খড়কুটো পরিবারে আসছে নতুন পুচুসোনা! সুখবর দিল সৌগুন, খুশিতে ডগমগ দর্শকরা

দীর্ঘ বিরহের পর ফের কাছাকাছি সৌজন্য (Soujanyo) এবং গুনগুন (Gungun)। এতদিন একে অপরের থেকে আলাদা থেকে তারা প্রকৃতপক্ষেই নিজেদের ভুল বুঝতে পেরেছে। তাই এখন আর তাদের মধ্যে রাগারাগি, ঝগড়াঝাঁটি নেই একটুও। বদলে শুধুই ভাব-ভালবাসার নতুন রসায়ন তৈরি হয়েছে সৌগুনের সম্পর্কে। ঠিক যেমনটা চেয়েছিলেন গুনগুনের ড্যাডি ডঃ কৌশিক।

সৌজন্য এবং গুনগুনের সম্পর্ক এবার নতুন মাত্রা পেতে চলেছে। সন্তানের পরিকল্পনা করছে তারা। মিষ্টি বৌদি এবং ঋজুর মত এবার সৌগুনেরও নতুন পুচু সোনা চাই। স্বামী-স্ত্রীকে একান্তে সেই নিয়ে পরিকল্পনা করতে শোনা গেল খড়কুটোর (Khorkuto) নতুন এপিসোডে। এই নিয়ে দর্শকমহলেও উন্মাদনা তুঙ্গে। সৌগুনের এমন সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানাচ্ছেন তারাও।

সৌগুনের সংসারে নতুন পুচু সোনা আসছে! এতে খড়কুটোর অনুরাগীরা খুব খুশি। জনৈক অনুরাগী মন্তব্য করেছেন, “আমিও এবার এরকমই এক সৌজন্যর প্রয়োজন অনুভব করছি।” উল্লেখ্য, এই পুচু সোনাকে কেন্দ্র করেই কার্যত অশান্তি শুরু হয়েছিল খড়কুটোতে।ঋজু এবং মিষ্টির সন্তানের উপর অযথা অধিকার ফলাতে গিয়েছিল গুনগুন। পুচু সোনাকে নিয়ে সে এতটাই পজেসিভ ছিল যে মিষ্টির থেকে এক প্রকার তাকে ছিনিয়েই নিয়ে এসেছিল।

এই নিয়ে সংসার এই চরম অশান্তি শুরু হয়। এক পুচু সোনাকে নিয়ে দুই মায়ের টানাটানিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন দর্শকও। মেয়ের বাড়াবাড়িতে শেষমেষ মেয়েকে শ্বশুরবাড়ি থেকে চিরতরে নিজের বাড়িতে নিয়ে চলে যান ডঃ কৌশিক সেন। কিন্তু তাতেও বিপত্তি। গুনগুন চলে যাওয়ার পর তার অভাব অনুভব করতে শুরু করে খড়কুটো পরিবার। এদিকে গুনগুনও ক্রেজি আর শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের মিস করতে শুরু করে।

তবে গুনগুনের ড্যাডি মেয়ে-জামাইয়ের ক্রমাগত অশান্তিতে এতটাই বিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন যে মেয়েকে শশুর বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া তো দূরের কথা, তিনি তাদের দেখা করাটাও প্রায় বন্ধ করে দেন। যদিও ড্যাডির কড়া নজর এড়িয়েও রেস্টুরেন্টে, কিংবা শ্বশুরবাড়িতে দেখা করেছে সৌগুন। এখন ড্যাডির নজর এড়িয়ে পুচু সোনা আনার পরিকল্পনা করছে সৌগুন। ধারাবাহিকের এই নতুন টুইস্ট কার্যত পুজোর উপহার হিসেবেই দেখছেন অনুরাগীরা।