অবিকল এক চেহারা, অচেনা উত্তম রাতশ্রীকে দেখে মুগ্ধ খোদ শর্মিলা ঠাকুর

হুবহু যেন শর্মিলা, অচেনা উত্তমে নিজের প্রতিচ্ছবি দেখে প্রশংসায় ভরালেন আসল শর্মিলা

আর মাত্র কিছুদিন পরেই মুক্তি পাবে অতনু বসুর পরিচালনায় মহানায়ক উত্তম কুমারের (Uttam Kumar) বায়োপিক ‘অচেনা উত্তম’ (Achena Uttam)। এই ছবিতে মহানায়কের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বহু অজানা তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তার জীবনে প্রতি পদে পদে মহিলাদের কী ভূমিকা ছিল, সাবিত্রী, সুচিত্রা সেন, সুপ্রিয়া দেবী, গৌরী দেবী থেকে শুরু শর্মিলা ঠাকুরদেরও প্রতিচ্ছবি তুলে ধরা হয়েছে এই ছবিতে।

এই ছবির কাস্টিং নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে জোর সমালোচনা চলছে। মহানায়কের ভূমিকায় শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়কে দেখে কেউ খুশি, কেউ খুশি নন। অন্যদিকে সুচিত্রা সেনের ভূমিকায় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে দেখে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ। তবে এত সমালোচনার মাঝেও কিন্তু প্রশংসা পাচ্ছেন রাতশ্রী দত্ত। এই অভিনেত্রী এই ছবিতে শর্মিলা ঠাকুরের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

ছবিতে তার লুক দেখে প্রশংসা করেছেন খোদ শর্মিলা ঠাকুরও। ছবিটি মুক্তি পাবে আগামী ২২শে জুলাই। একমাস আগেই মুক্তি পেয়েছে ছবির ট্রেলার। ছবির কাস্টিং দেখে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন নেটিজেনরা। তবে ব্যতিক্রম রাতশ্রী। এই সম্মান পেয়ে রীতিমত আপ্লুত তিনি। ‘অচেনা উত্তম’-এ তাকে দেখে প্রশংসা করছেন সকলে।

খোদ শর্মিলা ঠাকুর যেখানে তাকে ফুল মার্কস দিয়েছেন, সেখানে এর থেকে বড় সম্মান তার জন্য আর কী হতে পারতো? এই প্রসঙ্গে তার বক্তব্য উত্তম কুমারের ‘নায়ক’ ছবিটি মুখস্থ করা তার সার্থক হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে দীর্ঘ এক পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, “অতনু বসু পরিচালিত অচেনা উত্তম ছবিতে এটা আমার লুক। বাংলা সিনেমার মহানতম সুপারস্টারের গল্প এটি।

যখন এই প্রস্তাব আমার কাছে এসেছিল, তখন আমি বাংলা ছবির ইতিহাসের অংশ হওয়ার একটা সুযোগ হিসেবে তা গ্রহণ করে নিই।” তিনি আরও লিখেছেন, “এই ছবিতে আমি এভারগ্রিন শর্মিলা ঠাকুরের চরিত্র এবং সত্যজিৎ রায়ের নায়ক ছবিতে তাঁর অভিনীত চরিত্রে অভিনয় করছি। অভিনেত্রী হিসেবে এই ধরণের চরিত্রে কাজ করার জন্য আমরা বেঁচে থাকি’’।