বৌমার পাকা চুল দেখে ট্রোলের বন্যা নেটিজেনদের, মোক্ষম জবাব দিলেন অভিনেত্রীর শাশুড়ি

159

বয়স বাড়লে চেহারায় তার ছাপ পড়তে বাধ্য। অতি বড় সুন্দরীও চেহারা থেকে বয়সের ছাপ এড়াতে পারেন না। কালের নিয়মে বয়স বাড়বে। বয়স বাড়ার পাশাপাশি চেহারার লাবণ্যে ঘাটতি পড়বে, মসৃণ ত্বক কুঁচকে যাবে, চুলে পাক ধরবে; এ তো নিতান্তই স্বাভাবিক ব্যাপার। তবে বলিউড সেলিব্রিটি বিশেষত নায়িকাদের ক্ষেত্রে কিন্তু সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি আলাদা। তা ফের একবার প্রমাণিত হলো।

সিনেমার পর্দার নায়িকা মানেই তাকে হতে হবে ঝাঁ-চকচকে! চেহারায় বয়সের ছাপ পড়বে না, চুলে পাক ধরবে না, মেকআপ একটুও এদিক-ওদিক হবে না! পর্দায় তাদের যেমন দেখা যায়, বাস্তব জীবনেও তাদের তেমনই দেখতে হবে। এই ধারণা যেন নেটিজেনদের মধ্যে বদ্ধমূল হয়ে গিয়েছিল। তবে সেই বদ্ধমূল ধারণায় আঘাত হানলেন ‘মুসাফির’ ছবি খ্যাত অভিনেত্রী সমীরা রেড্ডি।

সমীরা সম্প্রতি সোশ্যাল সাইটে নিজের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। একেবারেই “নো মেক আপ” লুকে সোশ্যাল সাইটে ধরা দিয়েছিলেন অভিনেত্রী। মুখে বিন্দুমাত্র মেক আপের পরত ছিল না। সবথেকে বেশি যে জিনিসটির উপর নেটিজেনদের চোখ আটকিয়েছে, তা হলো তার মাথার চুলের রুপোলি রঙ, কপালের ভাঁজ,গালে বলিরেখা ও ব্রণ! এইসব নাকি একজন অভিনেত্রীকে মানায় না। এমনটাই মনে করছেন নেটিজেনদের একাংশ।

নেটিজেনদের এমন সমালোচনা, কুৎসা, ট্রোলের কাছে কিন্তু বিন্দুমাত্র নতি স্বীকার করেননি সমীরা। উল্টে নেটিজেনদের উদ্দেশ্যে আরেকটি ভিডিও পোস্ট করে কুমন্তব্যকারীদের গালেই যেন সপাটে চড় মেরে বসেছেন তিনি! নিজের ওই “খুঁতে ভরা ছবি”টিই নেট মাধ্যমে ফের শেয়ার করে জনপ্রিয় ইউটিউবার যশরাজ মুখটির সুর করা একটি গান ব্যাকগ্রাউন্ডে জুড়ে দিয়েছেন তিনি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sameera Reddy (@reddysameera)

সমীরা গানের মাধ্যমে জানিয়ে দিয়েছেন, তার যেমন খুশি, তিনি তেমনভাবেই নিজের জীবন যাপন করবেন! কেউ কিছু বলতে এলে কিন্তু তাকে মিষ্টি মিষ্টি কটু কথা শোনার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে! উল্লেখ্য, সমীরার এই পোস্টকে সমর্থন করছেন অনেকেই।

তবে এদের মধ্যে সমীরার শাশুড়ি মঞ্জরী ভার্দের কমেন্টটিই কিন্তু সব থেকে বেশি উল্লেখযোগ্য। পুত্রবধূকে সমর্থন করে তিনি লিখেছেন, ‘বুদ্ধি ও রসবোধ বাড়ার অন্যতম লক্ষণ পাকা চুল!’ পুত্রবধূর প্রতি মঞ্জরী ভার্দের এমন সমর্থন দেখে আপ্লুত নেটিজেন তাকে সাধুবাদ জানাতে দ্বিধা করছেন না।