালে টিপ, চোখে কাজল, লম্বা বিনুনি আর শাড়ির সাজে সম্পূর্ণ বাঙালিয়ানা ধরা পড়ে তার চেহারায়। তবে সেই সাজ-পোশাক ছেড়ে যখন তিনি আদ্যোপান্ত ওয়েস্টার্ন পোশাকে ধরা দেন, তখন তার গ্ল্যামারাস লুক দেখে রীতিমতো হাঁ হয়ে যান অনুরাগীরা।

এই যেমন সম্প্রতি সৌমিতৃষার একটি ছবি নেটমাধ্যমে রীতিমতো ঝড় তুলেছে। সাদাকালো পোশাক চেপে বসেছে শরীরে, তার উপর কাঁধের ওপর আলতো করে রাখা রঙিন জ্যাকেট, কানে বড় বড় ঝোলা দুল, ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে পোজ দিয়েছেন মিঠাই রানী। তার এমন গর্জিয়াস লুকে রীতিমতো ঘায়েল নেট দুনিয়া। প্রশংসার বন্যা বয়ে যাচ্ছে ছবির নিচে কমেন্ট বক্সে। ভালোবাসার প্রতিক্রিয়ায় ভরে উঠছে এই ছবি।

নেটিজেনের মধ্যে কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন, ‘তোমাকে একেবারে পুতুলের মত লাগছে’। কেউ লিখেছেন, ‘অসাধারণ সুন্দর’। তবে কেউ কেউ আবার মন্তব্য করেছেন, মিঠাইকে শাড়িতেই বেশি ভালো লাগে দেখতে। তাই তারা তাকে শাড়িতেই দেখতে চান। প্রসঙ্গত, সৌমিতৃষা অভিনয় জীবনে প্রবেশ করার আগে ছোটখাটো মডেলিং করতেন। বিভিন্ন প্রোডাক্টের হয়ে মডেলিং করেছেন তিনি।

‘এ আমার গুরুদক্ষিণা’, ‘জয় কালী কলকাত্তাওয়ালি’, ‘গোপালভাঁড়’, ‘অলৌকিক না লৌকিক’ ধারাবাহিকে ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয় করতে করতেই একসময় লিড রোলে অভিনয় করার সুযোগ পেয়ে যান তিনি। ‘কনে বউ’ ধারাবাহিকে প্রথম লিড অভিনয় করেছিলেন তিনি। তারপরেই পেয়ে যান জি বাংলায় কাজ করার সুযোগ। আর এই সুযোগই তাকে খ্যাতির শীর্ষ শিখরে পৌঁছে দিয়েছে।