জাতীয় সংগীত’ নিয়ে রবীন্দ্রনাথ কে অপমান করল নোবেল

জি বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো “সা রে গা মা পা”র দৌলতে বাংলাদেশের গায়ক নোবেল ভারতে অনেক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এই জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো এর দৌলতে বাংলাদেশের নোবেল এখন এপার বাংলাতেও একটি চর্চিত নাম। তার সুরের জাদুতে মুগ্ধ হয়েছে ওপার বাংলা সহ এপার বাংলার অসংখ্য মানুষ। ইতিমধ্যেই সৃজিত মুখার্জির ভিঞ্চি দা ছবিতেও গান গেয়ে ফেলেছেন তিনি।

সম্প্রতি “সা রে গা মা পা” ফাইনালে তার চ্যাম্পিয়ন না হাওয়া নিয়ে তুমুল বিতর্কে ঝড় উঠেছিল। নোবেল এর পক্ষে এবং বিপক্ষে বিভক্ত হয়ে গেছিল সোশ্যাল মিডিয়া। এই নোবেল এরই একটি সাক্ষাৎকার নিয়ে এখন তুমুল তর্ক বিতর্ক শুরু হয়েছে দুই দেশেই।

বাংলাদেশের এক সাক্ষাৎকারে নোবেল বাংলাদেশ জাতীয় সংগীত “আমার সোনার বাংলা” নিয়ে একটি বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন। তিনি বলেন “রবীন্দ্রনাথের লেখা “আমার সোনার বাংলা” গানটির থেকে প্রিন্স মাহমুদের লেখা “আমার সোনার বাংলা” বাংলাদেশকে বেশি ভালোভাবে তুলে ধরেছে। এই গানের সঙ্গে জড়িয়ে আছে বাংলাদেশের আবেগ। এমনকি এই গানটি কে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত করা হোক বলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে মিছিল হয়েছিল। আমিও সেটা মানি।’’

কোন গান নিয়ে কেউ সমালোচনা করতেই পারে কিন্তু “জাতীয় সংগীত” নিয়ে আজ পর্যন্ত কেউ সমালোচনা করার সাহস দেখাতে পারেনি। কিন্তু বাংলাদেশের নোবেল এই অভাবনীয় ও নিন্দনীয় কাজটি করে ফেলেছে। একটি রিয়েলিটি শো এর সাধারন গায়ক অপমান করেছে রবীন্দ্রনাথের অন্যতম শ্রেষ্ঠ গানকে।

রীতিমত এই কথা শুনে চটেছেন নেটিজেনরা। অনেকেই এই বিষয়ে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। জাতীয় সংগীত নিয়ে নোবেলের এমন মন্তব্যের পর সোশাল মিডিয়া রীতিমত তোলপাড়। তাকে তুলোধুনো করছেন সব শ্রেণির শ্রোতা দর্শক। এমনকি নোবেলের এমন কাণ্ডে তার ভক্তরাও বেশ বিভ্রান্তে! শুধু তাই নয়, তার কাণ্ডজ্ঞান নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে। যদিও এই বক্তব্যের পর নোবেলের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে নেটিজেনরা বিষয়টা নিয়ে মশকরাতেও মেতেছেন। কারণ নামটি নোবেল, এবং বিতর্কের বিষয়টি রবীন্দ্রনাথ! মতামত “একান্ত ব্যক্তিগত” ভেবে কথাগুলি বললেও বাঙালি সমাজের কাছে এই মন্তব্য ভালোভাবে গৃহীত হয়নি।

নোবেলের এই সাক্ষাৎকারটি দেখার পর তাকে “চাবকাতে” চেয়েছেন ইমন চক্রবর্তী। তিনি বলেন “ছোটরা ভুল করলে বড়রা ভুল শুধরে দেয়। শাসন করে। নোবেল আমার ছোট ভাইয়ের মতো। ওর এরকম মন্তব্য করা উচিত হয়নি। তাই দিদি হিসেবে আমি এই কথা বলেছি।

নোবেল জাতীয় সংগীতের অবমাননাকারী। ??

নোবেল জাতীয় সংগীতের অবমাননাকারী। ??

Afreen Lubabah यांनी वर पोस्ट केले बुधवार, ३१ जुलै, २०१९

গায়ক রুপম ইসলাম বলেছেন “বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত যা আছে ঠিক আছে। যে গানটি নিয়ে কথা হচ্ছে এটিকে আমি উচ্চশ্রেণীর সংগীত বলে মনে করি না। জাতীয় সঙ্গীত তো দূরের কথা।”