‘সলমান নায়ক হলে ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে দেব’, চ্যালেঞ্জ করে বলিউড ছাড়তে হয়েছে এই পরিচালককে

সালমান খান (Salman Khan), আজ বলিউডের (Bollywood) সবথেকে সফল অভিনেতা। বলিউডে শাহরুখ যদি হন রোমান্স কিং, সালমানকে তাহলে বলা হয় অ্যাকশন কিং। ভাইজানের ক্যারিশমা আজ তিন দশক পরেও অটুট। আজ থেকে প্রায় ৩৩ বছর আগে ইন্ডাস্ট্রিতে পা রেখেছিলেন সালমান খান। বলিউডে প্রথম প্রথম অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে সেলিম খানের পুত্রকে।

সেলিম খান ছিলেন বলিউডের একজন প্রখ্যাত অভিনেতা, প্রযোজক এবং চিত্রনাট্যকার। তবে তার পুত্র হয়েও বলিউডে নিজের জায়গা গড়তে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছিল সালমান খানকে। প্রথম প্রথম বলিউডে সেভাবে কাজের সুযোগ পেতেন না সালমান। প্রথমদিকে ডেবিউ করার জন্য বলিউডের কোনও ছবিতে তেমন জায়গা পাননি তিনি। শেষমেষ একটি ছবিতে পার্শ্বচরিত্রের অভিনেতা হিসেবে কেরিয়ারের খাতা খোলেন সালমান।

রেখা (Rekha) এবং ফারুক শেখের (Farooq Shaikh) ‘বিবি হো তো অ্যায়সি’ (Biwi Ho To Aisi) ছবিতে অভিনয় করে বলিউডে ডেবিউ করেন সালমান খান। কিন্তু জানলে হয়তো অবাক হবেন, সেই ছবিতেও সালমানকে সুযোগ দেওয়ার কোনও ইচ্ছেই ছিলো না পরিচালকের! কারণ সেই সময় সালমানকে নিয়ে বিশেষ আশাবাদী ছিল না বলিউড। তাই তাকে ছবিতে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ দিতেও পরিচালকের মনে প্রশ্ন জেগেছিল।

‘দশ কা দম’ রিয়্যালিটি শো’য়ের একটি পর্বে অংশগ্রহণ করে সালমান খান নিজের মুখেই সেই কথা জানিয়েছিলেন। সেই সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন, ছবি মুক্তির বহু বছর পর সালমান ওই ছবির পরিচালক জেকে বিহারীর কাছে জানতে চেয়েছিলেন, তাকেই কেন ওই ছবির পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ দিয়েছিলেন তিনি? সালমানের প্রশ্নের অকপট জবাব দিয়েছিলেন ওই পরিচালক।

পরিচালক ভাইজানকে জানিয়েছিলেন, আসলে ওই ছবির ওই পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের জন্য বলিউডের তৎকালীন তাবড় তাবড় অভিনেতাদের কাছে প্রস্তাব নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। তবে তারা সকলেই তাকে ফিরিয়ে দেন। তাই শেষমেষ কিছুটা বাধ্য হয়েই সালমানের শরণাপন্ন হতে হয় তাকে। তবুও সালমানের উপর ভরসা রাখতে পারেননি ওই পরিচালক। সালমান প্রসঙ্গে আলটপকা মন্তব্য করে বসেছিলেন তিনি।

পরবর্তী দিনে এক সাক্ষাৎকারে ‘বিবি হো তো অ্যায়সি’-র প্রযোজক সুরেশ ভগত জানিয়েছিলেন, ওই পরিচালক নাকি হলফ করে বলেছিলেন সালমান কোনদিনও নায়ক হতে পারবেন না! তিনি এও বলেছিলেন, সালমান যদি বড় তারকা হতে পারেন তাহলে তিনি ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে দেবেন! তিনি যে সেদিন কতটা ভুল ছিলেন তার প্রমাণ কয়েক বছর পরেই দেন সালমান। সুরেশের কথায়, “সেই পরিচালক আজ সত্যিই ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে দিয়েছেন।”